ঢাকা, শুক্রবার,২৩ জুন ২০১৭

বিবিধ

হুমায়ূনের জন্য ভালোবাসা নিউ ইয়র্কে

এনা নিউইয়র্ক

১৫ মে ২০১৭,সোমবার, ১৭:২৬


প্রিন্ট

 'আমি আজ থেকে ৫ বছর আগে নিউইয়র্কে এসেছিলাম আপনাদের প্রিয় লেখক হুমায়ূন আহমেদকে নিয়ে। এই নিউইয়র্কে তার অনেক স্মৃতি। এখানে তিনি তার জীবনের অনেক কঠিন সময় এবং আনন্দময় দিন কাটিয়েছেন। আজকে আমার ভালো লাগছে হুমায়ূন আহমেদের প্রতি আপনাদের ভালোবাসা দেখে। তাকে আপনারা হৃদয়ে ধারণ করেছেন বলে।' গত ১৪ মে শোটাইম মিউজিক এন্ড প্লে আয়োজিত নিউইয়র্কে প্রথম হুমায়ূন মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে হুমায়ূন আহমেদের স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওন এ সব কথা বলেন। হুমায়ূন মেলাটি বাংলাদেশী অধ্যুষিত জ্যাকসন হাইটসের বেলাজিনো অডিটোরিয়াম এবং পার্কিং লটে অনুষ্ঠিত হয়।
বিকেলে ফিতা কেটে এবং বেলুন উড়িয়ে হুমায়ূন মেলার উদ্বোধন করেন মেহের আফরোজ শাওন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগে অধ্যাপক সৈয়দ মঞ্জুরুল ইসলাম। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় শিল্পী সেলিম চৌধুরী, দিলরুবা খান, চন্দনা মজুমদার, রিজিয়া পারভীন, অন্য প্রকাশনীর তানজীনা রহমান, সৈয়দ মোহাম্মদ উল্যাহ, শো টাইম মিউজিকের প্রেসিডেন্ট আলমগীর খান আলম প্রমুখ।
শামসুন নাহার নিম্মির উপস্থাপনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক সৈয়দ মঞ্জুরুল ইসলাম বলেন, হুমায়ূন আহমেদ এমন একজন উঁচু মাপের লেখক ছিলেন তাকে ভোলা যায় না। দেশেও প্রমাণিত হয়েছে, আজকে নিউইয়র্কেও প্রমাণিত হলো। তিনি মানুষের মনের মনি কোঠায় স্থান করে নিয়েছেন। তিনি বলেন, হুমায়ূন আহমেদ আমার সহকর্মী ছিলেন। আজকের এই মেলায় আমরা হুমায়ূন আহমেদকে পাবো, হিমুকে পাব এবং মিশির আলীকেও পাবো।
মেহের আফরোজ শাওন বলেন, আমি আজ থেকে ৫ বছর আগে নিউইয়র্কে এসেছিলাম আপনাদের প্রিয় লেখক হুমায়ূন আহমেদকে নিয়ে। এই নিউইয়র্কে তার অনেক স্মৃতি। এখানে তিনি তার জীবনের অনেক কঠিন সময় এবং আনন্দময় দিন কাটিয়েছেন। আজকে আমার ভালো লাগছে হুমায়ূন আহমেদের প্রতি আপনাদের ভালবাসা দেখে। তাকে আপনারা হৃদয়ে ধারণ করেছেন বলে। আমি আমার দুই সন্তানকে নিয়ে এখানে এসেছি তাদের বাবার প্রতি মানুষের ভালোবাসা দেখানোর জন্য। এখানে এসে আমি আমার হৃদয়ের অংশ খুঁজে পেয়েছি, স্মৃতি খুঁজে পেয়েছি। আশা করি আগামীতেও নিউইয়র্কে এই মেলা অব্যাহত থাকবে।
নিশাদ হুমায়ূন উপস্থিত দর্শকদের ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, আপনারা আমার বাবার জন্য দোয়া করবেন।
মেলায় হুমায়ূন আহমেদের সাহিত্যে মধ্যবিত্তের জীবন নিয়ে সেমিনারে বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক সৈয়দ মঞ্জুরুল ইসলাম, মেহের আফরোজ শাওন, ঠিকানার প্রধান সম্পাদক মুহম্মদ ফজলুর রহমান, বাঙালির সম্পাদক কৌশিক আহমেদ, সৈয়দ মোহাম্মদ উল্যাহ, হুমায়ূন আহমেদের বন্ধু ফানশু মন্ডল প্রমুখ।
এ ছাড়াও মেলায় হুমায়ূন আহমেদের শেষ চলচ্চিত্র ঘেটুপুত্র প্রদর্শনী করা হয়।
সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে হুমায়ূন আহমেদের গান পরিবেশন করেন বাংলাদেশ থেকে আগত শিল্পী সেলিম চৌধুরী, দিলরুবা খান, চন্দনা মজুমদার, রিজিয়া পারভীন, প্রবাসের জনপ্রিয় শিল্পী শাহ মাহবুব, কৃষ্ণা তিথি, রোকসানা মির্জা, জাকারিয়া মহিউদ্দিন প্রমুখ।
হুমায়ূন মেলায় মানুষের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ দেখে মেলায় আয়োজক আলমগীর খান আলম আগামী বছর থেকে তিন দিনব্যাপী হুমায়ূন মেলার ঘোষণা দেন। মেলার টাইটেল স্পন্সর ছিলো উৎসব কুরিয়ার। মিডিয়া পার্টনার ছিলো ঠিকানা, চ্যানেল আই।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫