ঢাকা, শুক্রবার,২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭

ফুটবল

আর্জেন্টিনার সামনে মাত্র দুটি সুযোগ

নয়া দিগন্ত অনলাইন

০৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭,বুধবার, ১৭:৪৮


প্রিন্ট
আর্জেন্টিনার সামনে মাত্র দুটি সুযোগ

আর্জেন্টিনার সামনে মাত্র দুটি সুযোগ

আবারো বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনা ও চিলির সরাসরি অংশগ্রহণের সুযোগ প্রতিবন্ধকতার মুখে পড়েছে। মঙ্গলবার দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের বছাই পর্বের ম্যাচে স্বাগতিক আর্জেন্টিনা দ্বিতীয়ার্ধের আত্মঘাতী গোলের কারণে ১-১ গোলে ড্র করেছে ইতোমধ্যে ছিটকে পড়া ভেনিজুয়েলার কাছে। আর লা পেজে অনুষ্ঠিত বছাইপর্বে বলিভিয়ার কাছে ১-০ গোলে হেরে গেছে ওই অঞ্চলের আরেক হেভিওয়েট দল চিলি।

এই ম্যাচের ফলে আগামী বছর রাশিয়ায় অনুষ্ঠেয় বিশ্বকাপ ফুটবলের চূড়ান্ত আসরে সরাসরি অংশগ্রহণের সুযোগ ফের হুমকির মুখে পড়েছে ২০১৪ সালের বিশ্বকাপের ফাইনালিস্ট আর্জেন্টিনা ও কোপা আমেরিকার বর্তমান চ্যাম্পিয়ন চিলির।

বর্তমানে ১৬ ম্যাচ থেকে মাত্র ২৪ পয়েন্ট নিয়ে ওই অঞ্চলের বছাইপর্বের পয়েন্ট তালিকার পঞ্চম অবস্থানে রয়েছে আর্জেন্টিনা। সমানসংখ্যক ম্যাচ থেকে ২৩ পয়েন্ট সংগ্রহকারী চিলির অবস্থান ষষ্ঠ। ১৬ ম্যাচ থেকে ৩৭ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে রয়েছে ব্রাজিল।

আগামী মাসে বাছাইপর্বে পয়েন্ট টেবিলের চতুর্থ স্থানে থাকা পেরুর মোকাবেলা করবে আর্জেন্টিনা। এরপর শেষ ম্যাচে খর্বশক্তির ইকুয়েডরের মোকাবেলা করবে তারা। সর্বশেষ ওই দুটি ম্যাচের পরও যদি তাদের অবস্থান অক্ষুন্ন থাকে তাহলে প্লে অফ ম্যাচের বৈতরণী পার হয়ে বিশ্বকাপের টিকিট অর্জন করতে হবে আর্জেন্টাইনদের। কারণ ওই অঞ্চল থেকে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ চারটি দলের সরাসরি বিশ্বকাপে অংশগ্রহণের সুযোগ রয়েছে।

অপরদিকে আগামী ৫ অক্টোবর সান্তিয়াগোতে ইকুয়েডরের মোকাবেলা করবে চিলি। ৫দিন পর শেষ ম্যাচে তাদের লড়তে হবে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ দল ব্রাজিলের বিপক্ষে।
পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থানে থাকার কারণে ইতোমধ্যে বিশ্বকাপ নিশ্চিত করে ফেলেছে ব্রাজিল। মঙ্গলবার বারানকুইলারে অনুষ্ঠিত বছাইপর্বে কলম্বিয়ার সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করার সুবাদে ব্রাজিলিয়দের সংগ্রহশালায় যুক্ত হয়েছে আরো একটি পয়েন্ট।

প্রথমার্ধের অতিরিক্ত সময়ে নেইমারের যোগান থেকে পাওয়া বল ভলির সাহায্যে কলম্বিয়ার জালে জড়িয়ে দিয়ে ব্রাজিলকে এগিয়ে দেন উইলিয়ান। তবে দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই সেটি পরিশোধ করে দেয় টেবিলের তৃতীয়স্থানে থাকা কলম্বিয়া। ৫৬তম মিনিটে দুর্দান্ত এক হেডের সাহায্যে সমতাসুচক গোলটি করেন রাদামেল ফ্যালকাও।

বুয়েন্স আয়ার্সে অনুষ্ঠিত ম্যাচের ৫০তম মিনিটে জন মারিলোর গোলে আর্জেন্টিনা এগিয়ে গেলেও চার মিনিট পর রফ ফ্লেচারের আত্মঘাতি গোলে সমতায় ফিরতে হয় স্বাগতিকদের। খেলা শেষে আর্জেন্টাইন কোচ জর্জ সাম্পাওলি বলেন, তার দল বিশ্বকাপে সরাসরি খেলার অসাধারণ সুযোগটিই হাতছাড়া করেছে। দলের এই পরাজয়ের জন্য প্রথমার্ধের বাজে পারফর্মেন্সকেই দায়ী করেছেন তিনি।
লা পেজে অনুষ্ঠিত ম্যাচের ৫৯তম মিনিটে হুয়ান আর্চের পেনাল্টি থেকে দেয়া একমাত্র গোলে চিলির বিপক্ষে জয়লাভ করে স্বাগতিক বলিভিয়া। একই রাতে অনুষ্ঠিত বাছাইপর্বের অন্য ম্যাচে পেরু ২-১ গোলে ইকুয়েডরকে হারিয়ে শীর্ষ চারে স্থান করে নিয়েছে। আরেক ম্যাচে প্যারগুয়েকে ২-১ গোলে হারিয়েছে পয়েন্ট টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে থাকা উরুগুয়ে।


স্পেনের গোলবন্যা
বিশ্বকাপ যোগ্যতাপর্বে জয়ের ধারা অব্যাহত স্পেনের। গত শনিবার ইতালিকে ৩ গোলে হারিয়েছিল স্পেন। এবার তারা ৮–০ ব্যবধানে উড়িয়ে দিল লিচেনস্টাইনকে। জোড়া গোল করলেন আলভারো মোরাতা ও লাগো আসপেস। প্রথমার্ধেই ৪ গোলে এগিয়ে ছিল ২০১০ বিশ্বজয়ীরা। তাদের গোলবন্যা শুরু হয় ৩ মিনিটে। সের্জিও র‌্যামোস এগিয়ে দেন দলকে। ১৫ মিনিটে ব্যবধান বাড়ান মোরাতা। পরের মিনিটেই ৩–০ করেন ইস্কো। ৩৯ মিনিটেই ৪–০ হয়ে যায় দাভিদ সিলভার গোলে। দ্বিতীয়ার্ধেও স্পেনের গোলবন্যা জারি ছিল। ৫১ মিনিটে পঞ্চম গোল করেন আসপেস। ৩ মিনিট পরই ৬–০ হয় মোরাতার গোলে। ১০ মিনিটেই মধ্যেই নিজের দ্বিতীয় গোল সম্পূর্ণ করেন আসপেস। ৮৯ মিনিটে আত্মঘাতী গোল খেয়ে যায় লিচেনস্টাইন। জি গ্রুপের দ্বিতীয় স্থানে থাকা ইতালি ৫৩ মিনিটে সিরো ইম্মোবিলের একমাত্র গোলে হারায় ইসরাইলকে।

অপরদিকে ওয়েলস ২–০ হারাল মলডোভাকে। আইসল্যান্ড ২–০ হারিয়েছে ইউক্রেনকে। তুরস্ক ১–০ জিতল ক্রোয়েশিয়ার বিরুদ্ধে।

ইতালিকে বিশ্বকাপের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে দিলেন ইমোবিল
দ্বিতীয়ার্ধে সিরো ইমোবিলের করা গোলের সুবাদে ইসরাইলের বিপক্ষে মঙ্গলবার ১-০ গোলে জয়লাভ করেছে ইতালী। এ জয়ের ফলে ২০১৮ সালে রাশিয়ায় অনুষ্ঠেয় বিশ্বকাপ ফুটবলে সরাসরি অংশগ্রহণের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে গেছে আজ্জুরিরা।

গত শনিবার সান্তিয়াগো বার্নব্যুতে স্পেনের কাছে ৩-০ গোলে হেরে যাবার পর জি গ্রুপ থেকে সরাসরি খেলার যোগ্যতা অর্জনের পথ মসৃন করার জন্য এই জয়টি ইতালীর জন্য খুবই জরুরি ছিল। এখন পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা স্পেনের চেয়ে তিন পয়েন্টের ব্যবধানে পিছিয়ে রয়েছে তারা। যেহেতু হাতে আরো দুটি ম্যাচ রয়েছে, তাই স্প্যানিশদের হটিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থানে পৌঁছানোর সুযোগও এখনো ইতালীর হাতে রয়েছে। এদিন লিচেনস্টেইনকে ৮-০ গোলের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থান অক্ষুন্ন রাখে স্পেন। অপরদিকে একই গ্রুপের আরেক ম্যাচে আলবেনিয়ার সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করেছে মেসিডোনিয়া। ইতালির চেয়ে ৬ পয়েন্ট কম নিয়ে জি গ্রুপের পয়েন্ট টেবিলের তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে আলবেনিয়া।

ইতালীর কোচ জিয়ামপিয়েরো ভেনচুরা বলেন, ‘যে কোন উপায়ে আমাদের কাছে জয়টিই মুখ্য ছিল। তাই আমি খুশি। ম্যাচে আমরা ৮০ মিনিট প্রতিপক্ষের মাঠে বল চেপে রেখেছিলাম। তবে প্রথমার্ধে আমরা খুব একটা ভাল করতে পারিনি।’
এদিন ইনজুরিতে পড়া জিওর্জিও চিল্লিয়ানি ও নিষিদ্ধ লিওনার্দো বনুচ্চিকে ছাড়াই মাঠে নেমেছিল ইতালী। স্পেনের কাছে বিধ্বস্ত হবার পর এই ফলাফল অবশ্যই গ্রহণযোগ্য।

 

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫