ঢাকা, বুধবার,২২ নভেম্বর ২০১৭

নগর মহানগর

রমজানের আগেই গ্রিক মূর্তি না সরালে ফের রাস্তায় নামবে হেফাজত : আল্লামা বাবুনগরী

চট্টগ্রাম ব্যুরো

১৯ মে ২০১৭,শুক্রবার, ০০:০০


প্রিন্ট
আসন্ন মাহে রমজানের আগেই গ্রিক দেবী থেমিসের মূর্তি অপসারণের আহ্বান জানিয়ে হেফাজতের মহাসচিব আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরী ও কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী গতকাল বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে তিনি বলেছেন, আসন্ন রমজানের আগেই গ্রিক মূর্তি না সরালে আবার রাস্তায় নামব। দেশের ওলামায়ে কেরামের কাছে হাইকোর্টের প্রাঙ্গণ থেকে গ্রিক দেবী থেমিসের মূর্তি সরানোর প্রতিশ্র“তি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাই আমরা পবিত্র রমজানের আগেই মূর্তিটি অপসারণের জোর দাবি জানাই। প্রধান বিচারপতির কাছেও আমাদের দাবিÑ বৃহত্তর তৌহিদি জনতার চাওয়াকে গুরুত্ব দিন এবং দেশে এই ইস্যুতে যেন বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি না হয়, সে জন্য মূর্তি অপসারণে দ্রুত পদপে নিন। অন্যথায় আমরা ফের রাস্তায় নামতে বাধ্য হবো। 
বিবৃতিতে তারা আরো বলেন, গোঁড়া সেকুলার মৌলবাদী প্রগতিশীলরা অজ্ঞতাপ্রসূত বলছেন যে, মূর্তি আর ভাস্কর্য নাকি এক নয়! অথচ বাংলা  একাডেমির ব্যবহারিক বাংলা অভিধানের ৯২৯ নং পৃষ্ঠায় ‘প্রস্তরাদি খোদাই করে বা তা দিয়ে মূর্তি বানানোর কাজ’কে ভাস্কর্য বলে ব্যাখ্যা দেয়া হয়েছে। এ ছাড়া ‘ভাস্কর’ থেকে ‘ভাস্কর্য’ শব্দটি এসেছে। ভাস্করের অর্থ : সূর্য বা অগ্নি। অন্য দিকে ‘প্রস্তরাদি থেকে যিনি মূর্তি নির্মাণ করেন’ তাকেও ভাস্কর বলা হয়েছে ওই অভিধানে। 
বিবৃতিতে বলা হয়, মূর্তি বা প্রতিমা নির্মাণ ছাড়া এবং তৌহিদ ও ঈমানের সাথে সাংঘর্ষিক না হওয়া পর্যন্ত যেকোনো শিল্পকর্ম ও স্থাপত্যকলায় ইসলামের আপত্তি নেই; কাজেই আমাদেরও কোনো আপত্তি থাকতে পারে না। কিন্তু পাশ্চাত্যের আধুনিকতাবাদ এবং ইউরোপীয় খ্রিষ্টীয় সভ্যতার আলোকে ইসলাম তার শিল্পবোধ, নান্দনিকতাবোধ ও কলাজ্ঞান পরিমাপ করে না। সুতরাং ইসলাম প্রাচীন মূর্তিকেন্দ্রিক পৌত্তলিক জাহেলিয়াতকে শিল্পের নামে উপস্থাপন করারও বিরোধী, যেমন : আমাদের হাইকোর্টের সামনে রোমানদের প্রাচীন বিশ্বাসের অংশ ন্যায়ের দেবী থেমিসের মূর্তি বা ভাস্কর্য স্থাপন।

 

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
সকল সংবাদ

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫