সরকারি কলেজ শিক্ষকদের কর্মবিরতি, এইচএসসি’র ব্যবহারিক পরীক্ষা কাল থেকে

নিজস্ব প্রতিবেদক

সরকারি কলেজ শিক্ষকরা মঙ্গলবার সারাদেশে সর্বাত্মক কর্মবিরতি পালন করেছেন। শ্রেণী কার্যক্রম ও পরীক্ষার দায়িত্বসহ সব কাজ-কর্মে সর্বাত্মক কর্ম বিরতিতে অংশ নিয়েছে সারা দেশের সরকারি কলেজ শিক্ষক ও শিক্ষা ক্যাডারের কর্মকর্তারা। কর্মসূচি চলাকালে শিক্ষা ভবনসহ সারাদেশের সরকারি কলেজগুলো ও শিক্ষা বোর্ডগুলোর সংশ্লিষ্ট স্থানে উক্ত ক্যাডার কর্মকর্তাদের কর্মবিরতিতে অংশ নিতে দেখা গেছে।
পাবলিক পরীক্ষা চলাকালে এবং বিভিন্ন সরকারি দায়িত্ব পালনকালে কলেজ শিক্ষকরা সন্ত্রাসী হামলার শিকার হন। এরই প্রতিবাদে বিসিএস সাধারণ শিক্ষা সমিতি কর্মবিরতির কর্মসূচি ঘোষণা দিয়েছিল বিসিএস সাধারণ শিক্ষা সমিতি গত ৭ মে। অভিযোগ রয়েছে বিভিন্ন পাবলিক পরীক্ষা কেন্দ্রে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা প্রবেশ করতে চাইলে এবং পরীক্ষায় নকলের সুযোগ না দেয়ায় দেশের বিভিন্ন স্থানে সরকারি কলেজ শিক্ষকদের উপর এ হামলা চালিয়েছিল। এরই প্রতিবাদে এ কর্মসূচি পালিত হয়েছে আজ।
শিক্ষকদের কর্মবিরতির কারণে মঙ্গলবার জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ২০১৬ সালের তৃতীয় বর্ষ অনার্স (নিয়মিত) পরীক্ষার স্থগিত করা হয়েছে। এ পরীক্ষা আগামী ১০ জুন সকাল ৯টায় অনুষ্ঠিত হবে। এ ছাড়া চলমান এইচএসসি’র ব্যবহারিক পরীক্ষাও মঙ্গলবার শুরু হবার কথা থাকলেও শিক্ষকদের কর্মবিরতির কারণে এক দিন পিছিয়ে আগামীকাল বুধবার ১৭ মে শুরু হবে।
সমিতির সভাপতি কবি নজরুল সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক আই কে সেলিম উল্লাহ খোন্দকার নয়া দিগন্তকে জানান, সারাদেশে সরকারি কলেজ শিক্ষকরা কর্মবিরতিতে অংশ নিয়েছেন। তারা (শিক্ষকরা) সব ধরনের একাডেমিক কার্যক্রমসহ দাপ্তরিকভাবে উপস্থিত হয়েও কোনো কাজ করেননি। তিনি বলেন, সরকারকে দেয়া আলটিমেটামের মঙ্গলবার ছিল শেষ দিন। এরপরও শিক্ষকদের উপর হামলাকারীদের শাস্তির আওতায় আনা না হয় এবং জড়িতদের বিচার না হয়, তা হলে আগামী ২৫ মে থেকে শিক্ষকরা লাগাতার কর্মবিরতিতে যাবে। অনির্দিষ্টকালের জন্য সব ধরনের পাবলিক পরীক্ষার দায়িত্ব পালন থেকে বিরত থাকাবে কলেজ শিক্ষকরা।
কর্মবিরতি পালনকালে সংগঠনটির নেতারা বিভিন্ন স্থানে, হামলার ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধে সব কয়টি ঘটনার দ্রুত বিচার দাবি জানিয়েছেন। একইসঙ্গে পরীক্ষার কেন্দ্রের আশপাশে ১৪৪ ধারা জারির সিদ্ধান্ত কঠোরভাবে মানা এবং সব ক্ষেত্রে কলেজ শিক্ষকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার দাবি।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.