ঢাকা, বুধবার,২৩ আগস্ট ২০১৭

বিবিধ

গেম রিভিউ

অত্যাচারী শয়তান শাসকের বিরুদ্ধে লড়াই

আনোয়ারুল ইসলাম জামিল

২৮ জুলাই ২০১৭,শুক্রবার, ১৯:২১


প্রিন্ট

‘জাস্ট কজ : থ্রি গেম একটি অ্যাকশনধর্মী অ্যাডভেঞ্চার গেম। জাস্ট কজ সিরিজের গেমটি নির্মাণ করেছে অপর গেম নির্মাতা প্রতিষ্ঠান এভালাঞ্চি স্টুডিওস। গেমটি খেলা যাবে প্লে-স্টেশন ৪, এক্সবক্স ওয়ান এবং মাইক্রোসফট উইন্ডোজ চালিত পিসিসহ প্রায় সব ধরনের গেমিং ডিভাইসেই।

অপরূপ সৌন্দর্যে সাজানো নগরী মেডিসি। তাদের গড়ে তোলা সাজানো-গোছানো নগরীতে যেন কালো দৃষ্টি পড়ে। আবির্ভাব ঘটে এক দাম্ভিক এবং ক্ষমতা লোভী শাসকের। যেখানে বাস করে হাজারো পরিবার। জেনারেল ডি রিভালো নামের ওই শয়তান শাসক মেডিসি নগরীতে বাস করা জাতির ওপর একের পর এক অন্যায় এবং অত্যাচার চাপিয়ে দিতে থাকে। বছর পার হতেই ডি রিভালো গড়ে তোলে নিজস্ব সেনাবাহিনী। তবে তার বিপরীতে লড়াইয়ের সাহস কিংবা ক্ষমতা যেন কারোরই নেই। যাদের দিয়ে সাধারণ মানুষের ওপর সে চালাতে শুরু করে অমানবিক নির্যাতন। এ সময় রিকোর বাবা-মাকে নির্মমভাবে হত্যা করে শয়তান ওই শাসক। তবে ছোট্ট রিকো কোনো মতে শহর ছেড়ে পালিয়ে জীবন বাঁচাতে সক্ষম হয়। এরপর কেটে যায় অনেকটা বছর।

গেমটিতে একজন গেমারকে অবতীর্ণ হতে হবে গেমের প্রধান চরিত্র যোদ্ধা রিকোর বেশে। এ সময় গেমারকে লড়াই করতে হবে নিজ বাবা-মায়ের হত্যাকারী শত্রু শাসকের বিরুদ্ধে। ছোট্ট রিকো বড় হয়ে যোগ দেয় দ্য অ্যাজেন্সি নামের সামরিক বাহিনীতে। যুবক রিকো হয়ে ওঠেন একজন দক্ষ যোদ্ধা। এ জন্য গেমারকে দূর থেকে পর্যবেক্ষণ করতে হবে রিভালোর সব পদক্ষেপ এবং পরিকল্পনা।

পরিকল্পিত এবং ধীর আক্রমণের মধ্য দিয়ে একে একে ভেঙে দিতে হবে রিভালোর সব পরিকল্পনা। হত্যা করতে হবে সেনাদের। যুদ্ধে গেমারকে ব্যবহার করতে হবে পিস্তল, মেশিনগান, রাইফেল, হ্যান্ড গ্রেনেড, রকেট লঞ্চারের মতো আগ্নেয়াস্ত্র। গেমারকে লড়াই করতে হবে জল, স্থল এবং আকাশপথে।  

প্রয়োজনীয় হার্ডওয়্যার:
প্রসেসর : ইন্টেল কোর আই৫ ২৫০০কে ৩.৩ গিগাহার্জ বা ফেনম টু এক্স৬ ১০৭৫টি সংস্করণ, র‌্যাম: ৮ জিবি, গ্রাফিক্স কার্ড: এনভিডিয়া জি-ফোর্স জিটিএক্স ৬৭০ অথবা এএমডি র‌্যাডন এইচডি ৭৮৭০ সিরিজের ডাইরেক্ট এক্স-১১ এবং হার্ডডিস্ক স্পেস:  ৫৪ গিগাবাইট। 

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫