ঢাকা, বুধবার,১৩ ডিসেম্বর ২০১৭

বিবিধ

এশিয়া কাপে একইগ্রুপে বাংলাদেশ-ভারত-পাকিস্তান

নয়া দিগন্ত অনলাইন

০২ আগস্ট ২০১৭,বুধবার, ১৩:১৭ | আপডেট: ০২ আগস্ট ২০১৭,বুধবার, ১৩:২২


প্রিন্ট
দীর্ঘ ৩২ বছর পর ঢাকায় আবারো বসতে যাচ্ছে এশিয়ান হকির দশম আসর

দীর্ঘ ৩২ বছর পর ঢাকায় আবারো বসতে যাচ্ছে এশিয়ান হকির দশম আসর

এশিয়া কাপ হকিতে কঠিন গ্রুপে পড়েছে বাংলাদেশ। আগামী অক্টোবর ঢাকায় অনুষ্ঠিতব্য আট জাতির টুর্নামেন্টে ‘এ’ গ্রুপে এশিয়ার দুই পরাশক্তি ভারত ও পাকিস্তানের সাথে খেলতে হবে বাংলাদেশকে। এই গ্রুপে চতুর্থ দলটি হলো জাপান।

‘বি’ গ্রুপে রয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া, মালয়েশিয়া, চীন ও ওমান।

এ তথ্য নিশ্চিত করেন বাহফে সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সাদেক।

একদিন এগিয়ে এলো এশিয়া কাপের সময়সূচি। অক্টোবরের ১২ তারিখে শুরু হওয়ার কথা থাকলেও এখন ১১ অক্টোবর পর্দা উঠবে এশিয়া কাপের।

এশিয়া কাপ এমনিতেই কঠিন বাংলাদেশের জন্য। আট দেশের মধ্যে স্বাগতিক বাংলাদেশের র‌্যাঙ্কিং তলানিতে। টার্গেট করার মতো ওমান ছাড়া কেউ নেই। তার ওপর আরো কঠিন করে দিলো এশিয়া কাপের ড্র।

জাতীয় হকি দলের প্রধান কোচ মাহবুব হারুন জানান, ‘আমরা তো এমনিতেই সবার নিচে। নিজ দেশে খেলা। সবাই কঠিন প্রতিপক্ষ। তারপরও চেষ্টা করতে হবে এখান থেকেই ভালো কিছু উপহার দেয়ার। তবে আমাদের গ্রুপে ওমান হলে কিছুটা ভালো হতো।’

১৯৮৫ সালে শেষবার বাংলাদেশ আয়োজক হয়েছিল এ টুর্নামেন্টের। ঢাকায় অনুষ্ঠিত এশিয়া কাপের ফাইনালে ভারতকে ৩-২ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল পাকিস্তান।

দীর্ঘ ৩২ বছর পর ঢাকায় আবারো বসতে যাচ্ছে এশিয়ান হকির দশম আসর। নবম আসরটি হয়েছে ২০১৩ সালে মালয়েশিয়ার ইপোতে।

১১ অক্টোবর উদ্বোধনী দিনে প্রথম ম্যাচে বেলা ৩টায় মোকাবেলা করবে ভারত ও জাপান। দ্বিতীয় ম্যাচেই বাংলাদেশকে মোকাবেলা করতে হবে শক্তিশালী পাকিস্তানকে।

১৩ অক্টোবর আর এক পরাশক্তি ভারতকে মোকাবেলা করবে জিমি চয়নরা।

১৫ অক্টোবর নিজেদের শেষ ম্যাচে অর্থাৎ জাপানকে মোকাবেলা করবে মাহবুব হারুনের শিষ্যরা।

এশিয়া কাপে বাংলাদেশের ম্যাচ শিডিউল -
তারিখ           প্রতিপক্ষ       সময়
১১ অক্টোবর   পাকিস্তান       ৫.৩০
১৩ অক্টোবর    ভারত         ৫.৩০
১৫ অক্টোবর    জাপান        ৩.০০

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫