অভিনেত্রী নুসরাত ইমরোজ তিশা
অভিনেত্রী নুসরাত ইমরোজ তিশা

তিশার আক্ষেপ...

আলমগীর কবির

যাত্রা শুরুর স্মৃতি সবার মনেই গুরুত্বপূর্ণ জায়গা দখল করে রাখে। অভিনেত্রী নুসরাত ইমরোজ তিশার শোবিজ যাত্রাও এর ব্যাতিক্রম নয়। মনের অ্যালবামে বাঁধিয়ে রাখা সেই সময় নিয়ে আক্ষেপ করেছেন তিনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের স্ট্যাটাসে ঈদ উপলক্ষ্যে বিটিভির অনুষ্ঠানে অংশ নেয়ার কথা উল্লেখ করে তিশা লিখেছেন, ‘বিটিভির নতুন কুঁড়ি ছিল শিল্পী তৈরির কারখানা। আমি নিজেও নতুন কুঁড়ির আবিষ্কার। অনেক বছর পর ঈদের বিশেষ অনুষ্ঠানে অংশ নিতে বিটিভিতে গিয়ে আবিষ্কার করলাম সময় কত দ্রুত যায়। জীবন সুন্দর কিন্তু খুবই গতিময়। আরেকটু ধীরে গেলেও পারতো!’

এই স্ট্যাটাস সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করা হলে তিশা বলেন, ‘কাজ যেভাবেই করি না কেন সময় কিন্তু দৌঁড়ায় পাগলা ঘোড়ার মতো। নতুন কুড়িতে অংশগ্রহণের সময় মায়ের সাথে রিক্সায় করে আসতাম। অনেকের সাথে পরিচয় হয়েছিল তখন। অল্প বয়সী সবাই মিলে প্রতিযোগীতার ফলাফল নিয়ে কত হৈ হুল্লোর করেছি। আমার কাছে মনে হয় এই কয়েকদিন আগের কথা। কিন্ত মাঝখানে কত বছর পেরিয়ে গেল।’

এদিকে দেশের সাম্প্রতিক বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন এই অভিনেত্রী। এ প্রসঙ্গে ফেসবুকে দেয়া একটি স্ট্যাটাসে তিনি লিখেছেন, ‘বন্যা পরিস্থিতি ভয়াবহ দিকে যাচ্ছে, এটা আমরা সবাই দেখতে পাচ্ছি। এই মুহূর্তে দরকার সবাই মিলে পরিস্থিতি মোকাবিলা করা। ত্রাণ, স্বেচ্ছাসেবা যে যেটা দিয়ে পারি একসাথে কাজ করি সবাই চলেন। আমাদের টিম ত্রাণ নিয়ে কাজ করছে এমন সংগঠনের সাথে সমন্বয় করে কাজ করছে। আসুন প্যানিক না করে, কাজ করি। আর প্রার্থনা করি, উজানে যেন বৃষ্টি কমে।’

ছোট পর্দার জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী মাঝেমধ্যে বড় পর্দায়ও অভিনয় করেন। সেই ধারাবাহিকতায় আগামী নভেম্বরে মুক্তি পাবে তার ‘ডুব’ নামের একটি চলচ্চিত্র। জনপ্রিয় লেখক হুমায়ূন আহমেদের জীবনী নিয়ে বানানো ছবিটি নিয়ে এরই মধ্যে ব্যপক আলোচনা-সমালোচনার হয়েছে।

বিষয়টি নিয়ে তিশা বলেন, ‘আমি একজন অভিনেত্রী। ছবিটিতে আমার অভিনয়ের জায়গাটুকু যথাযথভাবে ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করেছি। এখন এ নিয়ে কী বিতর্ক হয়েছে তা আমি বলতে চাই না। সবাইকে বলবো মুক্তি পেলে সবাই প্রেক্ষাগৃহে গিয়ে ছবিটি দেখবেন। ভালো হলে প্রশংসা করবেন। খারাপ লাগলে প্রাণখুলে সমালোচনা করবেন। তবে না দেখে এ ব্যাপারে কেউ যেন কিছু না বলেন সেই অনুরোধ সবার প্রতি।’

এদিকে আজ রোববার বেলা ৩টায় বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের প্রধান মিলনায়তনে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে। এতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কর্মময় জীবনের ওপর আলোচনা করবেন তিশা। শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয় অনুষ্ঠানটি আয়োজন করেছে।

এই অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখবেন কথা সাহিত্যিক আনিসুল হক ও সাংবাদিক নাঈমুল ইসলাম।

এমন একটি অনুষ্ঠানে বক্তা হিসেবে আমন্ত্রণ পেয়ে অভিভূত তিশা। বললেন, ‘রাষ্ট্রীয় আয়োজনে এমন একটি অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কথা বলার সুযোগ পেয়ে আমি গর্বিত।’

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.