জয়ন্তী সম্পত কুমার
জয়ন্তী সম্পত কুমার

শাড়ি পরেই ৪২ কিলোমিটার দৌড়!

নয়া দিগন্ত অনলাইন

দৌঁড় শেষ করার পর তখন অসম্ভব ঘামছেন তিনি। টানা ৪২ কিলোমিটার দৌঁড় তো আর চাট্টিখানি কথা নয়! ম্যারাথন বলে কথা। ঘটনা সেটা নয়। সারা বছর বিশ্বের নানা শহরে কয়েকশো ম্যারাথন হয়। এবং কয়েক হাজার প্রতিযোগী তা শেষও করেন। কিন্তু শাড়ি পরে, পায়ে স্যান্ডেল গলিয়ে ক’জন ম্যারাথন শেষ করেন? ভারতের জয়ন্তী করলেন। রোববার হায়দরাবাদ ফুল ম্যারাথন ৫ ঘণ্টার সামান্য কম সময়ে শেষ করলেন ৪৪ বছরের জয়ন্তী সম্পত কুমার। স্টেডিয়ামে ফেরার পর তার সঙ্গে তখন সেল্ফি তোলার ধুম লেগে গিয়েছে।

হঠাত্‍ শাড়ি পরে দৌঁড়নোর কারণ জানালেন জয়ন্তী। তিনি বলেন, ‘আমি হ্যান্ডলুমে তৈরি নানা জিনিসকে প্রোমোট করতে এবং নারীদের উৎসাহ দিতে শাড়ি পরে দৌঁড়নোর কথা ভাবি। প্রথমে তো খালি পায়ে দৌঁড়াবো ভেবেছিলাম। কিন্তু রাস্তার নুড়ি পাথরে পায়ে খুব লাগছিল। তাই স্যান্ডেল পরে নিয়েছিলাম। আমি একজন সাইক্লিস্ট। মাঝে মধ্যেই একটানা সাইক্লিং করতে বেরিয়ে পড়ি। তখন দেখেছি, আমাদের চারদিকে প্লাস্টিক দূষণ ভয়ানক হারে বেড়ে গেছে। আমি এই মঞ্চের মাধ্যমে সবাইকে অনুরোধ করছি, প্লাস্টিক ব্যবহার বন্ধ করুন। আমার মনে হয় প্লাস্টিকের শাড়ি পরে দৌঁড়লে মানুষ এ কথা বুঝবেন।’ কথা বলে নিজেই হেসে উঠলেন।

ম্যারাথন তো শেষ করেছেনই, তার সঙ্গে আরও একটি রেকর্ডও সম্ভবত গড়ে ফেলেছেন জয়ন্তী। শাড়ি পরে সবচেয়ে দ্রুত ম্যারাথন শেষ করেছেন তিনি। এ নিয়ে গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ড কর্তৃপক্ষে কাছে আবেদনও করেছেন। এখন ম্যারাথন শেষ করার শংসাপত্রের অপেক্ষায় রয়েছেন। এ ছাড়া দৌঁড়ানোর সময় তোলা ছবি এবং ভিডিও ফটোগ্রাফিক এভিডেন্স হিসেবে দাখিল করবেন তিনি। জয়ন্তী আশাবাদী যে তার এই প্রচেষ্টা গিনেস বুকের পাতায়ও স্থান পাবে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.