ঢাকা, শুক্রবার,২০ অক্টোবর ২০১৭

আন্তর্জাতিক সংস্থা

শান্তিরক্ষা কার্যক্রমকে সাশ্রয়ী করার চেষ্টা করা হচ্ছে : জাতিসঙ্ঘ মহাসচিব

কূটনৈতিক প্রতিবেদক

২৯ মে ২০১৭,সোমবার, ২০:১৪


প্রিন্ট

শান্তিরক্ষী বাহিনীর কার্যক্রমকে সাশ্রয়ী করার জন্য কঠোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছে জাতিসঙ্ঘ। এজন্য সংস্কার, পুনর্গঠন ও খরচ কমানোসহ সব ধরনের উপায় খোঁজা হচ্ছে। একইসাথে শান্তিরক্ষা কার্যক্রমের মাধ্যমে টেকসই শান্তি প্রতিষ্ঠার পথও খোঁজা হচ্ছে।

আন্তর্জাতিক শান্তিরক্ষী দিবস উপলক্ষে আজ সোমবার দেয়া এক বিবৃতিতে জাতিসঙ্ঘ মহাসচিব এন্থনিও গুতেরেস এ কথা বলেন। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ক্ষমতায় আসার পর জাতিসঙ্ঘে দেয়া চাঁদার পরিমাণ কমিয়ে আনার ঘোষণা দিয়েছেন। এর প্রভাব মোকাবেলায় জাতিসঙ্ঘের সার্বিক কর্মকাণ্ডকে প্রস্তুত করা হচ্ছে। জাতিসঙ্ঘ শান্তিরক্ষী বাহিনীতে বাংলাদেশ অন্যতম বৃহৎ সৈন্য ও পুলিশ সরবরাহকারী দেশ।

মহাসচিব বলেন, শান্তিরক্ষা কার্যক্রমের যেসব অপারেশনের লক্ষ্য পূরণ হয়েছে তা বন্ধ করে দেয়া হবে। ক্রমবর্ধমান চ্যালেঞ্জিং পরিবেশে শান্তিরক্ষা মিশনগুলোর কার্যকারীতা বাড়াতে আমরা সংস্কারের নীতি অনুসরন করছি।

গুতেরেস বলেন, শান্তিরক্ষা কার্যক্রম কেবলমাত্র অস্ত্রবিরতি পর্যবেক্ষণ থেকে এখন বেসামরিক নাগরিককে সুরক্ষা, সাবেক যোদ্ধাদের নিরস্ত্রিকরণ, মানবাধিকার রক্ষা, আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা, সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচন অনুষ্ঠানে সহায়তা দেয়া, ভূমিমাইনের ঝুঁকি কমানোসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিস্তৃত।

তিনি বলেন, শান্তিপ্রক্রিয়া, রাজনীতি ও সরকারের সব শাখায় নারীর পূর্ণ প্রতিনিধিত্ব আমরা নিশ্চিত করার চেষ্টা করছি।

জাতিসঙ্ঘ মহাসচিব শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে ১৬টি মিশনে কর্মরত এক লাখ ১৩ হাজার নীল হেলমেটধারীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান।

বিশ্বব্যাপী শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে বিনিয়োগের ওপর গুরুত্বারোপ করে তিনি বলেন, শান্তিরক্ষী বাহিনীতে জড়িত দেশের সংখ্যা ক্রমান্বয়ে বাড়ছে। শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে ২০১৭ সালে সামরিক বাহিনী, পুলিশ, বেসামরিক কর্মকর্তা, স্বেচ্ছাসেবকসহ বিশ্বের ৪৩টি দেশের ১১৭ জন প্রাণ দিয়েছেন। ২০১৭ সালের এ পর্যন্ত মোট ১২ জন শান্তিরক্ষী মারা গেছেন।

শান্তিরক্ষা কার্যক্রমের মাধ্যমে টেকসই শান্তি প্রতিষ্ঠায় জাতিসঙ্ঘের সদস্যভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে ঘনিষ্ঠ সহযোগিতার ওপর গুরুত্বারোপ করেন জাতিসঙ্ঘ মহাসচিব।

 

 

অন্যান্য সংবাদ

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫