ঢাকা, মঙ্গলবার,২৫ এপ্রিল ২০১৭

শেষের পাতা

রাজধানীতে পৃথক ঘটনায় ৪ জনের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক

২২ এপ্রিল ২০১৭,শনিবার, ০০:০০


প্রিন্ট

রাজধানীতে পৃথক ঘটনায় দুই নারীসহ চারজনের অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে। তারা হলেন গার্মেন্টকর্মী শারমিন আক্তার (১৬), উত্তরখানের সাথী আক্তার স্বপ্না (২২), রিকশাচালক রজব আলী (৫০) এবং নিরাপত্তাকর্মী শাহজাহান আলী (৪৫)। গত বৃহস্পতিবার মধ্য রাত থেকে গতকাল শুক্রবার ভোর পর্যন্ত এ ঘটনাগুলো ঘটে। ময়নাতদন্তের জন্য মৃতদের লাশ ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।
উত্তরখান থানার এসআই মকবুল হোসেন জানান, গত বৃহস্পতিবার রাতে সাথী আক্তার স্বপ্না গলায় ফাঁস দেয়। পরিবারের লোকজন দেখতে পেয়ে তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। স্বপ্না শেরপুর জেলার নকলা উপজেলার বানেশ্চরদী গ্রামের ফিরোজ মিয়ার মেয়ে। তার আত্মহত্যার কারণ জানা যায়নি।
শারমিনের বড় বোন নিলুফা আক্তার জানান, তার বাবার নাম মৃত আব্দুল রাজ্জাক। গ্রামের বাড়ি নওগাঁ জেলার মহাদেবপুর উপজেলার হরিরামনগর গ্রামে। তারা তুরাগ এলাকায় বসবাস করছেন। শারমিন ওখানকার তোহা সোয়েটার গার্মেন্টে কাজ করত। গত বৃহস্পতিবার রাতে বাসা থেকে খাবার খেয়ে আবার অফিসের উদ্দেশে বের হয় শারমিন। রাত অনেক হলেও সে বাসায় না ফেরায় তাকে খোঁজা হয়। একপর্যায়ে ভোর সাড়ে ৫টায় বাসার পাশে গাছের সাথে গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় তাকে ঝুলন্ত দেখা যায়। এটি আত্মহত্যা নাকি হত্যা তা নিশ্চিত নয় মৃতের পরিবার ও পুলিশ।
তেজগাঁও থানার এসআই দিদার হোসেন জানায়, বৃহস্পতিবার রাত ২টায় তেজগাঁও রেলওয়ে কলোনিসংলগ্ন একটি টিনশেড বাসা থেকে নিরাপত্তারী শাহজাহানের পচনশীল লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। শাহজাহান চুয়াডাঙ্গা জেলার জীবননগর উপজেলার খাদেম মিয়ার ছেলে। স্ট্রোক জনিত কারণে তার মৃত্যু হয়েছে, নাকি অন্য কোনো ঘটনা আছে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে জানা যাবে বলে জানান এসআই।
এ দিকে ওই রাতেই ধানমন্ডি জেনারেল হাসপাতালের সামনে রিকশা রেখে চা পান করার সময় একটি বেপরোয়া গতির প্রাইভেট কার চাপা দেয় রজব আলীকে। ধানমন্ডি থানার এসআই জসিমউদ্দিন জানান, রজবের বাড়ি দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলায়। তিনি শ্যামলীর আদাবরে থাকতেন।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন
চেয়ারম্যান, এমসি ও প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

ব্যবস্থাপনা পরিচালক : শিব্বির মাহমুদ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫