ঢাকা, সোমবার,২১ আগস্ট ২০১৭

ক্রীড়া দিগন্ত

কোয়ার্টারে চট্টগ্রাম আবাহনী ও মোহামেডান

চট্টগ্রাম আবাহনী (ওলাদিপেয়, এলিসন)২ : ১ (ইকাংগা)আরামবাগ

ক্রীড়া প্রতিবেদক

১৯ মে ২০১৭,শুক্রবার, ০০:০০


প্রিন্ট
প্রতিপক্ষ দলের আগের ম্যাচে হার। অন্য দিকে নিজেরা ৩ পয়েন্ট পেয়েছে প্রথম ম্যাচে। তারপরও গতকাল আরামবাগ ক্রীড়াসঙ্ঘের বিপক্ষে মহাটেনশনে চট্টগ্রাম আবাহনী। হারলেই যে গতবারের মতো ফেডারেশন কাপের গ্রুপ পর্ব থেকে বাদ। বিগ বাজেটের দলটিকে টপকে শেষ আটে চলে যাবে মোহামেডান ও মতিঝিল কাবপাড়ার অপর দলটি। যদিও কোয়ার্টার ফাইনালে যেতে বন্দরনগরীর দলটির দরকার ছিল ড্র।
তবে ড্র নয়। জয় দিয়েই মওসুম শুরুর টুর্নামেন্টে নকআউট পর্বে চট্টগ্রাম আবাহনী। আরামবাগের বিপক্ষে গতকাল তাদের ২-১ গোলের জয় গ্রুপ পর্ব উৎখাতে সহায়তা করেছে মোহামেডানকেও। ‘সি’ গ্রুপ থেকে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে চট্টগ্রাম আবাহনী টানা দুই ম্যাচ জিতে। আর গত ম্যাচে আরামবাগকে হারানোর সুবাদে গ্রুপ রানার্সআপ মোডামেডান। অন্য দিকে গতবারের রানার্সআপ আরামবাগের বিদায় হলো গ্রুপ পর্ব থেকে।
লড়াইটা ছিল দেশের দুই সেরা কোচ সাইফুল বারী টিটু ও মারুফুল হকেরও। কোয়ার্টারে যেতে মারুফের আরামবাগের জয়ের বিকল্প ছিল না। সে চেষ্টা তারা করেছে। কিন্তু চট্টগ্রাম আবাহনীর দুই বিদেশীই গড়ে দেয় পার্থক্য। অবশ্য আরামবাগকে সমতায় ফেরান ক্যামেরুনের ইকাংগা। ২১ মিনিটে নাইজেরিয়ান ওলাদিপোর শট আরামবাগের ক্রসবার ছুঁয়ে বাইরে গেলেও ৩৩ মিনিটে তার গোলেই লিড ঢাকার বাইরের দলটির। জাহিদের কর্নার থেকে এলিসন উডুকার হেড আফিজ ওলাদিপেয়র শট সোজা জালে।
অবশ্য লিডটা বেশিক্ষণ ধরে রাখতে পারেনি চট্টগ্রাম আবাহনী। ৩৭ মিনিটে রবিউলের থ্রু পাস থেকে বল পেয়ে গতিতে বক্সে ঢুকে সমতা আনেন দীর্ঘদেহী ইকাংগা। বিজেএমসি ও শেখ রাসেলে তিনি ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার হিসেবে খেললেও আরামবাগে তিনি খেলছেন স্ট্রাইকিং পজিশনে। ৪২ মিনিটে অবশ্য বিপক্ষ কিপার নেহালকে একা পেয়েও বল তার হাতে তুলে দেন ইকাংগা।
বিরতির পর চট্টগ্রাম আবাহনীকে দুইবার গোলবঞ্চিত করেন স্ট্রাইকার রনি। দুইবারই তাকে হতাশ করেন আরামবাগ গোলরক্ষক আক্কাস শেখ। ৬১ মিনিটে দলের জয়সূচক গোল জাহিদের কর্নার থেকে। এবার এলিসনের হেডে পরাস্ত আক্কাস। ৭১ মিনিটে ওলাদিপেয় গোলরক্ষকে কাটিয়েও মারেন বাইরে।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫