পপি-জায়েদ জুটির রাজপথ

আলমগীর কবির

সম্প্রতি হয়ে যাওয়া শিল্পী সমিতির নির্বাচনে একই প্যানেল থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন সাদিকা পারভীন পপি ও জায়েদ খান। ‘নীতিগতভাবে আমরা এক’ স্লোগান নিয়ে জায়েদ সাধারণ সম্পাদক আর পপি কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। এবার এ দু’জনকে জুটি হিসেবে দেখা যাবে চলচ্চিত্রে। ছবির নাম রাজপথ। পরিচালনা করবেন জাভেদ জাহিদ। পপি ও জায়েদ উভয়ের পক্ষ থেকে খবরটি নিশ্চিত করা হয়েছে।

রাজপথ ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হওয়া প্রসঙ্গে পপি বলেন, ‘অনেক দিন পর নিজেকে মেলে ধরার মতো একটি চরিত্র পেয়েছি। মনে হয়েছে এ ছবির গল্পে নিজেকে প্রকাশ করার অনেক সুযোগ রয়েছে। তা ছাড়া বাজেট, কলাকুশলী মিলিয়ে ভালো একটি ছবি হতে যাচ্ছে এ কথা নিশ্চিতভাবে বলতে পারি।’

পপি বলেন, ‘রাজনৈতিক গল্প। এখানে আমি একজন পুলিশ অফিসার। রাজনৈতিক গণ্ডগোল দমন করতে আমাকে সারাক্ষণ ব্যস্ত থাকতে হয়। এ সময় নেতাদের বিভিন্ন হুমকি আর বাধা আসে। কিন্তু আমি আমার কাজ ঠিক ঠিক করে যাই।’

তিনবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত এই অভিনেত্রী বলেন, ‘আমার আগের ছবিগুলোর দিকে লক্ষ করলে দেখবেন কিছুটা অ্যাকশনধর্মী চলচ্চিত্রে সফলতা বেশি। রাজপথ ছবির গল্পও অ্যাকশনধর্মী।’

রাজপথ ছবি নিয়ে জায়েদ খান বলেন, ‘ছবির গল্প চমৎকার, নির্মাতাও ভালো, আর পপির অভিনয় দক্ষতা সবার জানা, তাই আশা করছি সব কিছু মিলিয়ে দর্শকদের ভালো একটি ছবি উপহার দিতে পারব।’

পপির সাথে জুটি বেঁধে অভিনয় করা প্রসঙ্গে জায়েদ বলেন, ‘আমি সবসময় পপির অভিনয়ের ভক্ত। মানুষ হিসেবে তিনি খুব বিনয়ী। আশা করি কাজের ক্ষেত্রেও বিনয়ী ভাবটা থাকবে।’

পপির সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত চলচ্চিত্রের নাম ‘পৌষ মাসের পিরিতি’। মুক্তির প্রতীক্ষায় আছে শাহ আলম মণ্ডল পরিচালিত ‘সোনাবন্ধু’। এর মধ্যে তিনি আর নতুন কোনো ছবিতে কাজ করেননি। পপি বলেন, ‘ছবির গল্প ও অন্যান্য বিষয়ে আমি রীতিমতো হতাশ ছিলাম। তাই ছবিতে নিয়মিত হইনি। যদিও প্রস্তাব ছিল অনেক। এখন আমার পছন্দের নতুন ছবিতে কাজ করতে যাচ্ছি।’

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.