ঢাকা, বৃহস্পতিবার,১৭ আগস্ট ২০১৭

ক্রিকেট

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচ, দুশ্চিন্তায় বিসিবি

নয়া দিগন্ত অনলাইন

১৩ আগস্ট ২০১৭,রবিবার, ১০:৫২


প্রিন্ট
বৃষ্টির পানি জমে আছে ফতুল্লা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে

বৃষ্টির পানি জমে আছে ফতুল্লা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে

হাতে সময় খুব একটা বেশি নেই। অনেক অনেক টেনশন দেয়া অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল ঢাকায় আসবে ১৮ আগস্ট। তার তিন দিন আগে অর্থাৎ ১৫ আগস্ট ঢাকায় আসবে অস্ট্রেলিয়ার নিরাপত্তা পর্যবেক্ষক দল। তাতেই কপালে চিন্তার ভাঁজ বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবির)। আর এই চিন্তার কারণ টানা বৃষ্টি।

নির্দিষ্ট ভেনু ফতুল্লা ক্রিকেট স্টেডিয়াম বৃষ্টির ও সুয়ারেজের পানিতে বিশাল দীঘিতে রূপ নিয়েছে। বৃষ্টির পানিতে ভেসে আসা আশপাশের ময়লা আবর্জনাও জমেছে স্টেডিয়ামের চার পাশে। যথাসময়ে এটি খেলার উপযোগী হবে না বলেই যত টেনশন। ভেনু নির্ধারণ করতে গলদঘর্ম সংশ্লিষ্টরা। এত কম সময়ে কিভাবে প্রস্তুতি ম্যাচের বিকল্প ভেনু ঠিক করা যায় তা নিয়েই চিন্তিত বিসিবি।

বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ শুরুর আগে ২২ ও ২৩ আগস্ট ফতুল্লা স্টেডিয়ামে হওয়ার কথা দুই দিনের প্রস্তুতি ম্যাচ। এ পরিস্থিতিতে ফতুল্লায় অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের প্রস্তুতি ম্যাচ আয়োজন বিষয়ে বিসিবির গ্রাউন্ডস কমিটির চেয়ারম্যান হানিফ ভূঁইয়া কয়েক দিন আগে বলেছিলেন, ফতুল্লায় ম্যাচটি আয়োজনের প্রস্তুতি নিচ্ছেন তারা। টানা বৃষ্টি না হলে ফতুল্লায় ম্যাচটি আয়োজন করা সম্ভব।

বিসিবি কর্মকর্তাদের সব আশা ধুলায় মিশিয়ে দিয়ে গত শুক্রবার থেকেই মওসুমি বায়ুর প্রভাবে শুরু হয়েছে টানা বৃষ্টি। আবহাওয়ার রিপোর্ট অনুযায়ী আরো কয়েক দিন বৃষ্টি হওয়ার কথা। ফতুল্লায় অস্ট্রেলিয়ার প্রস্তুতি ম্যাচটি আয়োজন করা সম্ভব নয়। সেটি সুস্পষ্ট।

বিসিবি প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজনও বলেছেন, ফতুল্লায় শেষ পর্যন্ত ম্যাচটি আয়োজন করা না গেলেও বিকল্প ভেনু হিসেবে বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে (বিকেএসপি) আমলে রেখেছি।

গতকাল বিসিবি পরিচালক এবং মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুসও জানালেন, ‘যদি ফতুল্লায় খেলা আয়োজন করা সম্ভব না হয়, তাহলে অপশন হচ্ছে বিকেএসপি ও সিলেট স্টেডিয়াম।’ তবে এখানেও রয়েছে একটু অনিশ্চয়তা। অস্ট্রেলিয়া দল নাকি সেখানে খেলতে আগ্রহ প্রকাশ করেনি।

বিকেএসপি কিংবা সিলেট স্টেডিয়ামে প্রস্তুতি ম্যাচ আয়োজন আদৌ করা যাবে কি না, সেটা নিয়ে নিজেই সন্দেহ প্রকাশ করেন বিসিবির মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান। দূরত্বটাই মূল সমস্যা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘যদিও বিকেএসপি কিছুটা দূরে হবে। আমরা চেষ্টা করবো তাদেরকে সহজে নিয়ে যাওয়ার জন্য। আর সিলেটের কথাও আমরা অস্ট্রেলিয়া নিরাপত্তা পর্যবেক্ষক দলকে জানিয়ে রাখব। এখানে সমস্যা হলো সিলেটে গিয়ে খেলে এসে আবার দুই দিন পর ম্যাচ খেলতে নামতে হবে। বিষয়টা অস্ট্রেলিয়া না-ও মানতে পারে।’

তবে মূল ভেনুতে প্র্যাকটিস ম্যাচ যে হবে না সেটি স্পষ্টই জানিয়ে দিলেন জালাল ইউনুস, ‘মিরপুর শেরেবাংলার মূল ভেনুতে খেলা হবে না। এর অন্যতম কারণ হচ্ছে, ২২ আগস্টের মধ্যে শেরেবাংলার মাঠও পুরোপুরি প্রস্তুত হবে না।’

বিকল্প ভেনু বিষয়ে বলেন, ‘অস্ট্রেলিয়ার নিরাপত্তা পর্যবেক্ষক দলের সামনে কাছাকাছি আরো দু-একটি ভেনু উপস্থাপন করা হবে। প্রয়োজনে সেই ভেনু দেখানো হবে। আমরা অবশ্যই খেলার ব্যবস্থা করব। এই অপশনগুলোও পছন্দ না করলে অন্য অপশন আমাদের হাতে আছে।’

অস্ট্রেলিয়া দলের প্রস্তুতি ম্যাচের মূল সমস্যা দূরত্ব। সে ক্ষেত্রে ঢাকার ভেতর এখন খেলার উপযোগী মাঠ রয়েছে মোহাম্মদপুর বেড়িবাঁধ এলাকায় অবস্থিত ইউল্যাব বিশ্ববিদ্যালয়ের খেলার মাঠ। গত কয়েক দিন আগে বিসিবি পরিচালক শেখ সোহেল এখানে ম্যাচটি আয়োজনের কথা জানিয়েছেন। তবে এ মাঠে এর আগে কোনো প্রথম শ্রেণীর ম্যাচ হয়নি বিধায় অস্ট্রেলিয়া খেলতে না চাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

ফতুল্লা স্টেডিয়াম ম্যাচের অনুপযোগী হয়ে যাওয়ায় অস্ট্রেলিয়া দল যদি বিকেএসপি ও ইউল্যাবে সত্যিকার অর্থেই খেলতে না চায়। তাহলে কি প্রস্তুতি ম্যাচ বাতিল হয়ে যাবে?

আশ্বস্ত করলেন জালাল ইউনুস, ‘এমনটি তো হতেই পারে না। শিডিউল অনুযায়ীই ম্যাচ হবে। নিশ্চয়ই আমরা অস্ট্রেলিয়া পর্যবেক্ষক দলকে বুঝিয়ে শুনিয়ে একটা ভেনুতে খেলতে রাজি করাব। তারা অবশ্যই হেল্পফুল আচরণই করবে।’

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫