ঢাকা, সোমবার,২১ আগস্ট ২০১৭

শিক্ষা

শাহবাগে ম্যাটস শিক্ষার্থীদের সাথে পুলিশের দফায় দফায় সংঘর্ষ

নিজস্ব প্রতিবেদক

১৮ মে ২০১৭,বৃহস্পতিবার, ২০:২৭ | আপডেট: ১৮ মে ২০১৭,বৃহস্পতিবার, ২০:৩২


প্রিন্ট

রাজধানীর শাহবাগে আজ বৃহস্পতিবার মেডিক্যাল অ্যাসিস্ট্যান্ট ট্রেনিং স্কুল (ম্যাটস) শিক্ষার্থীদের সাথে পুলিশের দফায় দফায় ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এসময় শিক্ষার্থীরা রাস্তায় বেশ কয়েকটি যানবাহনে ভাঙচুর চালিয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গিয়ে পুলিশ টিয়ারশেল, জলকামান ও লাঠিচার্জ করে। এঘটনায় অন্তত ৩০ জন শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন।

জানা গেছে, আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা আজ বৃহস্পতিবার সকালে চারদফা দাবিতে শহীদ মিনারে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে। কর্মসূচি শেষে দুপুর ১২টার দিকে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা শাহবাগে অবরোধের জন্য জড়ো হতে থাকলে পুলিশ তাদের বাধা দেয়। এসময় শিক্ষার্থীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট পাটকেল ছোড়ে। তারা রাস্তা অবরোধ করে যানবাহন বন্ধ করে দেয়। এসময় পুলিশ লাঠিচার্জ করে। এক পর্যায় শিক্ষার্থীরা পুলিশের বাধা পেরিয়ে জাতীয় জাদুঘরের সামনে পৌঁছলে পুলিশ তাদের ছত্রভঙ্গ করতে কাঁদানে গ্যাস ও জলকামান থেকে গরম পানি ছোড়ে। শিক্ষার্থীরা এতে ক্ষুব্ধ হয়ে বারডেম হাসপাতালের সামনে বেশ কয়েকটি বাস, মাইক্রোবাস ও ট্যাক্সি ক্যাব ভাঙচুর করেন। এ সময় কয়েকজন শিক্ষার্থীকে পুলিশ আটক করে।

আন্দোলনরত ম্যাটস শিক্ষার্থীরা জানান, ম্যাটস থেকে ডিপ্লোমা করা শিক্ষার্থীদের দ্বিতীয় শ্রেণির কর্মকর্তা পদে নিয়োগের কথা থাকলেও তারা সেই সুযোগ পাচ্ছেন না। ম্যাটসে পড়া শেষে মেডিক্যাল কলেজগুলো থেকে উচ্চশিক্ষার সুযোগের কথা বলা হলেও এখনও তা কার্যকর হয়নি। এছাড়া পেশাগত জায়গায় ম্যাটস শিক্ষার্থীরা যথাযথ সুযোগ পাচ্ছে না। কমিউনিটি হাসপাতালগুলোতে তাদের কাজের অগ্রাধিকার দেয়ার কথা থাকলেও দেশের প্রায় ১৩ হাজার কমিউনিটি ক্লিনিকে তাদের চেয়ে কম যোগ্যতার সুযোগ দেয়া হচ্ছে।

এ ঘটনায় ঢাকা ডিএমপির উপ-কমিশনার (ডিসি) মারুফ হোসেন সরদার সাংবাদিকদের বলেন, শাহবাগে বসে রাস্তা আটকানোর পরিকল্পনা থাকায় পুলিশ শিক্ষার্থীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। সকাল থেকেই তারা শহীদ মিনারে অবস্থান নিয়েছিল। এরপর তারা প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দিতে শাহবাগের দিকে রওনা দেয়।

তিনি বলেন, স্মারকলিপি দিতে একটি প্রতিনিধি দল যেতে হয়। তারা সেই নিয়ম না মেনে একদল শিক্ষার্থী শাহবাগের রাস্তা অবরোধ করতে চাইলে ছত্রভঙ্গ করে দেয়া হয়।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫