পৃথিবী ঘেঁষে বেরিয়ে গেল বিশাল গ্রহাণু

নয়া দিগন্ত অনলাইন

একেবারে পৃথিবীর শরীর চলে গেল বিশাল আকারের একটি গ্রহাণু।! আশঙ্কা থাকলেও পুরো বিষয়টি পুরো নিরাপদেই ঘটেছে।
প্রায় এক কিলোমিটার প্রশস্ত গ্রহাণুটি গত কয়েক দিন আগে পৃথিবীকে পেরিয়ে যায় বলে বলে বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। এটি কক্ষপথে পৃথিবী থেকে ১৮ লাখ কিলোমিটার দূর দিয়ে যায়, যা পৃথিবী থেকে চাঁদের দূরত্বের পাঁচ গুণের কম। বিবিসি বলছে, ২০১৪-জেও২৫ নামে পরিচিত এই গ্রহাণুই ২০০৪ সালের পর পৃথিবীর কাছ ঘেঁষে যাওয়া সবচেয়ে বড় গ্রহাণু।

অন্যদিকে, জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা বলছেন, রাতের অন্ধকারে গ্রহাণুটি সবচেয়ে ভালোভাবে দেখার সুযোগ ছিল। আর তা অনেকেই উপভোগ করেছে বলে জানা গিয়েছে। মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা রাডারে ধরা পড়া ছবির বিশ্লেষণে বলা হয়েছে, বাদামের আকারের গ্রহাণুটি প্রতি পাঁচ বছরে একবার আবর্তিত হয়। জ্যোতির্বিজ্ঞানীদের কথা মতে, পৃথিবীর মতো সূর্যের চারপাশে আবর্তনের সময় গ্রহাণুটি পৃথিবীর কাছে চলে এসে। এরপর বৃহস্পতি গ্রহ অতিক্রম করবে এবং পরে আবার সৌরজগতের কেন্দ্রের দিকে ফিরে যাবে।

এই গ্রহাণু পৃথিবীর কাছে আসার গুরুত্বটি হচ্ছে, এটি ৪০০ বছর পর ক্ষণিকের জন্য কাছে এলো। এরপর আবার এটিকে দেখা যাবে প্রায় ৫০০ বছর পর। ২০১৪ সালের মে মাসে অ্যারিজোনার টাকসনে ক্যাটলিনা স্কাই সার্ভে দল টেলিস্কোপে প্রথম জেও২৫ গ্রহাণুটি খুঁজে পায়। সপ্তাহে কয়েকবারই ছোট আকারের গ্রহাণু পৃথিবীর কাছ ঘেঁষে বেরিয়ে যায়। কিন্তু অন্তত এই বিশাল আকারের গ্রহাণু সর্বশেষ ২০০৪ সালে পৃথিবীর সবচেয়ে কাছে চলে এসেছিল। সেবার টুটাটিস নামের গ্রহাণুটি চাঁদের দূরত্বের চারগুণ দূরত্বের মধ্যে চলে আসে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.