ঢাকা, বুধবার,২০ সেপ্টেম্বর ২০১৭

আরো খবর

গণহত্যার প্রতিবাদে সারা দেশে মানববন্ধন

আন্তর্জাতিক আদালতে সু চির বিচার দাবি বিভিন্ন সংগঠনের

নয়া দিগন্ত ডেস্ক

১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭,বৃহস্পতিবার, ০০:০০


প্রিন্ট

মিয়ানমারের আরাকান রাজ্যে রোহিঙ্গা মুসলমানদের গণহত্যা, বর্বরোচিত নির্যাতন, বাড়িঘর থেকে উচ্ছেদের প্রতিবাদ এবং এ ব্যাপারে বাংলাদেশ বিশ্ববাসীকে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণের দাবিতে গতকাল সারা দেশে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল করেছে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। মানববন্ধনে তারা রোহিঙ্গা নিধন বন্ধের দাবি জানান।
ফরিদপুর সংবাদদাতা জানান, আরাকানে রোহিঙ্গা মুসলিম জাতি নির্মূলের অংশ হিসেবে নারী ও শিশুসহ নির্বিচারে মানুষ হত্যা, ধর্ষণ, লুটপাট ও ঘরবাড়িতে অগ্নিসংযোগ করে জ্বালিয়ে দেয়ার প্রতিবাদে ফরিদপুরে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ‘উৎসর্গ’ ও ‘নবউন্মেষ’ নামে দু’টি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের উদ্যোগে গতকাল বেলা ১১টার দিকে ফরিদপুর প্রেস কাবের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। ফরিদপুরের কলেজ ও মাদরাসা পড়–য়া কয়েক শ’ শিক্ষার্থী এ মানববন্ধনে শামিল হয়ে রোহিঙ্গা নির্যাতনের প্রতিবাদ জানায়।
এ সময় রোহিঙ্গাদের ওপর মিয়ানমারের সামরিক জান্তা ও সন্ত্রাসীদের বর্বরোচিত হামলার প্রতিবাদ জানান বক্তারা। মানববন্ধনে ব্যানারের পাশাপাশি বাংলা, ইংরেজি ও আরবি ভাষায় লেখা বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড বহন করে অংশগ্রহণকারীরা।
এ সময় বক্তব্য দেন উৎসর্গ নামে সংগঠনটির সভাপতি সৈয়দ আরাফাত আলী সামিন, সহসভাপতি সাদিব আহমেদ লিখন, নবউন্মেষের মুখপাত্র মুহাম্মদ জামিল সিদ্দিকী, মাহিদুল ইসলাম স্মরণ, সিয়ামুল হাসান সিয়াম, মেহেদি হাসান রিমন, দেলোয়ার হোসেন, অনিক খান, হৃদয় খান, আসিফ আব্দুল্লাহ, ইমন আকিব, সৈয়দ শাহরিয়ার বায়েজিদ প্রমুখ। আধঘণ্টাব্যাপী এ মানববন্ধনের বক্তব্য চলাকালে এক পর্যায়ে পুলিশ মানববন্ধনে বাধা দেয়।
চরভদ্রাসন (ফরিদপুর) সংবাদদাতা জানান, রোহিঙ্গাদের নির্বিচারে হত্যা, পৈশাচিক নির্যাতন বন্ধ ও আন্তর্জাতিক আদালতে নির্যাতনকারী সেনাদের বিচারের দাবি নিয়ে ফরিদপুরের চরভদ্রাসন উপজেলা সদর বাজারে গতকাল সকাল ১০টায় মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছেন স্থানীয় জনসাধারণ। বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন উপজেলা শাখা ও চরভদ্রাসন হাটবাজার বণিক সমবায় সমিতির উদ্যোগে এ মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করা হয়।
জানা যায়, গতকাল সকালে দূর-দূরান্ত থেকে মসজিদ, মাদরাসা, স্কুল-কলেজ ও বিভিন্ন পেশাজীবী মানববন্ধন কর্মসূচিতে অংশগ্রহণের জন্য উপজেলা সদর বাজারে ছুটে আসছিল। স্থানীয় সর্বসাধারণ বাজারের মেইন সড়কের দুই পাশে হাতে হাত ধরে প্রায় এক কিলোমিটার রাস্তা ঘিরে ঘণ্টাকাল দাঁড়িয়ে থেকে তাদের দাবি-দাওয়া তুলে ধরেন।
এ মানববন্ধন কর্মসূচির সভাপতিত্ব করেন উপজেলা কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের ইমাম মুফতি আব্দুস সবুর। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন, চরভদ্রাসন হাটবাজার বণিক সমিতির সভাপতি মো: শহিদুল ইসলাম মোল্যা, স্থানীয় বাজারঘর মালিক সমিতির সভাপতি শহিদুল ইসলাম, মাওলানা আব্দুস ছাত্তার, মাওলানা আ: মান্নান, হাফেজ নোমান মানসুর ও ব্যবসায়ী মোতালেব হোসেন মোল্যা প্রমুখ।
বক্তারা রোহিঙ্গাদের নির্বিচারে হত্যাযজ্ঞ, পৈশাচিক নির্যাতন বন্ধ ও আন্তর্জাতিক আদালতে অং সান সু চিসহ নির্যাতনকারী সেনাদের দ্রুত বিচার করার জন্য জাতিসঙ্ঘের কাছে জোর দাবি তুলে ধরেন।
কাশিয়ানী (গোপালগঞ্জ) সংবাদদাতা জানান, রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর নির্যাতনের প্রতিবাদে গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার বিভিন্ন স্থানে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল উপজেলার কওমি মাদরাসা পরিষদ এ মানববন্ধনের আয়োজন করে। উপজেলার ভাটিয়াপাড়া গোলচত্বরের মানববন্ধনে কওমি মাদরাসার শিক্ষক-ছাত্রসহ শত শত সাধারণ মানুষ যোগদান করে। ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন শেষে বক্তব্য রাখেন শিক্ষক আলহাজ হাফেজ আব্দুল্লাহ, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের সাংগঠনিক সম্পাদক মো: নূর ইসলাম লেলিন, শিক্ষক হাফেজ তরিকুল ইসলাম, মাওলানা মারুফ বিল্লাহ, হাফেজ আমিনুর রহমান, হাফেজ আনিচুর রহমান, হাফেজ নূর মোহাম্মদ, সাবেক মেম্বর মো: জাকির হোসেন প্রমুখ।
গোপালগঞ্জ সংবাদদাতা জানান, মিয়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর হামলা, নির্যাতন, ধর্ষণ ও গণহত্যার প্রতিবাদে গোপালগঞ্জে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। জামেয়া ইসলামিয়া আজিজিয়া শামচুল উলুম মাদরাসার ব্যানারে এ কর্মসূচি পালন করে।
গতকাল বেলা ১০টায় গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার চন্দ্রদিঘলিয়া বাসস্ট্যান্ড এলাকায় ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে হাতে হাত ধরে ঘণ্টাব্যাপী এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। এ সময় হাজার হাজার ধর্মপ্রাণ মুসলমান মিয়ানমারের রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর নির্যাতন, দেশত্যাগে বাধ্য করা ও গণহত্যা বন্ধের দাবিতে ব্যানার, ফেস্টুন প্ল্যাকার্ড নিয়ে বিভিন্ন স্লোগান দেন। পরে জামেয়া ইসলামিয়া আজিজিয়া শামচুল উলুম মাদরাসার মহতামিম মওলানা আবদুল্লাহর সভাপত্বিতে চন্দ্রদিঘলিয়া উচ্চবিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মো: আকামত ভূঁইয়া, মুক্তিযোদ্ধা ছবেদ আলী ভূঁইয়া প্রমুখ্য বক্তব্য রাখেন।
সুনামগঞ্জ সংবাদদাতা জানান, আরাকান রাজ্যে মুসলিম রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ ও শিশু হত্যা ও নির্যাতনের প্রতিবাদে সুনামগঞ্জে মানববন্ধন করেছে ইয়াং জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন।
গতকাল বেলা ১টায় শহরের ট্রাফিক পয়েন্টে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
ঘণ্টাব্যাপী এ মানববন্ধনে ইয়াং জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের মো: আশিকুর রহমান পীরের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন : সুনামগঞ্জ পৌরসভার সাবেক ভারপ্রাপ্ত মেয়র নূরুল ইসলাম বজলু, রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি লতিফুর রহমান রাজু, রিপোর্টার্স ইউনিটির অর্থ সম্পাদক সেলিম আহমদ তালুকদার, রিপোর্টার্স ইউনিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এমরানুল হক চৌধুরী, ইয়াং জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সহসভাপতি ফুয়াদ মনি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লিপসন আহমদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রায়হান আলীম, সাংগঠনিক সম্পাদক আল-আমিন, অর্থ সম্পাদক শহীদ নূর আহমদ, দফতর সম্পাদক জাকের আহমদ, প্রচার সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, ক্রীড়া সম্পাদক তরিকুল ইসলাম, সংস্কৃতিক সম্পাদক সোহানুর রহমান সোহান, সদস্য দিলাল আহমদ, এফ এম রাহি, কাওসার আহমদ, আবদুল কাইয়ূম, ইসমাইল আলী হীরা প্রমুখ।
নেত্রকোনা সংবাদদাতা জানান, মিয়ানমারে নির্বিচারে রোহিঙ্গা মুসলিম গণহত্যা বন্ধ ও অবিলম্বে নিজ দেশে তাদের ফিরিয়ে নেয়ার দাবিতে নেত্রকোনায় মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। গতকাল বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত স্থানীয় পৌরসভার সামনের সড়কে নেত্রকোনা সচেতন নাগরিক সমাজ আয়োজিত এই মানববন্ধন কর্মসূচিতে বিভিন্ন শ্রেণিপেশার লোকজন অংশগ্রহণ করেন। এ সময় বক্তব্য রাখেন : প্রেস কাব সম্পাদক শ্যামলেন্দু পাল, নেত্রকোনা রাষ্ট্রবিজ্ঞান সমিতির সভাপতি ননী গোপাল সরকার, শিকড় উন্নয়ন কর্মসূচির সাধারণ সম্পাদক জিয়াউর রহমান খোকন, সাংবাদিক শ্যালেন্দু পাল, এ কে এম আবদুল্লাহ প্রমুখ।
সোনারগাঁও (নারায়ণগঞ্জ) সংবাদদাতা জানান, মিয়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলমানদের গণহত্যার প্রতিবাদে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে বিক্ষোভ মিছিল করেছে বিক্ষুব্ধ জনতা। গতকাল বিকেলে সোনারগাঁও পৌরসভার খাসনগর দীঘিরপাড় যুবসমাজের উদ্যোগে এ বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি খাসনগর দীঘির পাড় থেকে শুরু করে প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে সোনারগাঁও উপজেলা চত্বর হয়ে বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনের প্রধান ফটকের সামনে শেষ হয়। বিক্ষোভ মিছিলে সোনারগাঁও পৌরসভা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক মো: আলাউদ্দিনের নেতৃত্বে জনি, মোকবিল, রাজিব, জামিল, ইসলামসহ স্থানীয় যুব সমাজের লোকজন, মাদরাসা শিক্ষক শিক্ষার্থী ও মসজিদের ইমামরা উপস্থিত ছিলেন। পরে মিছিলকারীরা বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনের প্রধান ফটকের সামনে অং সান সু চির কুশপুত্তলিকা পোড়ান।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫