ঢাকা, সোমবার,২৩ অক্টোবর ২০১৭

বিবিধ

আপনার পার্সওয়ার্ড কখনও হ্যাক হয়েছে? এক্ষুণি জেনে নিন

নয়া দিগন্ত অনলাইন

১৩ আগস্ট ২০১৭,রবিবার, ১৪:৪৮ | আপডেট: ১৩ আগস্ট ২০১৭,রবিবার, ১৪:৫৮


প্রিন্ট
সম্প্রতি র‌্যানসামওয়্যার ভাইরাস অ্যাটাকের পর থেকে পাসওয়র্ড হ্যাক করা আরো সহজ হয়ে গেছে

সম্প্রতি র‌্যানসামওয়্যার ভাইরাস অ্যাটাকের পর থেকে পাসওয়র্ড হ্যাক করা আরো সহজ হয়ে গেছে

ইন্টারনেটের যুগে কোনো কাজই এর সাহায্য ছাড়া সম্ভব নয়। তার ওপর স্মার্টফোনের দাপটে দিনে ১৮ ঘণ্টা অনলাইন থাকার প্রবণতা বাড়ছে। কিন্তু ভেবে দেখেছেন, আপনার অ্যাকাউন্ট কি কখনও হ্যাক হয়েছে?

জানার ইচ্ছে হয়নি, কেউ পাসওয়র্ড ক্র্যাক করে দিনের পর দিন আপনার ব্যক্তিগত তথ্য দেখছে বা চুরি করছে কিনা?

যদি ইচ্ছে হয়ে থাকে তবে তা খুব একটা ভুল নয়। কারণ পাসওয়ার্ড আপনার অ্যাকাউন্ট খোলার চাবি। যার সাহায্যে আপনার যাবতীয় ব্যক্তিগত তথ্য এমনকী সম্পত্তিও চুরি হয়ে যেতে পারে!

প্রায় মাস খানেক আগে একটি সমীক্ষায় প্রকাশিত হয়, চলতি বছরের প্রথম ছয় মাসে প্রতি ১০ মিনিটে একটি করে সাইবার ক্রাইম সংঘটিত হয়েছে ভারতে।

কম্পিউটার এমার্জেন্সি রেসপন্স টিম জানিয়েছে, সম্প্রতি হয়ে যাওয়া র‌্যানসামওয়্যার ভাইরাস অ্যাটাকের পর থেকে পাসওয়র্ড হ্যাক করা আরো সহজ হয়ে গেছে।

বিশ্বের দিকে তাকালে হ্যাকড হওয়া পাসওয়র্ডের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩০৬ মিলিয়ন, যা রীতিমতো আতঙ্কিত করছে বিশেষজ্ঞদের। প্রতি দিন হ্যাকারদের দাপট বাড়ছে। তাদের আটকানোর জন্য নানা রকম ব্যবস্থা নিলেও নিত্যনতুন পন্থায় হ্যাক হচ্ছে ওয়েবসাইট এবং সাধারণ মানুষের অ্যাকাউন্ট।

সম্প্রতি ‘Have I Been Pwned’ নামে একটি ওয়েবসাইট তৈরি হয়েছে, যাতে চাইলে যে কেউ নিজেদের পাসওয়র্ড কখনও হ্যাক হয়েছে কিনা তা পরীক্ষা করে দেখতে পারেন। অস্ট্রেলিয়া নিবাসী সাইবার সিক্যুরিটি বিশেষজ্ঞ ট্রয় হান্ট এই টুলটি তৈরি করেছেন।

লিঙ্কে ক্লিক করে যে পেজটি খুলবে তাতে পাসওয়র্ড টাইপ করার একটি নির্দিষ্ট জায়গা রয়েছে। তাতে নিজের পাসওয়র্ড টাইপ করে পাশের PAWNED? বাটনে ক্লিক করলেই আপনি দেখতে পাবেন যাবতীয় তথ্য। যদি হ্যাক হয়ে থাকে, তবে দেরি না করে অবিলম্বে পাসওয়র্ড পাল্টে ফেলার পরামর্শ দিচ্ছে ট্রয়।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫