ঢাকা, শুক্রবার,২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭

রকমারি

খেতে পারেন দেশবন্ধুর পরোটা-ভাজি

মারিয়া নূর

২১ আগস্ট ২০১৭,সোমবার, ১৮:১৯


প্রিন্ট
দেশবন্ধুর পরোটা-ভাজি

দেশবন্ধুর পরোটা-ভাজি

নামে সুইটমিট কিন্ত এর মিষ্টির খ্যাতির চেয়ে ভাজি-পরোটার সুনাম রয়েছে রাজধানী জুড়ে। ঢাকা শহরের প্রবীণ যারা, তাদের মুখে মুখে দেশবন্ধু সুইটমিটের কথা নিয়মিতই শোনা যায়। অনেক পুরনো দোকান। রান্নার সুনাম এখনও অটুট।

এখানে সারা দিনই পরোটা-ভাজি বিক্রি হয়। সঙ্গে বিক্রি হয় সুজির হালুয়া ও বিভিন্ন প্রকারের মিষ্টি। স্পঞ্জ মিষ্টির তুলনা নেই, দাম ৩০ টাকা। মিষ্টি বাদ দিলে ৫০ টাকায় এখানে ভরপেট খেয়ে আসতে পারবেন। দেশবন্ধুর অবস্থান ইত্তেফাক মোড়ে। দেশবন্ধু সুইটমিট তাদের ব্যবসা শুরু করে ১৯৫৮ সালে। দেশবন্ধু সুইটমিটের আরেকটি শাখা রাজধানী মার্কেটের পাশে।

খাঁটি ময়দার খামির দিয়ে বানানো হয় পরোটা। ভাজা হয় সয়াবিনে। দেশবন্ধুর বর্তমান মালিক শ্যামল গোপ। ৫০ বছর আগে তাঁর বাবা শচীমোহন গোপ ঢাকায় এসে মিষ্টির ব্যবসা শুরু করেন। সঙ্গে তৈরি হতে থাকে পরোটা-ভাজি। দিন দিন মিষ্টির গুণ ছাপিয়ে সবার মন কেড়ে নেয় পরোটা-ভাজি। রেস্তোরাঁটি প্রথমে ছিল ব্রাদার্স ক্লাব কার্যালয়ের ঠিক উল্টোদিকে।

এরপর আসে টিকাটুলিতে, ইত্তেফাক-ইনকিলাব ভবনের বিপরীতে। ঘুরে আসতে পারেন দিনের যেকোনো সময়। পরোটা-ভাজি পাওয়া যায় সবসময়। সঙ্গে বাড়তি পাওনা হিসেবে থাকছে মিষ্টি আর দই। ধারণা করা হয়, দেশবন্ধু সুইটমিটের মালিক শচী মোহন গোপ দেশবন্ধু চিত্তরঞ্জন দাশকে ভালোবেসেই দোকানটির নাম রাখেন।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫