ঢাকা, শনিবার,১৬ ডিসেম্বর ২০১৭

সংগঠন

সেমিনারে বক্তারা

যাতায়াতে গণপরিবহন কেন্দ্রিক সমন্বিত যোগাযোগ ব্যবস্থা গড়তে হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক

১২ আগস্ট ২০১৭,শনিবার, ১৮:৩৮


প্রিন্ট

নগরে অবকাঠামো যাতায়াত ব্যবস্থার উন্নয়নে মাপকাঠি হতে পারে না বরং সহজে, স্বল্প খরচে, নিরাপদ যাতায়াতকে উন্নয়নে মাপকাঠি হিসেবে দেখতে হবে। এজন্য যাতায়াতে গণপরিবহন কেন্দ্রিক সমন্বিত যোগাযোগ ব্যবস্থা গড়তে হবে।

পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলন পবা আয়োজিত ‘যাতায়াতে হাজার কোটি টাকার প্রকল্প, বাড়ছে মানুষের দুর্ভোগ; সরকারের ভূমিকা ও করণীয়’ শীর্ষক সেমিনারে নগরবিদসহ পরিবেশবাদিরা অংশ নেন।

পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলনের (পবা) চেয়ারম্যান আবু নাসের খানের সভাপতিত্বে ও মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনায় গোলটেবিল বৈঠকে বক্তব্য রাখেন পবার সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী আবদুস সোবহান, যুগ্মসাধারণ সম্পাদক ডা. লেলিন চৌধুরী, সম্পাদক সৈয়দ মাহাবুবুল আলম তাহিন, পবার সহসম্পাদক স্থপতি শাহীন আজিজ, এম এ ওয়াহেদ, নিশাত মাহমুদ, পবার সদস্য রাজিয়া সামাদ, ক্যামেলিয়া চৌধুরী, সাগিরুজ্জামান শাকীক, অমূল্য কুমার বৈদ্য, বানিপার সভাপতি আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।

আবু নাসের খান বলেন, যানজটকে প্রধান্য দিয়ে যাতায়াত ব্যবস্থাকে গুরুত্ব দেয়া হয়নি। যাতায়াত ব্যবস্থার উন্নয়নে প্রথমে সমন্বিত যোগাযোগ নীতিমালা অনুসারে যাতায়াত পরিকল্পনা করতে হবে। ঢাকায় অধিকাংশ মানুষ দুই কিলোমিটারের মধ্যে চলাচল করে। তাই প্রথমে পথচারীদের যাতায়াত ব্যবস্থাকে প্রধান্য দিতে হবে। পরে সাইকেল চলাচলের জন্য উপযুক্ত পরিবেশ তৈরি করতে হবে। নগর কর্তৃপক্ষের অধীনে পৃথক লেনে পাবলিক বাস চলাচলের সুযোগ তৈরি করতে হবে। রেল ও নৌপথের সাথে নগরের পাবলিক বাসের সমন্বয় রাখতে হবে। নগরে বাস চলাচলের ক্ষেত্রে মাফিয়া বা অনৈতিক ব্যক্তিদের দৌরত্বের কারণে পাবলিক বাস ব্যবসায় নিজেদের সম্পৃক্ত করতে অনেক মানুষই আগ্রহী হন না।

প্রকৌশলী মো. আবদুস সোবহান বলেন, বাংলাদেশে যাতায়াত ব্যবস্থা মূলত সড়ককেন্দ্রিক। এর পেছনে রয়েছে দেশীয় ও আন্তর্জাতিক একটি চক্র। মহানগরী ঢাকায় যানজটের অন্যতম প্রধান কারণ ব্যক্তিগত কারের সংখ্যা ব্যাপক হারে বৃদ্ধি। এছাড়াও রয়েছে রাস্তা ও ফুটপাতে গাড়ি পার্কিং, গণপরিবহণের স্টপেজের নির্ধারিত স্থান না থাকা, ট্রাফিক ব্যবস্থাপনার দুর্বলতা, সিটি করপোরেশনের আবর্জনা ও কনটেইনার দ্বারা রাস্তা প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করা, সমন্বিত যানবাহনের অভাব ইত্যাদি।

তিনি বলেন, সুষ্ঠু যাতায়াত ব্যবস্থার জন্য জনগণ, চালক, পথচারী, যানবহন ব্যবহারকারীদের সচেতনতা বৃদ্ধি করা, রেলকেন্দ্রিক সম্বনিত পরিকল্পনা গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করা, সড়কের অব্যবস্থাপনাসমূহ নিরসন করা, নৌ-বন্দর, রেল স্টেশন, বাস টার্মিনাল ও বিমান বন্দরের মধ্যে সহজে যাতায়াতের ব্যবস্থা করা। ঢাকার চারিদিকে সার্কুলার ট্রেন চালু করা, ঢাকার আশেপাশের শহরগুলোর সাথে রেল যোগাযোগ স্থাপন ও উন্নয়ন করা প্রয়োজন।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫