ঢাকা, শনিবার,২১ অক্টোবর ২০১৭

স্বাস্থ্য

খাই খাই বাতিক রোগের ইঙ্গিত

নয়া দিগন্ত অনলাইন

০৩ আগস্ট ২০১৭,বৃহস্পতিবার, ১৩:১৭


প্রিন্ট

কেন আমরা খাই খাই করি বলুন তো? ভরপেট খাওয়ার কিছুক্ষণ পরই বিশেষ খাবার খেতে ইচ্ছে হয়? চোখের খিদে হিসেবে ব্যাপারটা হালকাভাবে নেন অনেকেই। তারপর আবার খেয়েও ফেলেন! কিন্তু জানেন কি খাবার নিয়ে এই লোভ আসলে রোগের ইঙ্গিত? আসলে শরীরে কিছুর অভাব দেখা দিলেই বিশেষ স্বাদ চায় জিভ।

মিষ্টি
শরীরে ভিটামিন বি-১২ বা প্রোটিনের ঘাটতি হলে মিষ্টি দেখলেই খাওয়ার ইচ্ছে বাড়ে। তবে প্রতিদিনের ডায়েটে টাটকা ফল, সবজি, দারচিনি রাখলে মিষ্টির খাই খাই ভাব কেটে যাবে।

চা-কফি
দেহে সালফারের ঘাটতি হলে চা-কফি বারবার খেতে ইচ্ছে করে। পেঁয়াজ, রসুন, বাঁধাকপি ডায়েটে রাখলে মুক্তি পাওয়া সম্ভব।

পনির
অপরিহার্য ফ্যাটি অ্যাসিডের ঘাটতি হলে পনির দেখলেই খেতে ইচ্ছে হয়। ডায়েটে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিডযুক্ত খাবার যেমন ফ্লাক্সসিড অয়েল, বাদাম তেল বা আখরোটের মতো খাবার রাখলে সমস্যা মিটবে।

পাস্তা-পেস্ট্রি
শরীরে প্রয়োজনীয় ট্রেস এলিমেন্ট ক্রোমিয়ামের ঘাটতি হলে পাস্তা বা পেস্ট্রির মতো খাবার দেখলেই খেতে ইচ্ছে হয়। আঙুর, আপেল, পেঁয়াজ, টমেটো, দারচিনি বেশি করে খেলে ঘাটতি সামাল দেয়া সম্ভব।

পাউরুটি বা টোস্ট
দেহে নাইট্রোজেনের ঘাটতির জন্য পাউরুটি বা টোস্ট খাওয়ার প্রতি ঝোঁক বাড়ে। ডায়েটে যত বেশি পরিমাণে সম্ভব প্রোটিন, সবুজ শাকসবজি, ফল, বাদাম রাখলে ঘাটতি মেটানো সম্ভব।

পপকর্ন
অতিরিক্ত স্ট্রেস বা মানসিক চাপ থাকলে অনেকে বেশি করে পপকর্ন খান। বেশি পরিমাণ ভিটামিন-সি ও ভিটামিন-বি যুক্ত খাবার খেলে এই সমস্যার সমাধান সম্ভব।

চকোলেট
দেহে ম্যাগনেসিয়ামের ঘাটতি থাকলে চকোলেট খাওয়া নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হয় না। শস্যদানা, কোকো পাউডার, বাদাম খেলে ম্যাগনেসিয়ামের ঘাটতি মেটানো সম্ভব।

নোনতা খাবার
দেহে ইলেকট্রোলাইটের ভারসাম্য নষ্ট হওয়া, ডিহাইড্রেশনের কারণে নোনতা খাবার বা লবণ খেতে ইচ্ছে হয়। ডায়েটে আদা, রসুন, গোলমরিচ, লেবু, ভিনিগার রাখলে সমস্যা মিটবে।

সূত্র : ইন্টারনেট

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫