ঢাকা, মঙ্গলবার,২৭ জুন ২০১৭

রাজনীতি

হাওরাঞ্চলকে দুর্গত এলাকা ঘোষণার দাবি ক্ষেতমজুর সমিতির

নিজস্ব প্রতিবেদক

২১ এপ্রিল ২০১৭,শুক্রবার, ১৯:০০ | আপডেট: ২১ এপ্রিল ২০১৭,শুক্রবার, ১৯:২৬


প্রিন্ট

অবিলম্বে হাওরাঞ্চলকে দুর্গত এলাকা ঘোষণা এবং ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক-ক্ষেতমজুরদের ক্ষতিপূরণ দেয়ার দাবি জানিয়েছেন কৃষক সমিতি ও ক্ষেতমজুর সমিতির নেতৃবৃন্দ।

তারা বলেছেন, দুর্বল বাঁধ নির্মাণ, সময়মত বাঁধ নির্মাণ না করার কারণে আজ হাওরাঞ্চলে এই দুর্গতি। কৃষকের ভাগ্য নিয়ে ছিনিমিনি খেলার জন্য পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তাদের বিচার দাবি করেন নেতৃবৃন্দ।

আজ শুক্রবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত সমাবেশে কৃষক ও ক্ষেতমজুর সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এসব অভিযোগ করেন।

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন কৃষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক কাজী সাজ্জাদ জহির চন্দন ও ক্ষেতমজুর সমিতির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আনোয়ার হোসেন রেজা।

সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন কৃষক সমিতির সভাপতি মোর্শেদ আলী, ক্ষেতমজুর সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট সোহেল আহমদসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, সুনামগঞ্জ, কিশোরগঞ্জ, নেত্রকোনা, মৌলভীবাজার, সিলেট ও হবিগঞ্জের হাওরাঞ্চলের সব বোরো ধান পানিতে তলিয়ে গেছে।

সমাবেশে নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, এই ভয়াবহ পরিস্থিতিতে হাওরাঞ্চলকে দুর্গত এলাকার দাবি জানানো হলেও সরকারের সচিব ও কর্মকর্তারা হাওর অঞ্চলকে নিয়ে তুচ্ছ-তাচ্ছিল করছে- যা অত্যন্ত নিন্দনীয়। হাওরাঞ্চল হলো বাংলাদেশের ফসল ও মাছ উৎপাদনের অন্যতম প্রধান ক্ষেত্র। এই বন্যায় শুধু ধানই নয়, মাছ, গরুসহ পশু পাখিও বিপন্ন হতে চলেছে।

তারা বলেন, অবিলম্বে হাওরের ক্ষতিগ্রস্ত সব কৃষক ও ক্ষেতমজুরদের ক্ষতিপূরণ, দুর্গত এলাকায় হাওর ইজারা বাতিল করে জনসাধারণের মাছ ধরে বেঁচে থাকার জন্য উন্মুক্ত ঘোষণা করা, সারা বছর দুর্গত এলাকাবাসীর জন্য রিলিফ ও রেশনের মাধ্যমে পর্যাপ্ত চাল, ডাল, তেল, লবণসহ নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী দিতে হবে। লুটপাট-দুর্নীতি বন্ধ করা, অবিলম্বে গবাদিপশুর জন্য পর্যাপ্ত খাদ্য সরবরাহ করে গরু-ছাগলগুলোকে বাঁচানোর উদ্যোগ নিতে হবে।

সমাবেশে নেতৃবৃন্দ হাওর অঞ্চলের সব ধরনের কৃষি ঋণ, এনজিও ঋণ, মহাজনী ঋণ মওকুফ করে আগামী ফসলের জন্যে পর্যাপ্ত নতুন করে সুদমুক্ত কৃষিঋণ বরাদ্দর দাবি জানান।

নেতৃবৃন্দ হাওর অঞ্চলের সব নদী ও খাল খনন, বেরিবাঁধগুলো যথাসময়ে ও যথাযথভাবে নির্মাণ ও মেরামত, দুর্দশাগ্রস্থ কৃষকদের জিম্মি করে জমি কেনাবেচা (ডিস্ট্রেস ল্যান্ড) ও দাদন ব্যবসা বন্ধ করার জন্য সরকারের প্রতি জোর দাবি জানান।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫