ঢাকা, বুধবার,১৩ ডিসেম্বর ২০১৭

খুলনা

পাটুরিয়ায় অপেক্ষায় থাকা ট্রাকের দীর্ঘশ্বাস

শহিদুল ইসলাম, শিবালয় (মানিকগঞ্জ)

১২ আগস্ট ২০১৭,শনিবার, ১৭:১৬


প্রিন্ট
শনিবার দুপুরে পাটুরিয়া ঘাটে ফেরি পারের অপেক্ষায় যানবাহনের দীর্ঘ সারি

শনিবার দুপুরে পাটুরিয়া ঘাটে ফেরি পারের অপেক্ষায় যানবাহনের দীর্ঘ সারি

স্পর্শকাতর পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া রুটে ফেরি পারের অপেক্ষায় আটকে পড়া যানবাহনের মধ্যে বিশেষ করে পণ্যবোঝাই ট্রাকের সংখ্যা যেন ক্রমেই বৃদ্ধি পাচ্ছে। আটকে পড়া পণ্যবাহী ট্রাক-লড়ি কাংক্ষিত সময়ে ফেরি পার হয়ে গন্তব্যে পৌছাতে না পারায় পচনশীল পণ্য নষ্ট, সংকট ও মূল্য বৃদ্ধি পাচ্ছে। পাশাপাশি যানবাহন ট্রিপ কম হওয়ায় মালিকদের মোটা টাকা লোকসান গুণতে হচ্ছে। ব্যবসায়ীরাও লোকসান গুণছেন।

গত কয়েক দিনের অবিরাম বৃষ্টি, ফেরি স্বল্পতা, পন্টুন অকেজো ও পদ্মায় তীব্র স্রোতের ফলে সৃষ্ট অচলাবস্থায় উভয় ঘাটে সহস্রাধিক পণ্যবাহী ট্রাক-লড়ি পারের অপেক্ষায় আটকে রয়েছে। অন্যান্য যানবাহন মিলিয়ে উভয় প্রান্তে শনিবার দুপুরে প্রায় ৫ কিলোমিটার দীর্ঘ যানজট সৃষ্টি হয়। এতে যাত্রীসাধারণ পরিবহন মালিক-শ্রমিক ও ঘাট সংশ্লিষ্টরা দুর্ভোগ পোহায়।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, পাটুরিয়া ৩ নং ঘাটে রোল-অন, রোল-অফ পন্টুনের পকেট অকেজো থাকায় ফেরিতে যানবাহন উঠা-নামায় মারাত্মক বিঘ্ন ঘটছে। বহরের ছোট-বড় ১৬টির মধ্যে দুটি রো-রো ফেরি বিকল হয়ে পড়েছে। অব্যাহত বৃষ্টিতে গত কয়েক দিনে পদ্মায় পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় তীব্র স্রোতে ঠেলে ফেরি চলাচল বিলম্বিত হচ্ছে। এছাড়া, ঘুরপথে ফেরি চলাচল করায় ট্রিপ টাইম কমে যাওয়ায় কাঙ্ক্ষিত যানবাহন পারাপার সম্ভব হচ্ছে না।

ফেরি সেক্টরের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, অন্যান্য দিনের চাইতে সপ্তাহের বৃহস্পতি, শুক্র ও শনিবার এ রুটে যানবাহন চাপ বৃদ্ধি পায়। তদুপরি, পদ্মায় সৃষ্ট ঢেউ ও স্রোতের বিপরীতে ফেরি পরিচালনা স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে অতিরিক্ত সময় ব্যয় হচ্ছে। বহরে অধিকাংশ ফেরি পুরনো হওয়ায় তাতে যান্ত্রিক ক্রুটি দেখা দিচ্ছে।
পাটুরিয়ায় অবস্থিত ‘মধুমতি’ নামে ভাসমান কারখানায় দ্রুত ফেরি মেরামত শেষে পুনরায় যানবাহন পারপারের জন্য প্রস্তুত রাখতে হচ্ছে। তবে, বড় ধরনের যান্ত্রিক ক্রুটি হলে পাটুরিয়া কারখানায় ফেরি মেরামত সম্ভব হয় না। এ জন্য নারায়নগঞ্জ ডক-ইয়ার্ডে পাঠিয়ে অথবা বিশেষজ্ঞ-মেরামতকারী এনে ফেরি সচল করতে হয়।

অপরদিকে, নদীতে পানি বৃদ্ধি, স্রোত ও বৃষ্টিতে ফেরি লোড-আনলোড দারুণ ব্যাহত হচ্ছে। পারের অপেক্ষায় থাকা বাস-কোচ, মাইক্রো-প্রাইভেটকারসহ অন্যান্য যানবাহন অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পারাপার করায় ট্রাক পারের সংখ্যা কম হচ্ছে। যার ফলে উভয় ঘাটে উল্ল্যেখযোগ্য সংখ্যক পণ্যবাহী ট্রাক ও ভারি যানবাহন পারের অপেক্ষায় আটকে রয়েছে।

শনিবার পাটুরিয়া ঘাট ঘুরে দেখা গেছ, গত কয়েকদিন আগে আসা ট্রাক সিরিয়ালে রাখা হলেও ফেরি পারের সুযোগ হচ্ছে না। ট্রাক টারমিনালে অপেক্ষামান ট্রাকের জায়গা না হওয়ায় ৭ কিলোমিটার দূরে উথলী মোড়ের পশ্চিমে আরিচা ঘাট রোডে ট্রাক সিরিয়ালে রাখা হচ্ছে। ঘাটে দায়িত্বরত ট্রাফিক-পুলিশ নানা কারণ দেখিয়ে ট্রাকগুলো এগুতে দিচ্ছে না।

পারের অপেক্ষায় আটকে থাকা যানবাহন শ্রমিকরা অভিযোগ করেন, আগে ফেরি পার হওয়া যাবে এমন কথা বলে এক শ্রেণীর ট্রাফিক-পুলিশ টিকিট কাটার নামে আটকে থাকা গাড়ি থেকে উৎকোচ আদায় করছে। তবে, দায়িত্বরত ট্রাফিক পুলিশ সদস্যরা এহেন অভিযোগ অস্বীকার করছেন।

ঘাট সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তারা জানান, পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া ঘাটে পারপারের জন্য আসা যানবাহন সিরিয়াল অনুযায়ী ও অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পারপারের বিধান রয়েছে। আটকে থাকা যানবাহন পারাপারে এ রুটের ফেরিগুলো নিরলস চলাচল করছে। যাত্রী হয়রানি ও চাঁদাবাজি রোধে প্রশাসনের সজাগ দৃষ্টি রয়েছে।

 

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫