ঢাকা, বুধবার,২৩ আগস্ট ২০১৭

কম্পিউটার ও আইটি

বিল গেটসের ভবিষ্যদ্বাণী

১৪ জুলাই ২০১৭,শুক্রবার, ১৯:৩১


প্রিন্ট

মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটসের জীবন কেটেছে নানা ঘটনার মধ্য দিয়ে। হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে লেখাপড়া শেষ না করেই মাইক্রোসফট প্রতিষ্ঠা করা, বিশ্বের সেরা ধনী ব্যক্তির আসনে ওঠা এবং দানশীল হিসেবে খ্যাতিমান হয়েছেন তিনি। ১৯৯৯ সালে তিনি মনে করতেন আগামীর বিশ্বে ওয়েবসাইট ঘুরে স্বয়ংক্রিয় উপায়ে বিভিন্ন পণ্যের মূল্য তুলনা করে মানুষ বিভিন্ন শিল্পের সাশ্রয়ী পণ্য খুঁজে নিতে পারবেন। বর্তমানে গুগল বা অ্যামাজন থেকে খুব সহজেই বিভিন্ন পণ্যের দাম যাচাই করে পছন্দেরটি কেনা যাচ্ছে। তুলনামূলক মূল্য সম্পর্কে জানানোই এসব সাইটের মূল উদ্দেশ্য।
মানুষ সর্বদাই ছোট ডিভাইস বহন করবে। যেখানেই থাকুক এ ডিভাইস ব্যবহার করে সংস্পর্শে থাকতে এবং ইলেকট্রনিক উপায়ে ব্যবসা পরিচালনা করতে পারবে। সংবাদ, টিকিট বুক করা, উড়োজাহাজের তথ্য ও অর্থনৈতিক বিভিন্ন তথ্য জানতে পারবে একই ডিভাইসে। বর্তমানে স্মার্টফোন ও স্মার্টঘড়ি ব্যবহার করে এসব সুবিধার সব পাওয়া যাচ্ছে। মানুষ যে কোনো ধরনের বিল পরিশোধ বা লেনদেন, অর্থের যত্ন এবং স্বাস্থ্যসেবার জন্য ডাক্তারের সঙ্গে যোগাযোগ করবেন ইন্টারনেটের মাধ্যমে। বর্তমানে উবার যেভাবে যোগাযোগ খাতে পরিবর্তন এনেছে, প্রযুক্তি ঠিক সেভাবে স্বাস্থ্যসেবায় পরিবর্তন আনতে পারেনি। কিন্তু বিশ্বব্যাপী অসংখ্য সাইট গড়ে উঠেছে যেখান থেকে ডাক্তার খুঁজে নেয়া যাচ্ছে সহজে।
ব্যক্তিগত সহকারী উন্নয়ন করা হবে। এগুলো স্বয়ংক্রিয়ভাবে সংযোগ স্থাপন এবং মানুষের ডিভাইসের তথ্য সংগ্রহে সমর্থ হবে। বাসাবাড়ি থেকে অফিস সর্বত্রই ব্যক্তিগত সহকারী ব্যবহার হবে। ই-মেইল বা নোটিফিকেশন চেক করে প্রয়োজনীয় তথ্য জানাতে সক্ষম হবে। গুগল মোবাইল ডিভাইসের জন্য এরই মধ্যে স্মার্ট সহকারী উন্নয়ন করেছে- যা ডিভাইস ব্যবহারকারীকে বিভিন্ন বিষয়ে সহায়তা দিচ্ছে।
বন্ধু ও পরিবারের সঙ্গে সংযুক্ত থাকতে প্রাইভেট ওয়েবসাইট গড়ে উঠবে- যা ব্যবহার করে প্রিয়জনদের সঙ্গে আলোচনা ও বিভিন্ন পরিকল্পনা নির্ধারণ করতে পারবে মানুষ।
বর্তমানে ফেসবুকের পাশাপাশি স্ন্যাপচ্যাট, ইনস্টাগ্রাম, হোয়াটসঅ্যাপ ও ফেসবুক মেসেঞ্জারের মতো আরো অনেক যোগাযোগমাধ্যমে মানুষ একাত্ম হতে পারছে।
বাসাবাড়িতে সার্বক্ষণিক নজরদারির জন্য অনলাইন ভিডিও ফিডের প্রচলন হবে। ফলে বাসায় না থেকেও জানা যাবে কেউ এসেছিল কি না। আর এ জন্য গুগল বাসাবাড়িতে নজরদারির জন্য ড্রপক্যাম ক্যামেরা উন্মোচন করেছে। এটির সহায়তায় দূর থেকে জানা যাচ্ছে বাসার দরজায় কে দাঁড়িয়ে।
সফটওয়্যার স্বয়ংক্রিয়ভাবে উড়োজাহাজ ভ্রমণে ছাড়ের তথ্য, বিভিন্ন অফার এবং কখন কোথায় ভ্রমণ সুবিধাজনক হবে তা জানিয়ে দেবে। বর্তমানে এক্সপিডিয়া এবং কায়াক নামে দু’টি প্রতিষ্ঠান আন্তর্জাতিকভাবে এ ধরনের তথ্য সেবা দিচ্ছে।
বিলবোর্ডে নয়, বিজ্ঞাপন চলে আসবে হাতের ডিভাইসে। বর্তমানে গুগল ও ফেসবুক অনলাইন বিজ্ঞাপন খাতে একচ্ছত্র আধিপত্য বিস্তার করেছে।
মানুষ অনলাইনে চাকরি খুঁজবে। বর্তমানে অনলাইনে চাকরির খোঁজ এবং পেশাগত দক্ষতা বৃদ্ধিতে সহায়তার ক্ষেত্রে এগিয়ে রয়েছে লিঙ্কডইন। ফলে অনলাইনেই পছন্দ মতো চাকরি খুঁজে নিতে পারছেন।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫