সরকারি কর্মচারীরা ঈদের আগে বেতন পেলেও কর্মকর্তারা বাদ পড়ছেন

সৈয়দ সামসুজ্জামান নীপু

পবিত্র ঈদুল আজহার আগে সরকারের নন-গেজেটেড কর্মচারীরা চলতি আগস্ট মাসের বেতন পেলেও কর্মকর্তারা ঈদের আগে বেতন তুলতে পারছেন না। প্রায় তিন লাখ সরকারি কর্মকর্তার আগস্ট মাসের বেতন তুলতে ১০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে বলে জানা গেছে।
অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, গতকাল অর্থ মন্ত্রণালয়ের ট্রেজারি ও ঋণ ব্যবস্থাপনা অনুবিভাগ থেকে একটি নোটিশ জারি করা হয়েছে। এতে উল্লেখ করা হয়েছে, সরকারি বর্ষপঞ্জি-২০১৭ অনুযায়ী ২ সেপ্টেম্বর তারিখে (চাঁদ দেখা সাপেক্ষে) পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপিত হবে। সরকার এই মর্মে সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে, সরকারি, আধা-সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানে কর্মরত সব নন-গেজেটেড কর্মচারী ও সামরিক বাহিনীর নন-কমিশন্ড অফিসার/কর্মচারীদের আগস্ট মাসের বেতনভাতা চলতি ২৯ আগস্ট প্রদান করা হবে। একই সাথে দেশের সব অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মচারীর আগস্ট মাসের পেনশনের অর্থ একই তারিখে (২৯ আগস্ট) প্রদান করা হবে।
সংশ্লিষ্ট এক সূত্র জানায়, এই নোটিশ অনুযায়ী সরকারি নন-গেজেটেড ও নন-কমিশন্ড অফিসারেরা ঈদের আগে বেতন পেলেও সরকারি কর্মকর্তারা এই বেতন পাচ্ছেন না। কারণ সংশ্লিষ্ট আইনে (বাংলাদেশ ট্রেজারি রুলসের এসআর ১১৩(২) বিধান মতে কোনো উৎসব যদি কোনো মাসের ১৫ তারিখের পরে অনুষ্ঠিত হয় তবে সে ক্ষেত্রে সরকারি কর্মচারীরা ওই মাসের বেতন একই মাসে পাবেন। কিন্তু এ বিধানে সরকারি কর্মকর্তাদের কথা উল্লেখ নেই। ফলে তারা বরাবরের মতো চলতি মাসের বেতন একই মাসের ৩০ তারিখের পর পাবেন। এ ক্ষেত্রে তার কোনো ব্যত্যয় হয়নি। কিন্তু ঈদের লম্বা ছুটির কারণে চলতি আগস্ট মাসের বেতন পেতে তাদের ১০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হতে পারে।
এ বিষয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা বলেন, ইএফটির (ইলেকট্রনিক্স ফান্ড ট্রান্সফার) মাধ্যমে সরকারি কর্মকর্তারা বেতন গ্রহণ করে থাকেন। এই জন্য বেশ কয়েক দিন সময়ের প্রয়োজন হয়। ঈদ পালনের জন্য চলতি মাসের ৩০ তারিখের পর সরকারি অফিস ছুটি হয়ে যাচ্ছে। সরকারি অফিস সেপ্টেম্বর মাসের ৬-৭ তারিখের আগে খুলবে না। ফলে ইএফটির মাধ্যমে আগস্ট মাসের বেতন তুলতে আমাদের আগামী মাসের ১০ তারিখ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হতে পারে। এই তালিকায় সরকারি ১০ গ্রেড থেকে ১ গ্রেডের সব কর্মকর্তা রয়েছেন। তিনি বলেন, বর্তমানে প্রথম শ্রেণীর গেজেটেড কর্মকর্তা (ক্যাডার) রয়েছেন প্রায় ৫৬ হাজার। একই সাথে প্রথম শ্রেণীর কর্মকর্তা রয়েছে আরো আড়াই লাখের মতো। ফলে এই তিন লাখ সরকারি কর্মকর্তা ঈদের আগে আগস্ট মাসের বেতন তুলতে পারবেন না। তবে সংশ্লিষ্ট রুলসের একটু পরিবর্তন হলে এই সুযোগ সবাই পেতেন।
জানা গেছে, এখন পর্যন্ত সরকারি সব কর্মচারীকে ইএফটির আওতায় নিয়ে আসা সম্ভব হয় নাই। তারা সংশ্লিষ্ট অফিসের ‘ডিডিও’ (ড্রইং অ্যান্ড ডিসবার্সমেন্ট অফিসার বা আয়ন ও ব্যয়ন কর্মকর্তা) মাধ্যমে বেতন পেয়ে থাকেন। এই কর্মকর্তা মাসের ২৫-২৬ তারিখে সংশ্লিষ্ট অফিসে কর্মরত কর্মচারীদের বেতন দেয়ার প্রক্রিয়া শুরু করেন। তিনিই সকল কর্মচারী বেতন শিট এজি অফিসে জমা দেন। ফলে সংশ্লিষ্ট মাসের ২৯-৩০ তারিখের মধ্যে কর্মচারীরা সংশ্লিষ্ট মাসের বেতন পাওয়ার সুযোগ থাকে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.