ঢাকা, শুক্রবার,২৪ নভেম্বর ২০১৭

খুলনা

দামুড়হুদায় লিচু ঠেকাতে পাখি নিধন 

মনিরুজ্জামান সুমন,দামুড়হুদা(চুয়াডাঙ্গা)সংবাদদাতা

১৮ মে ২০১৭,বৃহস্পতিবার, ১৫:১০


প্রিন্ট

লিচুগাছগুলো ঘিরে দেওয়া কারেন্ট জালে আটকা পড়ে মরে যায় পাখি। দামুড়হুদার কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়নের শিবনগর বাগান স্থানীয় ইজারাদারেরা লিচুগাছ ইজারা নিয়ে চারপাশে কারেন্ট জাল জড়িয়েছেন। এ জালে আটকা পড়ে প্রতিদিনই মারা যাচ্ছে বিভিন্ন ধরনের পাখি। পাখি হত্যা রোধে প্রসাশন প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ না নেয়ায় দিনের পর দিন তারা প্রতিটি গাছে কারেন্ট জাল দিয়ে লিচু বাঁচাতে পাখি মারা হচ্ছে। ইজারাদার মহি উদ্দীন বলছেন, বাদুড়ের কবল থেকে লিচু রক্ষা করতে গাছে কারেন্ট জাল জড়ানো হয়েছে। কিন্তু বৃহস্পতিবার সকালে সরেজমিনে দেখা যায়, শিবনগর ইকোপার্কের ভিতর গেষ্ট হাউজের সামনের গাছ গুলোতে বা রাস্তার দুই পাশ দিয়ে বেশ কিছু লিচুগাছ। গাছগুলোতে থোকায় থোকায় লিচু ঝুলছে। প্রতিটি গাছের চারপাশ ঘিরে দেওয়া হয়েছে কারেন্ট জাল। ইকোপার্কের গেট ম্যান আবু বক্কর ও পথচারীদের সাথে কথা বললে বলেন, জালেতো পাখি পড়ে এবং অনেক পাখি মারা যায় বলে জানান। ইকোপার্ক জুড়ে বিভিন্ন জাতের গাছ রয়েছে। ফলে প্রচুর পাখির আনাগোনা হয়। কিন্তু প্রতিবছর লিচু রক্ষার নামে গাছে জড়ানো কারেন্ট জালে আটকা পড়ে পাখি মারা যায়। স্থানীয় মেম্বর আব্দুর সবুর বলেন , শিবনগর বাগানে প্রায় বড় বড় ১৫টি লিচুগাছ রয়েছে। প্রতিবছরই গাছগুলো লিচু ব্যবসায়ীদের কাছে ইজারা দেওয়া হয়। ইজারাদারেরা ফুল অবস্থা থেকে লিচু পাকা পর্যন্ত গাছগুলো নিজ দায়িত্বে রক্ষণাবেক্ষণ করেন। স্থানীয়রা বলেন, ‘শিবনগর বাগান পাখিদের অভয়ারণ্য। এই বাগানে বিভিন্ন জাতের প্রচুর পাখি রয়েছে। লিচু রক্ষার নামে এই বাগানে পাখি নিধন হচ্ছে । স্থানীয় ও পথচারীরা আরো বলেন, এখনি প্রসাশননের উচিত গাছ থেকে কারেন্ট জাল সরানো, এবং ইজারাদাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া ।’ ইজারাদার মহি উদ্দীন বলেন, ‘বাদুড়ের অত্যাচার থেকে লিচু রক্ষা করতেই গাছে জাল জড়ানো হয়েছে। কোনো পাখি জালে আটকা পড়লে আমরা তা ছাড়িয়ে দিচ্ছি।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫