ঢাকা, বুধবার,২০ সেপ্টেম্বর ২০১৭

বাংলার দিগন্ত

পটিয়া ভেল্লাপাড়া ব্রিজের সংযোগ শোল্ডার ধস চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক ঝুঁকিপূর্ণ

এস এম রহমান পটিয়া-চন্দনাইশ (চট্টগ্রাম)

১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭,বৃহস্পতিবার, ০০:০০


প্রিন্ট

চট্টগ্রামের ব্যস্ততম চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের পটিয়া ভেল্লাপাড়া ব্রিজের দক্ষিণ প্রান্তের সংযোগস্থলের শোল্ডার ধসে পড়েছে। এ কারণে এ সড়কও ঝুঁকিপূর্ণ। সড়ক ও জনপথ কর্তৃপক্ষ ঝুঁকিপূর্ণ এলাকায় বাঁশের খুঁটিতে লাল পতাকা টানিয়ে যানবাহন ও পথচারীদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছে।
একটানা কয়েক বছরের ভারী বৃষ্টি ও শিকলবাহা খালের অস্বাভাবিক জোয়ারে ব্রিজের দুই প্রান্তে মহাসড়কের সংযোগস্থলের মাটি ধসে গিয়ে সড়কের শোল্ডার ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়ে। সেই সাথে চলতি বছরের একটানা ভারী বৃষ্টিপাত ও খালের তীব্র জোয়ারে ব্রিজের দক্ষিণ প্রান্তের সংযোগস্থলের শোল্ডার ধসে পড়ে। সম্প্রতি ঝুঁকিপূর্ণ স্থান দিয়ে নগরী থেকে পটিয়ায় আসার পথে পোশাক শ্রমিকবাহী একটি যাত্রীবাহী বাস খাদে পড়ে অর্ধশত পোশাক শ্রমিক আহত হন। অবশ্য ওই দুর্ঘটনায় কোনো প্রাণহানি ঘটেনি। ধসে পড়া সড়কের সংযোগস্থল জরুরি ভিত্তিতে মেরামত করা না হলে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কও ধসে যেতে পারে।
জানা গেছে, সড়ক ও জনপথ বিভাগ ১৯৯১-৯২ সালে শিকলবাহা খালের ওপড় ভেল্লাপাড়া ব্রিজ নির্মাণ করে। ব্রিজটির দৈর্ঘ্য ১১৫ মিটার ও প্রস্থ ৭.৩ মিটার।
গত সোমবার সরেজমিন দেখা গেছে, ভারী বর্ষণ ও খালের ঢলে ব্রিজের উভয়প্রান্তের সংযোগস্থলের সোল্ডার দেবে গেছে। এ ছাড়া শিকলবাহা খালের তীব্র জোয়ারে খালের দুই পাড় ভেঙে যাচ্ছে। এখন পর্যন্ত ভাঙনরোধে কোনো প্রতিরোধ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। ব্রিজের সংযোগস্থলে সড়কের ক্ষতিগ্রস্ত শোল্ডার মেরামত করার বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে সড়ক ও জনপথ বিভাগের পটিয়ার উপবিভাগীয় প্রকৌশলী সাখাওয়াত হোসেন বলেন, আপাতত বালুর বস্তা দিয়ে কোনোভাবে সড়কের সোল্ডার ধরে রাখা হয়েছে। পাশাপাশি ক্ষতিগ্রস্ত অংশ মেরামতের জন্য দরপত্র আহ্বান করা হয়েছে। তিনি বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত শোল্ডার মেরামতকালীন সময়ে দুর্ঘটনা এড়াতে সড়ক বিভাগ লাল পতাকা দিয়ে যানবাহন ও পথচারীদের সতর্ক করছে।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫