ঢাকা, বুধবার,২৩ আগস্ট ২০১৭

মোবাইল

নতুন স্মার্টফোন

হ্যালিও এস১০

ফয়েজ হিমেল

২৮ জুলাই ২০১৭,শুক্রবার, ১৯:২৬


প্রিন্ট

ফটোগ্রাফির জন্য এসএলআর ক্যামেরার প্রয়োজন হলেও সেলফির জন্য স্মার্টফোনের বিকল্প নেই। গতকাল বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরনো বন্ধুদের সাথে রিইউনিয়নে দেখা হলো। সবার মনেই চিন্তা, এর পরে হয়তো অনেকের সাথে আর কখনো দেখা হবে না। আর এই সুযোগকে হাতছাড়া না করতে সবাই গ্রুপ সেলফি তোলা শুরু করল। আমার হাতে ছিল সেলফি স্পেশালিস্ট হ্যালিও এস১০ স্মার্টফোন। এই ডিভাইসটিতে ১৩ মেগাপিক্সেল রিয়ার ও ১৬ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা আছে। রিয়ার ক্যামেরায় দিনের আলোয় খুবই ভালো মানের ছবি তোলা যায়। এর ফ্রন্ট ক্যামেরায় ফ্ল্যাশের পাশাপাশি ‘সেলফি ফ্ল্যাশ ল্যাম্প’ ব্যবহার করা হয়েছে। রেগুলার ফ্ল্যাশের চাইতে ডিভাইসটির সেলফি ফ্ল্যাশ ল্যাম্প অনেক বেশি শক্তিশালী। কাজেই সেলফি ও গ্রুপফির জন্য হ্যালিও এস১০-এর ফ্রন্ট ক্যামেরা ভিন্ন অভিজ্ঞতা দেবে। হ্যালিও সিরিজের এ ডিভাইসে ৪০১০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার আওয়ারের লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারি আছে। ফলে একবার ফুল চার্জ দিয়ে অনায়াসে একদিন পার করা যাবে।

এক নজরে হ্যালিও এস১০

এডিসন গ্রুপ সম্প্রতি সেলফি স্পেশালিস্ট স্মার্টফোন হ্যালিও এস১০ উন্মোচন করেছে। এটি হ্যালিও সিরিজের প্রথম অ্যান্ড্রয়েড ৭.০ নুগাট অপারেটিং সিস্টেম-চালিত স্মার্টফোন। এর দাম ১৯ হাজার ৯৯০ টাকা

নকশা
ব্যাক প্যানেলে ধাতব কাঠামো এবং সাইড প্যানেলে প্লাস্টিক কাঠামো ব্যবহার করা হয়েছে। ডিভাইসটির ব্যাক প্যানেলে নতুনত্ব যোগ করেছে ছোট একটি ক্যামেরা বাম্প। ডিভাইসটির কাঠামো বেশ শক্তপোক্ত। এতে হাইব্রিড ডুয়াল সিম স্লট আছে।
ডিসপ্লে
হ্যালিও এস১০ স্মার্টফোনে ৫ দশমিক ৫ ইঞ্চি ফুল এইচডি আইপিএস ডিসপ্লে ব্যবহার করা হয়েছে। কালার হিউর অনুপস্থিতির কারণে এর ডিসপ্লেতে প্রদর্শিত কনটেন্ট বেশ উপভোগ্য। ডিসপ্লে সুরক্ষায় ব্যবহার করা হয়েছে করনিং গরিলা গ্লাস ৩। ডিভাইসটির ২.৫ডি গ্লাস ডিসপ্লেতে ভিউয়িং অ্যাঙ্গেল নিয়ে তেমন কোনো সমস্যা হবে না।
হার্ডওয়্যার
৪ গিগাবাইট র‌্যামের হ্যালিও এস১০ স্মার্টফোনে ১ দশমিক ৯৫ গিগাহার্টজের মিডিয়াটেক এমটি৬৭৫৫ প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে।
ক্যামেরা
ডিভাইসটিতে ১৩ মেগাপিক্সেল রিয়ার ও ১৬ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা আছে। রিয়ার ক্যামেরায় দিনের আলোয় ভালো মানের ছবি ধারণ করা সম্ভব। কিছু ক্ষেত্রে অতিরিক্ত স্যাচুরেটেড ইমেজ বিরক্তিকর মনে হতে পারে। ডিভাইসটির রিয়ার ক্যামেরা দিয়ে কম আলোতে ভালো ছবি ধারণ করা একটু কষ্টকর হবে। তবে ব্যবহারকারীরা এর ফ্রন্ট ক্যামেরা ব্যবহার করে মজা পাবেন। ডিভাইসটির ফ্রন্ট ক্যামেরায় ফ্ল্যাশের পাশাপাশি ‘সেলফি ফ্ল্যাশ ল্যাম্প’ ব্যবহার করা হয়েছে। রেগুলার ফ্ল্যাশের চেয়ে ডিভাইসটির সেলফি ফ্ল্যাশ ল্যাম্প অনেক বেশি শক্তিশালী। আর এ জন্যই সেলফি ও গ্রুপফির জন্য হ্যালিও এস১০-এর ফ্রন্ট ক্যামেরা ভিন্ন অভিজ্ঞতা দেবে।
স্টোরেজ
ডিভাইসটিতে অভ্যন্তরীণ ৩২ গিগাবাইট তথ্য সংরক্ষণের সুবিধা রয়েছে, যা মাইক্রো এসডি কার্ডের মাধ্যমে সর্বোচ্চ ২৫৬ গিগাবাইট পর্যন্ত বর্ধিত করা যাবে।
বিশেষ ফিচার
ডিভাইসটির টাচ অনলি ফিজিক্যাল হোম বাটনে ইম্বেডেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর রয়েছে, যা দ্রুত এবং নির্ভুল কাজ করে। ডিভাইসটির লাউডস্পিকার বেশ মানসম্পন্ন। এর প্রিমিয়াম মানের স্পিকারে নতুন একটি ইনবিল্ট সাউন্ড সিস্টেম আছে।
ইউজার ইন্টারফেস
হ্যালিও এস১০ স্মার্টফোনের ইউজার ইন্টারফেসে নতুন অনেক ফিচার যোগ করা হয়েছে। ট্রানজিশন ইফেক্টগুলোর মধ্যে এসেছে পরিবর্তন। মাল্টি-উইন্ডো ফিচারের পাশাপাশি হোম বাটনে সোয়াইপ করলে পাশে একটি এজ বার প্রদর্শিত হয়, যেখানে ধারাবাহিকভাবে ব্যবহৃত অ্যাপগুলো দেখা যায়। ডিভাইসটির সেটিং মেনুতেও পরিবর্তন এসেছে। রেগুলার সেটিং এবং এক্সট্রা টুইকস পৃথক বারে পাওয়া যাবে।
ব্যাটারি
হ্যালিও সিরিজের এ ডিভাইসে ৪০১০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার আওয়ারের লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারি আছে। একবার ফুল চার্জ দিয়ে দিনব্যাপী চালানো যাবে অনায়াসে। ডিভাইসটিতে দ্রুত চার্জিং প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে। ৩০ মিনিটে ডিভাইসটির ব্যাটারি ৫০ শতাংশ চার্জ হবে। ব্যাটারি ব্যাকআপ নিয়ে ব্যবহারকারীকে খুব একটা সমস্যায় পড়তে হবে না।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫