ঢাকা, মঙ্গলবার,২৩ মে ২০১৭

সিলেবাস

কর্ম ও জীবনমুখী শিক্ষা

দ্বিতীয় অধ্যায় : আমাদের কাজ : যেগুলো অন্যেরা করে

নাসরীন সুলতানা সিনিয়র শিক্ষক, রমনা মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, নয়াটোলা, মগবাজার, ঢাকা

২০ মে ২০১৭,শনিবার, ০০:০০


প্রিন্ট
সুপ্রিয় জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট পরীক্ষার শিক্ষার্থী বন্ধুরা, শুভেচ্ছা নিয়ো। আজ তোমাদের কর্ম ও জীবনমুখী শিক্ষা বিষয়ের ‘দ্বিতীয় অধ্যায় : আমাদের কাজ : যেগুলো অন্যেরা করে’ থেকে আরো ৩টি অনুধাবনমূলক প্রশ্নোত্তর নিয়ে আলোচনা করা হলো। 
অনুধাবনমূলক প্রশ্নোত্তর
প্রশ্ন : মানুষ কিভাবে প্রাত্যহিক জীবনে বিনোদন করার সুযোগ পায়?
উত্তর : সুষ্ঠু বিনোদন মানুষের জীবন ধারণের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। পত্রিকার হকার, অভিনেতা-অভিনেত্রী, বেতার ও টেলিভিশন কর্মীরা মানুষের বিনোদনের জন্য অকান্ত পরিশ্রম করে থাকেন। বিভিন্ন খেলোয়াড় তাদের খেলার মাধ্যমে মানুষকে আনন্দ দেয়। এ ছাড়া কাজের মাধ্যমে মানুষ তাদের প্রাত্যহিক জীবনে বিভিন্ন বিনোদন করার সুযোগ পায়।
প্রশ্ন : সুন্দর জীবনযাপনের জন্য পরিবারের সদস্যরা কিভাবে প্রতিনিয়ত কাজ করে থাকেন?
উত্তর : দৈনিক জীবনযাপন সুন্দর করার জন্য পরিবারের সদস্যরা প্রতিনিয়ত কাজ করে থাকেন। বাড়ির উঠান বা আঙ্গিনা; ঘর পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখা, প্রতিদিন বিভিন্ন কারণে ঘর অগোছালো হয়, তাই সবাই ঘর গোছানোর কাজ করে থাকে। তাছাড়া ঘরের আসবাবপত্র ঠিক জায়গায় রাখা, সেগুলো সঠিকভাবে পরিষ্কার করা। এ ছাড়াও কাপড়-চোপড় পরিষ্কার রাখার জন্য দিন-রাত পরিশ্রম করে পরিবারের সদস্যরা আমাদের প্রাত্যহিক জীবনকে সুন্দর ও আনন্দময় করে তোলেন।
প্রশ্ন : কিভাবে সহনশীলতার শক্তি অর্জন সম্ভব?
উত্তর : যেকোনো কাজে সফল হওয়ার জন্য ধৈর্যশীল বা সহনশীল হওয়া অত্যন্ত জরুরি। নিয়মিত কাজ করলে কাজের অভ্যাস এবং কাজের প্রাপ্তির মাধ্যমে মানুষ সহনশীলতার শিক্ষা পায়। সুতরাং দেখা যায়, নিজের কাজ নিজে করার মাধ্যমে সহনশীলতার শক্তি অর্জন করা সম্ভব।
প্রশ্ন : নিজের কাজ নিজে করলে কী কী সুবিধা পাওয়া যায়? ব্যাখ্যা করো।
উত্তর : নিজের কাজ নিজে করলে যেসব সুবিধা পাওযা যায় সেগুলো নিচে দেয়া হলোÑ ১. কাজের প্রতি শ্রদ্ধাবোধ বাড়ে।
২. সঠিকভাবে সঠিক সময়ে সঠিক কাজটি করা যায়।
৩. সঠিক উপায়ে নিজের কাজটি নিজে করা যায়।
৪. সৃজনশীলতা ও উদ্ভাবনী শক্তির বিকাশ ঘটে।
৫. আত্মনির্ভরশীল হওয়া যায়।
৬. অন্যের কাজের প্রতি নির্ভরশীল থাকতে হয় না।
৭. কাজে কোনো চাপ তৈরি হয় না।
তাই এ কথা বলা যায় যে, নিজের কাজ নিজে করলে উপরোক্ত সুবিধাগুলো পাওয়া যায়।

 

 

অন্যান্য সংবাদ

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন
চেয়ারম্যান, এমসি ও প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

ব্যবস্থাপনা পরিচালক : শিব্বির মাহমুদ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫