ইরাক-কুয়েত সীমান্তে ধরা পড়া একটি কবুতরের পিঠে বাঁধা নেশার বড়ি
ইরাক-কুয়েত সীমান্তে ধরা পড়া একটি কবুতরের পিঠে বাঁধা নেশার বড়ি

জেলখানায় মাদকবাহী কবুতরকে গুলি

বিবিসি

কবুতরের সাহায্যে অর্জেন্টিনার জেলখানাগুলোতে মাদক সরবরাহ করা হচ্ছে- এরকম সন্দেহ বেশ কিছুদিন ধরেই পুলিশ করছিল। এ নিয়ে তারা তদন্তও শুরু করেছিল।
তার ভেতরেই সানতা রোসা শহরের কারাগারের ভেতর হাতেনাতে ধরা পড়ে যায় একটি মাদকবাহী কবুতর।
একটি কবুতরকে জেলখানার ভেতরের মাঠে নামতে দেখে সন্দেহ হয় পুলিশের। গুলি করার পর কবুতরটির পিঠে বাঁধা একটি ব্যাগপ্যাকের ভেতর ৪৪টি ঘুমের বড়ি, সাড়ে সাত গ্রাম গাজা এবং একটি ইউএসবি ড্রাইভ পাওয়া যায়।
গত কয়েক বছর ধরেই আর্জেন্টিনার জেলখানাগুলোকে সাবধান করা হচ্ছে যে পাচারকারীরা কবুতর ব্যাবহার করে কয়েদিদের কাছে মাদক পাঠাচ্ছে।
একেকটি প্রশিক্ষিত কবুতর দিনে মাদক নিয়ে ১৫ বার পর্যন্ত কারাগারে উড়ে যায়।
২০১৩ সালে একটি তদন্তের পর তিনজন মাদক পাচারকারীকে গ্রেপ্তার করে তাদের কাছ থেকে ১৫টি কবুতর আটক করা হয়েছিল।
শুধু আর্জেন্টিনা নয়, কবুতর ব্যবহার করে মাদক পাচারের প্রমাণ বিশ্বের আরও অনেক দেশেই পাওয়া গেছে।
এ বছরের গোঁড়ার দিকে কুয়েত ও ইরাকের সীমান্তে একটি কবুতরকে ধরা হয় যার পিঠে ১৭৮টি নেশার বড়ি বাঁধা ছিল।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.