ঢাকা, সোমবার,২১ আগস্ট ২০১৭

শেষের পাতা

গাংনীতে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ সন্ত্রাসী লালন নিহত

গাংনী (মেহেরপুর) সংবাদদাতা

১৯ মে ২০১৭,শুক্রবার, ০০:০০


প্রিন্ট
গাংনীতে পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে লালন (৩৫) নামে এক শীর্ষ সন্ত্রাসী নিহত হয়েছে। বুধবার রাত ৩টায় কুষ্টিয়া-মেহেরপুর সড়কের গাংনী উপজেলার চোখতোলায় এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। সে গাংনীর ঝোড়াঘাট গ্রামের জহির উদ্দীনের ছেলে। গুলিবিনিময়ে পুলিশের দুইজন সদস্য আহত হয়েছেন। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে দু’টি হাতবোমা, একটি এলজি শার্টারগান, এক রাউন্ড বন্দুকের গুলি, দু’টি দেশীয় অস্ত্র ও দড়ি উদ্ধার করে। 
গাংনী থানার অফিসার ইনচার্জ আনোয়ার হোসেন জানান, মেহেরপুর-কুষ্টিয়া সড়কের গাংনী উপজেলাধীন চোখতালায় একদল ডাকাত সড়কের ওপর গাছ ফেলে ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছে মর্মে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে ডাকাতদল পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়তে থাকে। এ সময় পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। একপর্যায়ে ডাকাত দলের সদস্যরা পালিয়ে গেলেও ঘটনাস্থল থেকে অজ্ঞাত এক ডাকাতকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পাওয়া যায়। আহত অবস্থায় তাকে গাংনী থানায় নেয়া হলে কতর্ব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। গাংনী থানার আহত এসআই বকতিয়ার হোসেন ও কনস্টেবল আব্দুল হক গাংনী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। পরে এলাকাবাসীর দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে জানা যায় নিহত ব্যক্তি এলাকার কুখ্যাত সন্ত্রাসী ঝোড়াঘাট গ্রামের লালন।
গাংনী থানার ওসি আনোয়ার হোসেন আরো জানান, নিহত লালন এলাকার ত্রাস হিসেবে পরিচিত। সে যুবদল নেতা কাজল মাহমুদ, বিএনপি নেতা আব্দুল আলিম ও আওয়ামী লীগ নেতা বেল্টু হত্যা মামলার অন্যতম আসামি। তার বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি, অপহরণ, ডাকাতিসহ বহু অভিযোগ রয়েছে।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫