ঢাকা, বৃহস্পতিবার,২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭

প্রশাসন

জাতীয় ঈদগাহ প্রাঙ্গণে নিশ্চিদ্র নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়েছে

বাসস

৩১ আগস্ট ২০১৭,বৃহস্পতিবার, ১৫:৫৩


প্রিন্ট
মো. আছাদুজ্জামান মিয়া

মো. আছাদুজ্জামান মিয়া

ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন, জাতীয় ঈদগাহ প্রাঙ্গণে নিশ্চিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হয়েছে।
তিনি আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে জাতীয় ঈদগাহের নিরাপত্তা ব্যবস্থা পরিদর্শন শেষে উপস্থিত সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।
এসময় পুলিশের কাউন্টার টেররিজম এন্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের (সিটিটিসিইউ) প্রধান ও অতিরিক্ত কমিশনার মো. মনিরুল ইসলাম ও রমনা বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) মো. মারুফ হোসেন সরদারসহ পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
ডিএমপি কমিশনার বলেন, ডগ স্কোয়াড ও বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট দিয়ে ঈদগাহ সুইপিং করা হবে। স্ট্যান্ডবাই থাকবে সোয়াট টিম। অন্যান্য সংস্থার সাথে সমন্বয় করে ডিএমপি’র পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থা।
তিনি বলেন, ঈদগাহের চতুর্দিক ও ভেতরে সতর্ক অবস্থায় থাকবে ইউনিফর্ম ও সাদা পোষাকে পুলিশ। জাতীয় ঈদগাহ ও তার আশপাশের নিরাপত্তায় বসানো হয়েছে সিসি ক্যামেরা। পুলিশ নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে সার্বক্ষণিক সিসি ক্যামেরা দিয়ে জাতীয় ঈদগাহ ও তার চারপাশে মনিটরিং করা হবে।
আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, মুসল্লিদের নিরাপত্তার স্বার্থে জাতীয় ঈদগাহে ঈদের জামাতে জায়নামাজ ছাড়া অন্য কোনো কিছু সঙ্গে নিয়ে প্রবেশ করতে দেয়া হবে না । তবে বৃষ্টি হলে ছাতা সঙ্গে আনা যাবে। কোনো ধরনের ব্যাগ, ভ্যানিটি ব্যাগ, দিয়াশলাই ও দাহ্য পদার্থ সঙ্গে আনা যাবে না। আমরা আশা করছি মুসল্লিরা তল্লাশী কাজে পুলিশকে সহায়তা করবেন।
ডিএমপি কমিশনার বলেন, প্রত্যেক মুসল্লিকে মেটাল ডিটেক্টর ও আর্চওয়ে দিয়ে ঈদগাহে প্রবেশ করতে হবে। আগত সকল মুসল্লি তিন ধাপে আর্চওয়ে ও শারীরিক তল্লাশীর মধ্যদিয়ে ঈদগাহে প্রবেশ করবেন। ঈদের জামাত শেষে সকলে একসাথে তাড়াহুড়া করে বের না হয়ে সম্ভাব্য দুর্ঘটনা এড়ানোর জন্য ধীরে সু-শৃঙ্খলভাবে ঈদগাহ থেকে বের হবেন।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫