ঢাকা, মঙ্গলবার,২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭

অপরাধ

অগ্রণী ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস, পরীক্ষা স্থগিত

নিজস্ব প্রতিবেদক

১৯ মে ২০১৭,শুক্রবার, ২১:২৭


প্রিন্ট

অগ্রণী ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার পদের নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের গুরুতর অভিযোগ উঠেছে। প্রশ্নফাঁসের অভিযোগে আজ শুক্রবার বিকেলের পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে।

সকালে হয়ে যাওয়া পরীক্ষার প্রশ্নের সাথে ফাঁস হওয়া প্রশ্নপত্রের হুবহু মিল পাওয়া গেছে। অনেক পরীক্ষার্থী আগেই প্রশ্ন পাওয়ার কথা জানিয়েছেন। পরীক্ষার পর ফাঁস হওয়া প্রশ্নের সাথে হুবহু মিল থাকার কথা অনেকে স্বীকারও করেছেন।

আজ দুপুর থেকেই বিভিন্ন অনলাইনে ফাঁস হওয়া প্রশ্ন এবং মূল প্রশ্নের ছবি পাশপাশি প্রকাশ করা হয়েছে।

আজ সকাল ১০টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত অগ্রণী ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার পদে নিয়োগের বাছাইপর্বের সকালের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। বিকেলের পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল সাড়ে তিনটায়। কিন্তু পরীক্ষা হয়নি। প্রশ্নফাঁসের ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর বিকেলের পরীক্ষা স্থগিত করা হয়। পরবর্তীতে এ পরীক্ষার কথা জানানো হবে বলে নোটিশে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। সকালের পরীক্ষা বাতিল হবে কি না সে সিদ্ধান্ত এখনো হয়নি।

বেলা ১১টায় সকাল ভাগের পরীক্ষা শেষ হওয়ার পর অনেক পরীক্ষার্থী বলেন, মূল প্রশ্নপত্রের সাথে ফাঁস হওয়া প্রশ্নপত্রের হুবহু মিল পেয়েছেন তারা। ফাঁস হওয়া প্রশ্নপত্রের ছবি ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অনেকে।

অগ্রণী ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার পদের নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়েছে বলে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত থেকেই অভিযোগ পাওয়া যায়।

কয়েকজন পরীক্ষার্থী জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার রাত থেকে তারা হাতে লেখা ও ছাপা প্রশ্নপত্র দেখেছেন। আবার শুধু উত্তরও দেখা গেছে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহার করে পরীক্ষার্থীরা নিজেদের মধ্যে এই প্রশ্নপত্র ও উত্তর বিনিময় করেন। সকাল ১১টায় পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবার আগ পর্যন্ত গণহারে ছড়িয়ে পড়ে প্রশ্নফাঁসের ঘটনা। সবার মোবাইলে ছড়িয়ে পড়ে ফাঁস হওয়া প্রশ্ন। সকালে পরীক্ষার হলে প্রবেশের আগে পর্যন্ত বিভিন্ন পরীক্ষা কেন্দ্রের সামনে পরীক্ষার্থীরা জড়ো হয়ে মোবাইলে ফাঁস হওয়া প্রশ্ন এবং উত্তর মিলিয়েছে। আবার কেউ কেউ টাকার বিনিময়ে ফাঁস হওয়া প্রশ্নের উত্তর মিলিয়ে দিয়েছে এরকম ঘটনার কথাও জানিয়েছে একজন পরীক্ষার্থী। এমনকি ১০০ টাকার বিনিময়েও কেউ কেউ প্রশ্নফাঁসের কথা জানিয়েছেন।

আজকের পরীক্ষায় দুই লাখের বেশি পরীক্ষার্থী ছিল।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫