সঙ্গীতশিল্পী লাকি আখন্দ আর নেই

প্রধানমন্ত্রীর শোক
নয়া দিগন্ত অনলাইন

না ফেরার দেশে চলে গেলেন কিংবদন্তি সঙ্গীতশিল্পী ও মুক্তিযোদ্ধা লাকী আখন্দ। গতকাল সন্ধ্যা ৬টায় তিনি পুরান ঢাকার আরমানিটোলার নিজ বাসায় ইন্তেকাল করেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। তার বয়স হয়েছিল ৬১ বছর।
চিকিৎসার্থে আড়াই মাস ঢাকা ও সিঙ্গাপুরের হাসপাতালে থেকে গত বৃহস্পতিবার বাসায় ফেরেন লাকী। চিকিৎসার ফলে শারীরিক অবস্থা আগের চেয়ে ভালো হওয়ায় ডাক্তাররা তাকে বাসায় বিশ্রামে পাঠান।
‘আমায় ডেকো না, ফেরানো যাবে না’সহ অসংখ্য জনপ্রিয় এ গানের শিল্পী ক্যান্সারের সাথে লড়ছিলেন। বাংলা নিউজ/ বাংলা ট্রিবিউন
টানা আড়াই মাস হাসপাতালজীবন শেষে গেল সপ্তাহে রাজধানীর আরমানিটোলার নিজ বাসায় ফিরেছিলেন কিংবদন্তি সঙ্গীতশিল্পী লাকী আখন্দ। তবে গতকাল দুপুর নাগাদ তার শরীরের অবনতি ঘটে। সন্ধ্যার আগে দ্রুত নিয়ে যাওয়া হয় মিটফোর্ড হাসপাতালে। সেখানে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় চিকিৎসক লাকী আখন্দকে মৃত ঘোষণা করেন।
বিষয়টি নিশ্চিত করেন ‘শিল্পীর পাশে ফাউন্ডেশন’ সংগঠনের স্বেচ্ছাসেবী এরশাদুল হক টিংকু।
গত ৫ ফেব্রুয়ারি বরেণ্য এ শিল্পীর শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে বিএসএমএমইউর সেন্টার ফর প্যালিয়েটিভ কেয়ারের ভর্তি করা হয়। তিনি সেখানে অধ্যাপক নেজামুদ্দিন আহমেদের অধীনে চিকিৎসাধীন ছিলেন।
লাকী আখন্দের উল্লেখযোগ্য গানের মধ্যে রয়েছেÑ ‘এই নীল মনিহার’, ‘কবিতা পড়ার প্রহর এসেছে’, ‘যেখানে সীমান্ত তোমার’, ‘মামনিয়া, ‘বিতৃষ্ণা জীবনে আমার’, ‘কী করে বললে তুমি’ ‘লিখতে পারি না কোনো গান, ‘ভালোবেসে চলে যেও না’ প্রভৃতি।
লাকী আখন্দ, আধুনিক বাংলা সঙ্গীতের খ্যাতিমান শিল্পী, সুরকার ও সঙ্গীত পরিচালক। তার জন্ম ১৯৫৬ সালের ১৮ জুন। পাঁচ বছর বয়সেই তিনি তার বাবার কাছ থেকে সঙ্গীত বিষয়ে হাতেখড়ি নেন। শৈশব কেটেছে ঐতিহ্যবাহী পুরান ঢাকার পাতলা খান লেনে। মাত্র চৌদ্দ বছর বয়সে এইচএমভি পাকিস্তানে সুরকার হিসেবে তালিকাভুক্ত হন। সুরকার হিসেবে। এ ছাড়া কাজ করেছেন এইচএমভি ভারত ও স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রেও।
স্বাধীনতার পরপর নতুন উদ্যমে বাংলা গান নিয়ে কাজ শুরু করেন তিনি। তার নিজের সুর করা গানের সংখ্যা দেড় হাজারেরও বেশি। শিল্পীর সহোদর ণজন্মা হ্যাপী আখন্দের সাথে ছিল তার আত্মার সম্পর্ক। ভাইয়ের মৃত্যুর পর দীর্ঘকাল তিনি নিজেকে গুটিয়ে রেখেছিলেন। দুইজনের যৌথ প্রয়াসে সূচিত হয়েছিল বাংলা গানের এক নতুন ধারা।
প্রধানমন্ত্রীর শোক
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা ও প্রখ্যাত সঙ্গীতজ্ঞ লাকী আখন্দের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।
এক শোকবার্তায় প্রধানমন্ত্রী সঙ্গীতাঙ্গন ও মুক্তিযুদ্ধে লাকী আখন্দের অবদানের কথা স্মরণ করেন।
শেখ হাসিনা মরহুমের রূহের মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।
মির্জা ফখরুলের শোক
বিশিষ্ট শিল্পী লাকী আখন্দের ইন্তেকালে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। তিনি মরহুমের রূহের মাগফিরাত কামনা করে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান। এ ছাড়া তার মৃত্যুতে বিএনপি মহাসচিবের উপদেষ্টা গাজী মাজহারুল আনোয়ার এবং জাসাস সভাপতি ড. মামুন আহমেদও অনুরূপ শোক প্রকাশ করে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.