ঢাকা, শনিবার,২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭

চট্টলা সংবাদ

সাদার্ন ইউনিভার্সিটির সেমিনারে তথ্য

বর্ধিষ্ণু নগরায়ন ও দূষণে এশিয়ায় বিশুদ্ধ পানির অভাব বাড়ছে

চট্টগ্রাম ব্যুরো

৩১ আগস্ট ২০১৭,বৃহস্পতিবার, ০০:০০


প্রিন্ট

সাদার্ন ইউনিভার্সিটিতে পুরকৌশল বিভাগের উদ্যোগে ‘লো কস্ট ট্রিটমেন্ট সিস্টেম ফর গ্রে ওয়াটার’বিষয়ক সেমিনার সম্প্রতি বিভাগের সম্মেলন কে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সাদার্ন ইউনিভার্সিটির প্রোভিসি ও পুরকৌশল বিভাগের প্রধান প্রফেসর ইঞ্জিনিয়ার এম আলী আশরাফের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন পুরকৌশল বিভাগের প্রভাষক রোকসানা হোসেন।
প্রবন্ধে প্রভাষক রোকসানা উল্লেখ করেন, বর্ধিষ্ণু নগরায়ন ও দূষণের কারণে এশিয়া মহাদেশ বিশুদ্ধ পানির অভাবে ভুগছে। বাংলাদেশের প্রেেিত ভূপৃষ্ঠের পানি একেবারেই অনুপযুক্ত। অপর দিকে অতিরিক্ত চাহিদার কারণে ভূগর্ভের পানির স্তর ক্রমেই নিচের দিকে নামছে। প্রায় ৪০ শতাংশ বিশুদ্ধ পানি পান করা ছাড়াও অন্যান্য কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে। এই েেত্র গ্রে ওয়াটার সেচকাজ, মৎস্যচাষ, বাগান করা, টয়লেট ফাশিংসহ বিভিন্ন কাজে ব্যবহার করা যাবে, যদি তা পরিশোধন করা যায়। একটি সিঙ্গেল পাস সেন্ড ফিল্টার যাতে সেডিমেনটেশন অ্যান্ড কোরিনেশন চেম্বার যা ডিজাইন করা হয়েছে আঞ্চলিকভাবে প্রাপ্ত উপাদানগুলো দিয়ে, যাতে গ্রে ওয়াটার পরিশোধন করে যাবতীয় কাজ করা যায়। এখানে স্যাম্পল সংরণ, সংগ্রহ ও পরীার জন্য মানসম্মত পদ্ধতি অনুসরণ করা হয়েছে।
গবেষণা থেকে প্রাপ্ত ফলাফলে বলা যায়, গ্রে ওয়াটার পান করা ব্যতীত অন্যান্য সব ব্যবহারিক কাজে পরিশোধনের পর ব্যবহার করা যাবে।
প্রফেসর ইঞ্জিনিয়ার এম আলী আশরাফ বলেন, সেমিনারে উপস্থাপিত বিষয়টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমরা যদি গ্রে ওয়াটার পরিশোধন করে ব্যবহার করতে পারি তাহলে বিশুদ্ধ পানীয় জলের ওপর চাপ কমবে। ফলে অতিরিক্ত পানির চাহিদা পূরণের জন্য ভূগর্ভের পানির স্তর নিচে নামার যে ঝুঁকি তা অনেকাংশে কমে যাবে।

 

 

 

অন্যান্য সংবাদ

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫