ঢাকা, শুক্রবার,১৮ আগস্ট ২০১৭

বরিশাল

শিক্ষক-প্রেমিকের প্রতারণা, অতঃপর আত্মহত্যা

ঝালকাঠি সংবাদদাতা

১৩ আগস্ট ২০১৭,রবিবার, ১৭:০১


প্রিন্ট

শিক্ষকের প্রেমে প্রতারিত হয়ে ঝালকাঠির রাজাপুরের নবম শ্রেণির ছাত্রী বর্ণিতা হাওলাদার আত্মহত্যার চেষ্টার দুই মাস পর মারা গেছে।

দীর্ঘদিন মৃত্যুর সঙ্গে যুদ্ধ করতে করতে শনিবার বিকেলে দক্ষিণ তারাবুনিয়া গ্রামের বাড়িতে বসে তার মৃত্যু হয়। সে ওই গ্রামের বিপুল হাওলাদারের মেয়ে। বর্ণিতা স্থানীয় পশ্চিম চারাখালী হাফেজ উদ্দিন মেমোরিয়াল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণিতে পড়তো।

বর্ণিতার ভাই বিপ্লব হাওলাদার বলেন, বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বর্ণিতার স্কুলের শিক্ষক ইন্দ্রজিৎ কুমার দাস বর্ণিতার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন। একপর্যায়ে বর্ণিতার সঙ্গে তিনি যোগাযোগ বিচ্ছিন্নের চেষ্টা করেন।

এ বিষয়টি মেনে নিতে না পেরে গত ৮ জুন গলায় ফাঁস নিয়ে নিজ বাড়িতে আত্মহত্যার চেষ্টা চালায় বর্ণিতা। পরিবারের লোকজন তাৎক্ষণিক তাকে উদ্ধার করে প্রথমে রাজাপুর, পরে বরিশাল শেবাচিম ও সর্বশেষ ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা করান।

অবস্থার উন্নতি না হলে চিকিৎসকরা ৩ আগস্ট তাকে বাড়িতে পাঠিয়ে দেন। চিরকুটে মৃত্যুর কারণ হিসেবে স্কুলের শিক্ষক ইন্দ্রজিৎ কুমার দাসকেই দায়ী করেছেন বর্ণিতা। চিরকুটে পরিবারের প্রতি তার অনুরোধ ছিল, ইন্দ্রকে যেন শেষ করে দেয়া হয়।

রাজাপুর থানার ওসি শেখ মুনীর উল গীয়াস জানান, এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর পরিবারের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে। অভিযুক্তকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। লাশের ময়নাতদন্তের জন্য রোববার সকালে ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫