ঢাকা, শনিবার,২২ জুলাই ২০১৭

উপমহাদেশ

নওয়াজ শরিফের বিরুদ্ধে মামলা আবার শুরু শীর্ষ আদালতে

নয়া দিগন্ত অনলাইন

১৭ জুলাই ২০১৭,সোমবার, ১৫:২১


প্রিন্ট

পকিস্তানের সুপ্রিম কোর্টে দেশটির প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের বিরুদ্ধে দুর্নীতি মামলা আবার শুরু হয়েছে। শরিফের বিরুদ্ধে কয়েক কোটি টাকার দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে৷ মামলায় দোষী সাব্যস্ত হলে প্রধানমন্ত্রীর পদ হারাতে পারেন শরিফ৷ ‘হাইপ্রোফাইল’ মামলার জেরে পাক সুপ্রিম কোর্ট চত্বরে কড়া পুলিশি নিরাপত্তায় ঘিরে ফেলা হয়েছে৷ সব মিলিয়ে প্রায় ৭০০ পুলিশ কর্মী মোতায়েন রয়েছে আদালত চত্বরে৷
গত বছর ‘পানামা পেপার্স কেলেঙ্কারিতে’ নাম জড়ায় পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ এবং তার পরিবারের একাধিক সদস্যের৷ মোটা অঙ্কের কর ফাঁকি দেয়ার অভিযোগ ওঠে৷ জানা যায়, আইটি আফশোর কোম্পানি রয়েছে নওয়াজ কন্যা মরিয়াম ও ছেলে হাসান ও হুসেন নওয়াজের নামে৷ সেই কোম্পানির নাম করেই বহু টাকা নয়ছয় করা হয়েছিল বলে অভিযোগ রয়েছে৷ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই নওয়াজের বিরুদ্ধে সরব হয় বিরোধীরা৷বিশেষ করে সাবেক ক্রিকেটার এবং তেহরিক-ই-ইনসাফ পার্টির চেয়ারম্যান ইমরান খান এ ব্যাপারে বেশ সোচ্চার।
ইমরানের দাবির মুখেই মামলা গড়ায় সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্ত৷ যদিও মাস দু’য়েক আগে এই মামলার পরিপ্রেক্ষিতে এক রায়ে পাকিস্তান সুপ্রিম কোর্ট জানিয়ে দেয় যে প্রধানমন্ত্রীর পদ খোয়া যাবে এমন কোনো তথ্য নওয়াজ শরিফের বিরুদ্ধে ছিল না৷ তবে এই বিষয়ে একটি তদন্ত কমিটি তৈরি হয় আদালতের নির্দেশে৷

প্রায় দুই মাস ধরে তদন্তের পর গত ১০ জুলাই আদালতে রিপোর্ট জমা দেয়৷ ছয় সদস্যের ওই যৌথ তদন্তকারী দলের রিপোর্টের ভিত্তিতে এদিন নতুন করে শুনানি শুরু হয়েছে নওয়াজ শরিফ ও তার পরিবারের একাধিক সদস্যের বিরুদ্ধে৷
যৌথ তদন্তকারী দলের রিপোর্টের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যে আদালতের বাইরে সরব হয়েছে নওয়াজ কন্যা৷ তার কথায়, নিজের মতো করে রিপোর্ট তৈরি করা হয়েছে৷ দুর্নীতি না থাকা সত্ত্বেও জোর করে দুর্নীতিগ্রস্ত প্রমাণ করার চেষ্টা করা হচ্ছে৷ তবে সুপ্রিম কোর্টের প্রতি আস্থা আছে৷ সব দিক খতিয়ে দেখেই বিচারপতিরা রায় দেবেন বলেও জানান তিনি৷

 

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫