ঢাকা, বুধবার,২০ সেপ্টেম্বর ২০১৭

বাংলার দিগন্ত

দশমিনা-বাউফল সীমান্তের ব্রিজটি এখন মারণফাঁদ

দশমিনা (পটুয়াখালী) সংবাদদাতা

১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭,বৃহস্পতিবার, ০০:০০


প্রিন্ট

পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলার বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়নের উত্তর সীমান্তে ও বাউফল উপজেলার কালাইয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ প্রান্তে বগী বাজার খালের ওপর নির্মিত ব্রিজটি এখন মারণফাঁদে পরিণত হয়ে গেছে।
গুরুত্বপূর্ণ বগী বাজার খালের ওপর ব্রিজ দিয়ে দশমিনা উপজেলার গছানি, বাঁশবাড়িয়া ও বাউফল উপজেলার কালাইয়া, দাশপাড়া, বগীসহ দুই উপজেলার পাঁচ গ্রামের কয়েক হাজার মানুষের চলাচলের একমাত্র মাধ্যম। ব্রিজটি সংস্কার না করায় দীর্ঘ দিন ধরে অকেজো অবস্থায় পড়ে রয়েছে।
সরেজমিন দেখা যায়, প্রায় ২০০ ফুট আয়তনের এ ব্রিজটি উত্তর দিকে হেলে পড়ে রয়েছে। ঠিক কত বছর আগে ব্রিজটি নির্মাণ করা হয়েছিল তা কেউ নির্দিষ্ট করে বলতে পারেন না। ব্রিজের বেশির ভাগ স্লিপার নেই। কথা হয় স্থানীয়দের সাথে। স্থানীয়রা বলেন ব্রিজটি কাঠ ও বাঁশ দিয়ে জোড়াতালি দিয়ে কোনো রকম ব্যবহারযোগ্য হয়েছে। কালাইয়া ইউনিয়নের শৌলায় নুরজাহান গার্ডেন ও বগীর বাজার সংলগ্নে স্বপ্নচূড়া নামক পৃথক দুটি মিনি পার্ক রয়েছে। প্রতিদিন ওই ব্রিজ দিয়ে শত শত ভ্রমণপিপাসু মানুষ যাতায়াত করে থাকে। এ ছাড়াও রয়েছে বেসরকারি টিডিএইচ-নেদাল্যান্ডস নামে অত্যন্ত সুপরিচিত একটি অত্যাধুনিক হাসপাতাল। ফলে এ ব্রিজটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ স্থানীয়দের কাছে। তবে বাঁশ দিয়ে করা প্রাথমিক এ সংস্কার করা ব্রিজ দিয়ে বেশি দিন যাতায়াত করা সম্ভব হবে না। দ্রুত সংস্কার না করা হলে যেকোনো সময় ভেঙে পড়ে ঘটতে পারে বড় কোনো দুর্ঘটনা। তাই ব্রিজটি দ্রুত সংস্কারের দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা।
এ ব্যাপারে দশমিনা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট শাখাওয়াত হোসেন শওকত বলেন, খুব শিগগিরই ব্রিজটি সংস্কারের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫