বঙ্গবন্ধু হত্যার ষড়যন্ত্রকারীদের চিহ্নিত করতে কমিশন গঠিত হবে : আইনমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যাকাণ্ডের ষড়যন্ত্রকারীদের চিহ্নিত করতে একটি কমিশন গঠন করা হবে বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।
গতকাল রাজধানীর নিবন্ধন পরিদফতরে আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রণালয় আয়োজিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদতবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এ কথা জানান।
আইনমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু হত্যার পর বাংলাদেশকে পাকিস্তান বানানোর চেষ্টা করা হয়েছিল। যখন তারা দেখলো এটি সম্ভব না তখন তারা বাংলাদেশকে একটি অকার্যকর রাষ্ট্র বানানোর ষড়যন্ত্র শুরু করে দেয়। আর এই ষড়যন্ত্র খালেদা জিয়ার আমলেই হয়েছে। জিয়াউর রহমান বঙ্গবন্ধুর হত্যাকাণ্ডে জড়িত ছিলেন।
তিনি বলেন, আগামী প্রজন্ম যাতে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানতে পারে সেজন্য এবং বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের ষড়যন্ত্রে জড়িতদের চিহ্নিত করতে একটি কমিশন গঠন করা হবে।
আনিসুল হক বলেন, স্বাধীনতা-পরবর্তী সময় এবং বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের পর অনেকে ইতিহাস থেকে বঙ্গবন্ধুর নাম মুছে ফেলতে চেয়েছিল। জিয়া ও এরশাদসহ অনেক চেষ্টা করেছেন; কিন্তু কেউ সফল হয়নি। বঙ্গবন্ধুর নাম চিরদিনই থাকবে। তার নাম এই দেশ থেকে কেউ মুছে ফেলতে পারবে না।
মুক্তিযুদ্ধের একক নেতৃত্ব প্রসঙ্গে আইনমন্ত্রী বলেন, বাঙালি জাতি ও এই দেশ যত দিন থাকবে তত দিন বঙ্গবন্ধুর নাম কেউ মুছে ফেলতে পারবে না।
মন্ত্রী বলেন, ২১ বছর বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার হয়নি। এই সময়ে একটি এজাহার করা হয়নি তখনো। বরং ইনডেমনিটি অর্ডিন্যান্স দিয়ে বিচারের পথ রুদ্ধ করে রাখা হয়েছিল। তিনি বলেন, অনেক বিচারপতি বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার করতে গিয়ে বলেছিলেন তারা বিব্রত। কিন্তু বঙ্গবন্ধু হত্যার ২১ বছর হয়ে যাওয়ার পরও তো তখন কি তারা বিব্রত ছিলেন না?
মন্ত্রী বলেন, আমাদের মধ্যে অনেক মীরজাফর রয়েছে। বঙ্গবন্ধুকে কিন্তু লাহোরে মারা সম্ভব হয়নি তবে ঢাকাতে মারা হয়েছে। আমাদের মধ্যে এখনো সেই অপশক্তি ও ষড়যন্ত্রকারীরা রয়ে গেছে।
আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব আবু সালেহ শেখ মো: জহিরুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেনÑ আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের মধ্যে সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ শহীদুল হক, নাসরিন বেগম, মো: ইসরাইল হোসেন ও নিবন্ধন পরিদফতরের মহাপরিদর্শক খান মো: আবদুল মান্নান, মো: মোস্তাফিজুর রহমান, বিকাশ কুমার সাহা, উম্মে কুলসুম, কাজী আরিফুজ্জামান, আরিফুল কায়সার, মোহাম্মদ শহীদুল হক ও ড. মো: রেজাউল হক।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.