ঢাকা, শুক্রবার,২৪ নভেম্বর ২০১৭

অন্যান্য

বজ্রপাত থেকে বাঁচতে ১২ হাজার তালের চারা রোপণ

নয়া দিগন্ত অনলাইন

১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭,বৃহস্পতিবার, ১৩:৩৭


প্রিন্ট

বজ্রপাত তথা প্রাকৃতিক দূর্যোগের কবল থেকে মানুষকে রক্ষা করতে নাটোর সদর উপজেলার মহাসড়ক ও গ্রামীণ রাস্তার ৩৬ কিলোমিটার জুড়ে ১২ হাজার তালের চারা ও বীজ রোপণ করা হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার নাটোরের কালেক্টরেট ভবনের সামনে মহাসড়কে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন শেষে একযোগে উপজেলার সাতটি ইউনিয়নের গ্রামীণ সড়কে স্কুলের শিক্ষার্থীরা একযোগে এসব চারা ও বীজ রোপণ করে।

কর্মসূচির উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক শাহিনা খাতুন বলেন, ভৌগলিক আয়তনের আনুপাতিক হারে আমাদের দেশে বনভূমি ও বৃক্ষের পরিমান কম। এজন্যে মানুষকে প্রাকৃতিক দুর্যোগের কবলে পড়তে হচ্ছে। দেশে তাল গাছের সংখ্যা কমে যাওয়ায় বজ্রপাতে প্রাণহানির সংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে। বজ্রপাত থেকে মানুষকে রক্ষার পাশপাশি মাটির ক্ষয় রোধ এবং তাল রস ও ফলের পরিধি বাড়াতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় তাল গাছের সংখ্যা বৃদ্ধির উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ড. চিত্রলেখা নাজনিন ও মুহাম্মদ মুণিরুজ্জামান ভূঞাঁ, কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উপ পরিচালক মোঃ রফিকুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার জেসমিন আকতার বানু, উপজেলা কৃষি অফিসার মোঃ মেহেদুল ইসলামসহ বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষার্থীরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

একই সময়ে নাটোর সদর উপজেলার সাতটি ইউনিয়নের গ্রামীণ সড়কে একযোগে জনপ্রতিনিধি ও কৃষি বিভাগের কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে তাল গাছের চারা ও বীজ রোপণ করা হয়।

এসব সড়কের মধ্যে রয়েছে আগদিঘা থেকে ছাতনী,পন্ডিতগ্রাম থেকে বগুড়া রোড,কৈগাড়ি কৃষ্টপুর থেকে কদমতলী, ডালসড়ক থেকে গোয়াল দিঘী, কাঠালবাড়িয়া থেকে দরাপপুর,রাজিবপুর থেকে চেংগীর হাট, দত্তপাড়া থেকে ফতেঙ্গাপাড়া, একডালা থেকে থেকে তোকিয়া, গোরস্থান বাজার থেকে মাটিয়াপাড়া, গাওপাড়া ঢালান থেকে নারায়নপুর, বাগরোম থেকে রায়হালসা ও হালসা এবং নাটোর শহরের শঙকর গোবিন্দ চৌধুরী স্টেডিয়াম থেকে ডালসড়ক পর্যন্ত মোট ৩৬ কিলোমিটার। উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে কৃষি বিভাগ এই কর্মসূচী বাস্তবায়ন করছে।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫