ঢাকা, বুধবার,২২ নভেম্বর ২০১৭

নিত্যদিন

এস্কিমো

মুহাম্মদ রোকনুদ্দৌলাহ্

১৭ মে ২০১৭,বুধবার, ০০:০০


প্রিন্ট

তোমরা অনেক কিছুই জানো, তাই না? এস্কিমো সম্পর্কেও হয়তো তোমাদের ধারণা আছে। এস্কিমো শব্দের অর্থ কাঁচা মাংসখেকো। এরা নিজেদের বলে ইন্নুইট, যার মানে মানুষ।তোমরা অনেক কিছুই জানো, তাই না? এস্কিমো সম্পর্কেও হয়তো তোমাদের ধারণা আছে। এস্কিমো শব্দের অর্থ কাঁচা মাংসখেকো। এরা নিজেদের বলে ইন্নুইট, যার মানে মানুষ।লিখেছেন মুহাম্মদ রোকনুদ্দৌলাহ্
এস্কিমোরা আমেরিকার উত্তরের, বিশেষ করে গ্রিনল্যান্ড দ্বীপের দেশজ মানুষ। কিছু বাস করে আলাস্কা (যুক্তরাষ্ট্র), কানাডা ও পূর্ব সাইবেরিয়ায় (রাশিয়া)। এরা বেঁটে ও মোটাসোটা। এদের নাক চ্যাপটা, চুল কালো ও সোজা। এস্কিমোদের গায়ের রঙ হালকা বাদামি কিন্তু নোংরা থাকার ফলে এদের ময়লা রঙের দেখায়। অতি শীতের কারণেই এরা নোংরা থাকতে বাধ্য হয়। এরা গোসল করে না।  এস্কিমোদের আবাসভূমি সারা বছরই বরফে ঢাকা থাকে। এখানে শ্বেতভল্লুক, শেয়াল, খরগোশ, বল্গাহরিণ এবং কয়েক প্রকার পাখি রয়েছে। এ ছাড়া বরফের সমুদ্রে রয়েছে সিল ও বিভিন্ন প্রকার মাছ। এস্কিমোরা শিকারজীবী। প্রাণী শিকার করেই এরা জীবনধারণ করে। এরা এসব প্রাণীর মাংস ও চর্বি খায় আর চামড়া দিয়ে তৈরি করে তাঁবু ও পোশাক। প্রাণীর নাড়িভুঁড়ি দিয়ে এরা সুতার কাজ চালায়। এস্কিমোরা বিশেষ পদ্ধতিতে সিল শিকার করে। এরা বরফ খুঁড়ে পানি পর্যন্ত গর্ত করে। এ গর্তের পাশে এরা বর্শা হাতে ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করে।  ওপরে ওঠার সুড়ঙ্গ পেলে সিল উঠে আসে গর্ত বরাবর। এস্কিমোরা একে গেঁথে ফেলে বর্শা দিয়ে। সিলকে এরা টুকরো টুকরো করে কেটে কাঁচাই খায়। এস্কিমোরা বরফের তৈরী ঘরে বাস করে। এ ঘরকে এরা ইগলু বলে।ইগলুতে মাছের হাড় ও দূর থেকে আনা কাঠও ব্যবহার করা হয়। এ ঘরে একটি দরজা থাকে। ইগলুর ভেতরে সিলের চর্বির বাতি জ্বালালে এটি গরম হয়ে ওঠে; কিন্তু বরফ গলে না। কারণ বাইরে তীব্র শীত। ইন্টারনেট

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫