ঢাকা, বুধবার,২০ সেপ্টেম্বর ২০১৭

অন্যদিগন্ত

উত্তর কোরিয়ার পরমাণু বোমাটি ছিল ২৫০ কিলোটন ক্ষমতাসম্পন্ন মার্কিন পর্যবেক্ষক গ্রুপ

এএফপি

১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭,বৃহস্পতিবার, ০০:০০


প্রিন্ট

উত্তর কোরিয়া সর্বশেষ ২৫০ কিলোটন ক্ষমতাসম্পন্ন পরমাণু অস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। বুধবার মার্কিন পর্যবেক্ষক গ্রুপ এ কথা জানায়। এটি সরকারি ধারণার চেয়েও কয়েক গুণ বেশি শক্তিশালী।
পিয়ংইয়ং গত সপ্তাহে তাদের ষষ্ঠ ও সবচেয়ে শক্তিশালী পারমাণবিক অস্ত্রের পরীক্ষা চালানোর কথা উল্লেখ করে বলেছে, এটি ছিল একটি হাইড্রোজেন বোমা যা ক্ষেপণাস্ত্রে স্থাপন করা যাবে। এ পরীক্ষার পরপরই আন্তর্জাতিক অঙ্গনে উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে নিন্দার ঝড় ওঠে এবং তাদের পারমাণবিক অস্ত্রের উচ্চকাক্সক্ষা নিয়ে উত্তেজনা ক্রমে তীব্র হয়। মঙ্গলবার জাতিসঙ্ঘ নিরাপত্তা পরিষদ এ ঘটনায় দেশটির ওপর নতুন কঠোর বাণিজ্য নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে।
মার্কিন ভূতাত্ত্বিক সংস্থা জানায়, উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক অস্ত্রের এ পরীক্ষার ফলে যে ভূকম্পন হয় রিখটার স্কেলে তার তীব্রতা ছিল ৬.৩। কমপ্রিহেনসিভ নিউকিয়ার টেস্ট ব্যান ট্রিটি অর্গানাইজেশনের (সিটিবিটিও) নরওয়ের সংস্থা এনওআরএসএআর জানায়, পারমাণবিক পরীক্ষার ফলে যে ভূকম্পন সৃষ্টি হয় রিখটার স্কেলে তার মাত্রা ছিল ৬.১। এর ফলে সংশ্লিষ্ট মার্কিন ওয়েবসাইট ৩৮ নর্থ জানায়, উত্তর কোরিয়ার পরীক্ষা চালানো পারমাণবিক অস্ত্রের ক্ষমতা ছিল প্রায় ২৫০ কিলোটন। উল্লেখ্য, ১৯৪৫ সালে জাপানের হিরোশিমায় যুক্তরাষ্ট্র যে পারমাণবিক বোমার বিস্ফোরণ ঘটায় সেটির ক্ষমতা ছিল মাত্র ১৫ কিলোটন। উত্তর কোরিয়ার এ পারমাণবিক অস্ত্র যুক্তরাষ্ট্রের ওই পারমাণবিক বোমার তুলনায় প্রায় ১৬ গুণ বেশি ক্ষমতাসম্পন্ন।
উ কোরিয়ার সাথে সামরিক সম্পর্ক ছিন্ন মিসরের
উত্তর কোরিয়ার সাথে সামরিক সম্পর্ক ছিন্ন করেছে মিসর। গত বুধবার এক ঘোষণায় এ কথা জানান দেশটির প্রতিরা মন্ত্রী সেদকি সোভি। দণি কোরিয়ার বার্তা সংস্থা ইয়োনহাপের বরাত দিয়ে এ খবর জানানো হয়েছে। খবরে বলা হয়, দণি কোরিয়ার রাজধানী সিউল সফরের সময় এ ঘোষণা দেন সোভি। দেশটির প্রতিরা মন্ত্রী ইয়াং-মুকে সোভি জানান, তারা ইতোমধ্যে উত্তর কোরিয়ার সাথে সামরিক সম্পর্ক ছিন্ন করেছে। আর শান্তি রায় তারা সক্রিয়ভাবে দণি কোরিয়ার পাশে থাকবে। ইয়াং মু’র সাথে এটা সোভির প্রথম বৈঠক।
প্রতিরা বিষয়ে গত মার্চে দুই দেশের মধ্যে একটি সমঝোতা স্বার হয়। অনেক দিন ধরেই উত্তর কোরিয়ার সাথে সুসম্পর্ক ছিল মিসরের। তাদের কাছ থেকে অস্ত্র আমদানি করত মিসর। উত্তর কোরিয়ার সাথে সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ এনে গত মাসে মিসরের সাথে ৩০ কোটি ডলারের চুক্তি বাতিল করে যুক্তরাষ্ট্র। এরপরই তাদের অবস্থান থেকে সরে আসে মিসর।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫