ঢাকা, মঙ্গলবার,২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭

ক্রিকেট

এই সিরিজের ওপরই নির্ভর করছে শ্রীলঙ্কার বিশ্বকাপ যাত্রা

নয়া দিগন্ত অনলাইন

১৯ আগস্ট ২০১৭,শনিবার, ১০:০৯ | আপডেট: ১৯ আগস্ট ২০১৭,শনিবার, ১০:২১


প্রিন্ট
সাদা বলের ফরম্যাটে শ্রীলঙ্কা সবসময়ই শক্তিশালী- এমনটাই মনে করেন থারাঙ্গা

সাদা বলের ফরম্যাটে শ্রীলঙ্কা সবসময়ই শক্তিশালী- এমনটাই মনে করেন থারাঙ্গা

তিন টেস্ট সিরিজে হোয়াইটওয়াশের পর সফরকারী ভারতের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ঘুড়ে দাঁড়াতে চায় শ্রীলঙ্কা। কেবল ঘুরে দাঁড়ানো নয়, সরাসরি আগামী বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা অর্জনে চোখ স্বাগতিক শ্রীলঙ্কার নতুন অধিনায়ক উপুল থারাঙ্গার। তিনি বলেন, ‘ওয়ানডেতে আমরা ভালো ক্রিকেট খেলি এবং আশা করছি ভারতকে হারাতে পারবো। এ সিরিজের ফলের ওপরই আমাদের আগামী বিশ্বকাপে সরাসরি অংশগ্রহণ নির্ভর করছে। সুতরাং বিষয়টি মাথায় রেখে দলের সবার কাছ থেকে নিজেদের সেরাটা পাব বলে আশা করছি।’

আগামীকাল বিকেল ৩টায় ডাম্বুলায় শুরু হবে সিরিজের প্রথম ওয়ানডে।

ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ সাত দল ও স্বাগতিক ইংল্যান্ড আগামী বিশ্বকাপে সরাসরি খেলার সুযোগ পাবে। বর্তমানে র‌্যাঙ্কিংয়ের অস্টম স্থানে থাকলেও চলতি গত জুনে দেশের মাটিতে জিম্বাবুয়ের কাছে পাঁচ ম্যাচের সিরিজ ৩-২ ব্যবধানে হারে শ্রীলঙ্কা। এরপরই দলের অধিনায়কত্বের পদ থেকে সরে দাঁড়ান অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ। তাই তিন ফরম্যাটের জন্য নতুন অধিনায়ক নির্বাচন করে শ্রীলঙ্কা। সেই সুবাদে ভারতের বিপক্ষে নতুন অধিনায়কের অধীনে সিরিজ শুরু করে লঙ্কানরা। দিনেশ চান্ডিমাল ছিলেন টেস্টের ও থারাঙ্গা হলেন ওয়ানডে দলের অধিনায়ক।

চান্ডিমালের নেতৃত্বে টেস্ট সিরিজে ভারতের কাছে হোয়াইটওয়াশ হয় শ্রীলঙ্কা। অসুস্থতার কারণে সিরিজের প্রথম টেস্টে খেলতে পারেননি চান্ডিমাল। ফলে ওই ম্যাচে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন বাঁ-হাতি স্পিনার রঙ্গনা হেরাথ।

তবে থারাঙ্গার অধীনেই ভারতের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ শুরু করতে যাচ্ছে শ্রীলঙ্কা। কঠিন এক সময়ে দলের ভার নিলেন তিনি। অবশ্য দেশের জার্সি গায়ে অধিনায়কত্ব করার অভিজ্ঞতা রয়েছে থারাঙ্গার। তবে সেটি সুখকর নয়। তার নেতৃত্বে ১৪ ম্যাচে ৪টিতে জয় ও ৭টিতে হারে শ্রীলঙ্কা। অন্য ৩টি ম্যাচের ফলাফল হয়নি।

এমনবস্থায় ভক্তদের ধৈর্য্য ধরার আহ্বান জানিয়েছেন থারাঙ্গা। কঠিন সময়টা টপকে যাওয়ার কথা বললেন থারাঙ্গা, ‘সাদা বলের ফরম্যাটে শ্রীলঙ্কা সবসময়ই শক্তিশালী এবং আমি আত্মবিশ্বাসী, আমরা শক্তিশালী দলে পরিণত হবো এবং ভারতকে হারাবো। আমাদের প্রতিভা-দক্ষতা রয়েছে। আমরা কঠিন পরিশ্রম করেছি, আমাদের শুধুমাত্র সাহস প্রয়োজন এবং ভক্তদের সমর্থন দরকার।’

ওয়ানডে সিরিজের জন্য অলরাউন্ডার থিসারা পেরেরা ও মিলিন্দা সিরিবর্ধনেকে দলে নিয়েছে শ্রীলঙ্কা। ভারতের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে অংশ নেয়া স্পিনার মালিন্দা পুষ্পকুমারা ও পেসার বিশ্ব ফার্নান্দোর ওয়ানডে ডেব্যুর অপেক্ষায় আছেন।

ভারতের বিপক্ষে সর্বশেষ ওয়ানডে সিরিজে স্মৃতি মোটেও ভালো নয় র‌্যাঙ্কিংয়ে আট নম্বরের দল শ্রীলঙ্কার। ২০১৪ সালে ভারতের মাটিতে পাঁচ ম্যাচের সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হয়েছিল তারা। এমনকি নিজেদের মাটিতে ২০১২ সালে সর্বশেষ পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজেও ৪-১ ব্যবধানে হারে লঙ্কানরা। এছাড়া সম্প্রতি জিম্বাবুয়ের কাছে সিরিজ হারের সাথে আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির প্রথম রাউন্ড থেকে বিদায় নেয় শ্রীলঙ্কা।

২০১৫ সালে শ্রীলঙ্কার মাটিতে দ্বিতীয়বারের মত টেস্ট সিরিজ জয়ের পর থেকে বিশ্ব ক্রিকেটে অন্যতম পরাশক্তির দল ভারত। এরপরই তারা টেস্ট র‌্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষে উঠে। চলতি সফরে টেস্ট সিরিজে হোয়াইটওয়াশ করার ধারাবাহিকতা ওয়ানডে ফরম্যাটেও অব্যাহত রাখতে চায় ভারত।

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির প্রথম রাউন্ড থেকেই শ্রীলঙ্কার বিদায়ে অবাক ভারতের নতুন সহ-অধিনায়ক রোহিত শর্মা। তিনি বলেন, ‘এই সিরিজের জন্য তাদের স্কোয়াড নিয়ে আমার কোন ধারণা নেই। কিন্তু ভালো দল হওয়ার পরও চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে তারা কি করলো। তারা আমাদের সহজেই হারিয়েছিল। ওয়ানডেতে শ্রীলঙ্কা খুবই ভালো একটি দল। তবে গত কয়েক বছর আমরা যা করেছি এবারও সেটাই করতে হবে।’

দলের মূল চার তারকা খেলোয়াড়কে ছাড়াই ওয়ানডে সিরিজ শুরু করবে ভারত। রবিচন্দ্রন অশ্বিন, রবীন্দ্র জাদেজা, উমেশ যাদব ও মোহাম্মদ সামিকে বিশ্রামে রেখেছে ভারত। তরুণ স্পিনার অক্ষর প্যাটেল ও যুবেন্দার চাহাল রয়েছে স্কোয়াডে। তাই তাদেরকে দিয়ে স্পিন চালিয়ে নেয়ার চিন্তা-ভাবনা টিম ম্যানেজমেন্টের।

ওয়ানডে সিরিজ ছাড়াও একটি টি-২০ ম্যাচ খেলবে ভারত ও শ্রীলঙ্কা।

শ্রীলঙ্কা দল : উপুল থারাঙ্গা (অধিনায়ক), এ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ, নিরোশান ডিকবেলা, দানুস্কা গুনাথিলাকা, কুসল মেন্ডিজ, চামারা কাপুগেদারা, মিলিন্দা সিরিবর্দনা, মালিন্দা পুষ্পকুমারা, আকিলা দনঞ্জয়া, লক্ষন সান্দাকান, থিসারা পেরেরা, বানিদু হাসারাঙ্গা, লাসিথ মালিঙ্গা, দুশমন্ত চামিরা, বিশ^ ফার্নান্দো।

ভারত দল : বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), রোহিত শর্মা (সহ-অধিনায়ক), শিখর ধাওয়ান, লোকেশ রাহুল, মনীষ পান্ডে, আজিঙ্কা রাহানে, কেদার যাদব, মহেন্দ্র সিং ধোনি (উইকেটরক্ষক), হার্ডিক পান্ডে, অক্ষর প্যাটেল, কুলদীপ যাদব, যুবেন্দ্রা চাহাল, জসপ্রিত বুমরাহ, ভুবনেশ্বর কুমার ও শারদুল ঠাকুর।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫