ঢাকা, সোমবার,১৮ ডিসেম্বর ২০১৭

নারী

আসুন শারমিনের পাশে দাঁড়াই

কাজী সুলতানুল আরেফিন

১৩ আগস্ট ২০১৭,রবিবার, ১৮:৩৩


প্রিন্ট
শারমিন আক্তার

শারমিন আক্তার

শারমিন আক্তার। নবম শ্রেণীর মেধাবী ছাত্রী। ভবিষ্যতের বড় হওয়ার স্বপ্ন তার চোখেমুখে। কিন্তু মেধাবী সেই শারমিন এখন অসুস্থ। স্কুল ছেড়ে তাকে আশ্রয় নিতে হয়েছে বিছানায়। ক্যান্সার বাসা বেঁধেছে তার শরীরে। বাঁচতে চায় শারমিন।

হাজিডাঙ্গা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর মেধাবী ছাত্রী শারমিন আক্তার। সে ডুমুরিয়া উপজেলার ১১ নম্বর ইউনিয়নের গোলনা গ্রামের বাসিন্দা। তার বাবা আবদুুল রাজ্জাক একজন হতদরিদ্র। পেশায় বাস গাড়ির হেলপার। নবম শ্রেণীর ছাত্রী শারমিন আক্তার দীর্ঘ দিন ধরে ক্যান্সারে আক্রান্ত। তার চিকিৎসার জন্য সবার সহযোগিতা একান্ত কাম্য।

খুলনা মেডিক্যাল, ঢাকার পিজি হাসপাতালসহ বাংলাদেশের সব সম্ভাবনাময় চিকিৎসাকেন্দ্রে তাকে নেয়া হয়েছে, কিন্তু ফল শূন্য। এখন উন্নত চিকিৎসার জন্য শিগগিরই তাকে দেশের বাইরে নেয়া প্রয়োজন। কিন্তু তার দরিদ্র বাবা টাকার অভাবে চিকিৎসাও করাতে পারছেন না। শারমিন বাড়ির বিছানায় শুয়ে মৃত্যুর প্রহর গুনছে। ক্রমেই তার শারীরিক অসুস্থতা আরো তীব্র আকার ধারণ করছে। বর্তমানে তার আক্রান্ত স্থান পায়ে পচন ধরেছে। আমাদের সামান্য সাহায্যের মূল্য হয়তো আজ তাদের কাছে অসীম।

তার চিকিৎসায় আর্থিক সাহায্যের জন্য সবার সহযোগিতা কামনা করেছে ভুক্তভোগীর পরিবার। সমাজের বিত্তবানসহ সব স্তরের মানুষ আজ যদি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন, তাহলে হয়তো বাঁচানো যাবে সুন্দর একটি প্রাণ। সামাজিক মাধ্যমেও শারমিনের সাহায্যের জন্য ব্যাপক সাড়া পড়েছে। অনেক তরুণ দলবদ্ধ হয়ে তার সাহায্যের জন্য কাজ করে যাচ্ছে। সবার দয়ায় হয়তো আবারো জ্বলে উঠতে পারে শারমিনের জীবন প্রদীপ।

সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা- 
বিকাশ নম্বর : ০১৭৩৭-৯৪৬৮৬৮,
অ্যাকাউন্ট নম্বর : ০০১২১০০০০০৯২৭ , সাউথ ইস্ট ব্যাংক

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫