ঢাকা, বুধবার,২৪ মে ২০১৭

গৃহস্থালি

ঘর সাজাতে অ্যাকুরিয়াম

শওকত আলী রতন

১৫ মে ২০১৭,সোমবার, ১৮:৪২


প্রিন্ট

ইচ্ছে থাকলে স্বাদ আর সাধ্যের মধ্যে অল্প ব্যয়ে অনেক কিছু করা যায়। কিছু মানুষ আছেন যারা সামান্য আয় দিয়ে নিজের থাকার ঘর অথবা অফিস রুমের সৌন্দর্য ফুটিয়ে তোলেন বহু গুণে। এ জন্য এমন কিছুর প্রয়োজন যার জন্য অল্পতেই বাড়িঘরের সৌন্দর্য বেড়ে যায় বহু গুণে। যেটা তাদের আশপাশের মানুষের নজর কাড়ে সহজেই। আর এ ক্ষেত্রে একেক রকম মানুষের একেক রকম শখ দেখা যায়। ঠিক তেমনি একটি শখের জিনিসের নাম অ্যাকুরিয়াম। বাড়ির অন্দরসাজে বাড়তি সৌন্দর্য যোগ করতে অ্যাকুরিয়ামের জুড়ি মেলা ভার। তবে সেটি হতে হবে অবশ্যই মানানসই কোনো জায়গায়। অ্যাকুরিয়ামে মাছের যত্ন নেয়া থেকে শুরু করে এর রক্ষণাবেক্ষণের জন্য থাকতে হবে জ্ঞান। অ্যাকুরিয়ামের পরিচর্যার ওপরই নির্ভর করে এর স্থায়িত্বকাল। যারা বাড়িতে অ্যাকুরিয়ামে মাছ পোষেণ তাদের মধ্যে বড় একটা অংশ একসময় আগ্রহ হারিয়ে ফেলেন। তখন সেই ভাঙা অ্যাকুরিয়ামের জায়গা হয় বাড়ির পরিত্যক্ত কোনো স্থানে।

নানা রকম অ্যাকুরিয়াম
বেশির ভাগই মানুষ অ্যাকুরিয়ামের ব্যাপারে সঠিক তথ্য পায় না। অনেকটা ধারণার ওপর ভিত্তি করে মাছ পোষেণ অ্যাকুরিয়ামে। শেষে মাছ অসুখে মারা যায়। যখন অ্যাকুরিয়াম কেনার সিদ্ধান্ত নেবেন তখন প্রথমেই আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে আপনার ঘরের মাপ। কারণ বেশি বড় বা বেশি ছোট অ্যাকুরিয়াম আপনার ঘরে বেমানান লাগতে পারে। বাজার ঘুরলে বিভিন্ন রকমের অ্যাকুরিয়াম দেখতে পাওয়া যাবে। কোনোটা দেখতে চারকোনা আকৃতির, কোনোটা দেখতে গোলাকার আবার কোনোটা ব্যতিক্রমী আকৃতির হয়ে থাকে। ঢাকা শহরের বিভিন্ন অ্যাকুরিয়ামের দোকানে ছোট বড় কাচ কাঠের নির্মিত বিভিন্ন অ্যাকুরিয়াম স্ট্যান্ড পাওয়া যাবে। এসব অ্যাকুরিয়াম বানানো হয় বাড়তি শোপিস রাখার জন্য। অর্ডার দিলে এরা এক সপ্তাহের মধ্যেই বানিয়ে দেবে সুন্দর সব অ্যাকুরিয়াম। আর মাছ, মাছের খাবার, অ্যাকুরিয়ামের যাবতীয় উপকরণ তো সবসময় পাওয়া যাবেই। বিভিন্ন রঙিন দেশী-বিদেশী মাছ, মাছের খাবার, অক্সিজেন যন্ত্র, অ্যাকুরিয়াম সাজাতে বিভিন্ন কৃত্রিম ফুল, চরকি, লাইট, রঙবেরঙের পাথর সবই একটি পূর্ণাঙ্গ অ্যাকুরিয়ামে থাকতে হবে।

মাছে বৈচিত্র্য
অ্যাকুরিয়ামে রাখার জন্য অনেক ধরনের মাছ পাওয়া যায়। তবে রঙিন মাছই অ্যাকুরিয়ামের জন্য পছন্দ করে থাকেন বেশির ভাগ শৌখিন মানুষ। অ্যাকুরিয়ামের মাছের মধ্যে রয়েছে গোল্ড ফিশ, অ্যাঞ্জেল ফিশ, ডিসকাস, ক্যাটফিশ, টেট্রা, শার্ক, সিচাইল্ড, অস্কার, বার্ব, গাপ্পি, রেইনবো ফিশ, পাফার ফিশ, সার্ডটেইল, স্ক্যাভেঞ্জারসহ দেশী-বিদেশী আরো অনেক মাছে। বিক্রেতার সাথে পরামর্শ করেও জেনে নিতে পারেন অ্যাকুরিয়ামে একসাথে কোন কোন মাছ থাকতে পারে, তাদের খাদ্যাভ্যাস এবং সাধারণ যত্নের বিষয়ে। অ্যাকুরিয়ামের মাছের যত্নের জন্য কিছু তথ্য জানা আপনার জন্য একান্ত দরকার। তা না হলে অ্যাকুরিয়াম আনার কয়েক দিনের মধ্যেই মাছ মারা যেতে পারে। এ জন্য অ্যাকুরিয়াম কেনার সময় বিক্রেতার কাছ থেকেও কিছু তথ্য জেনে নিতে পারেন। কত দিন পরপর পানি পরিবর্তন করতে হবে, পানি পরিবর্তনের সময় কী কী মেডিসিন-ভিটামিন দিতে হবে, লবণ কী পরিমাণ দিতে হবে ইত্যাদি জেনে নিন। অ্যাকুরিয়ামে অনেক শেওলা জন্মে তাই সাকার মাউথ ক্যাট ফিশ অ্যাকুরিয়ামে রাখলে শেওলা জমে যাওয়া থেকে মুক্তি পাবেন।

দরদাম
রাজধানী ঢাকার কাঁটাবনে সাধারণত বেশির ভাগ অ্যাকুরিয়াম শপ গড়ে উঠেছে। কাঁটাবন মার্কেটে প্রায় সব ধরনের অ্যাকুরিয়াম ও যাবতীয় মাছ, মাছের খাবার, অন্যান্য উপকরণ পাওয়া যায়। অ্যাকুরিয়াম শপে ছোট বড় কাচের জার পাওয়া যাবে ১৫০-৫০০ টাকার মধ্যে। আর ট্রলিসদৃশ তিনকোনা আকৃতির অ্যাকুরিয়াম পাওয়া যাবে ১৫০০-৪০০০ টাকার মধ্যে। অবশ্য অর্ডার দিয়ে দামদর করে বিভিন্ন সাইজ ও রকমের অ্যাকুরিয়াম বানানো যাবে। আমাদের দেশে অ্যাকুরিয়ামের জন্য বিভিন্ন দামে মাছ পাওয়া যায়। তবে এসব অ্যাকুরিয়াম শপে সবার কথা চিন্তা করে ৫০-৫০০ টাকা মূল্যের মাছ বেশি শোভা পায় আর বেশি বিক্রি হয়।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন
চেয়ারম্যান, এমসি ও প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

ব্যবস্থাপনা পরিচালক : শিব্বির মাহমুদ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫