ঢাকা, শনিবার,২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭

চট্টলা সংবাদ

আরাকানে গণহত্যার প্রতিবাদে চট্টগ্রামে ছাত্রশিবিরের বিােভ সমাবেশ

চট্টগ্রাম ব্যুরো

৩১ আগস্ট ২০১৭,বৃহস্পতিবার, ০০:০০


প্রিন্ট

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির চট্টগ্রাম মহানগরী উত্তর সভাপতি তৌহিদুল ইসলাম বলেছেন, ‘জীব হত্যা মহাপাপ’ নীতির ওপর প্রতিষ্ঠিত বৌদ্ধরা মিয়ানমারে উগ্রবাদী জনতা ও রাষ্ট্রীয় বাহিনীকে যৌথভাবে লেলিয়ে দিয়ে আরাকানে নিরীহ রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর যে বর্বর গণহত্যা চালিয়ে যাচ্ছে তার নিন্দা জানানোর মতো ভাষা কোনো সভ্য মানুষের জানা নেই। ন্যূনতম মানবিক বোধ থাকলে কেউ এভাবে নিরীহ, নিরস্ত্র জনগণকে বিনা কারণে হত্যা করতে পারে না। ইতঃপূর্বে সে দেশের রাষ্ট্রীয় বাহিনী রোহিঙ্গাদের হত্যার কথা স্বীকার করলেও প্রকৃতপে নিহতের সংখ্যা অজানা। নিহতদের মধ্যে বেশির ভাগই নারী ও শিশু। রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী কোনো অন্যায় করে থাকলে তাদের প্রচলিত আইন অনুযায়ী বিচার না করে এহেন জঘন্য হত্যাকাণ্ড শান্তিকামী মানুষের মনে শঙ্কা সৃষ্টি করেছে। এটি সম্পূর্ণ পরিকল্পিত গণহত্যা এবং মানবাধিকারের প্রতি চরম অবজ্ঞা ছাড়া আর কিছুই হতে পারে না।
গত ২৯ আগস্ট ইসলামী ছাত্রশিবির চট্টগ্রাম মহানগরী উত্তরের উদ্যোগে মিয়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর রাষ্ট্রীয়ভাবে চালানো গণহত্যার প্রতিবাদে আয়োজিত বিােভ মিছিলোত্তর সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। নগর উত্তর শিবির সেক্রেটারি এস কে সিকদারের পরিচালনায় এতে আরো বক্তব্য রাখেনÑ নগর উত্তর শিবির নেতা আ স ম রায়হান, কামাল হোসাইন প্রমুখ।
প্রতিবাদ সমাবেশে শিবির নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে মিয়ানমারে মুসলিমদের ওপর চালানো গণহত্যা বন্ধ করে তাদের নাগরিক অধিকার ফিরিয়ে দিতে সে দেশের সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। একই সাথে রোহিঙ্গা মুসলমানদের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করতে জাতিসঙ্ঘ, ওআইসি, আরব লীগসহ আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থাগুলোকে কার্যকর পদপে নেয়ারও জোর দাবি জানান।

 

 

অন্যান্য সংবাদ

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫