ঢাকা, মঙ্গলবার,২৪ অক্টোবর ২০১৭

রাজশাহী

বগুড়ায় আগাম বোরো ধান কাটা শুরু

আবুল কালাম আজাদ, বগুড়া অফিস

২১ এপ্রিল ২০১৭,শুক্রবার, ১৫:২৫


প্রিন্ট

বগুড়া জেলায় আগাম জাতের বোরো ধান কাটা শুরু হয়েছে। তবে পুরো দমে ধান কাটা শুরু হতে আরো ৭-১০ দিন সময় লাগবে। তবে ন্যায্য দাম নিয়ে আশংকা প্রকাশ করেছেন কৃষকরা।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর বগুড়া কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, এ বছর জেলার ১২ উপজেলায় বোরো ধান চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয় এক লাখ নব্বই হাজার ১৩৮ হেক্টর জমিতে। এতে উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয় সাত লাখ তিপ্পান্ন হাজার একশত বারো মেট্রিক টন। তবে লক্ষ্যমাত্রা অতিক্রম করেছে।

জেলার অন্যতম খাদ্য উৎপাদনকারী নন্দীগ্রাম উপজেলায় আগাম রোপণ করা বোরো ধান কাটা শুরু করেছেন কৃষকরা। পোকামাকড়-রোগবালাই কম, নন ইউরিয়া সারের ব্যবহার, আধুনিক সেচ, কৃষক প্রশিক্ষণ ও মনিটরিংসহ উচ্চফলনশীল জাতের আবাদ বেশি হওয়ায় এবার উপজেলায় লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে বাম্পার ফলনের আশা করছে কৃষি বিভাগ। এসব এলাকার কৃষকরা প্রায় প্রতিবছর আগেই বোরো ধান কেটে নিজেদের প্রয়োজনসহ স্থানীয় বাজারে বিক্রি করে।কৃষি বিভাগ জানায়, আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে পুরো উপজেলাই ধান কাটা মাড়াই শুরু হবে।

উপজেলার কাথম গ্রামের কৃষক শফিকুল ইসলাম জানান, প্রতিমণ মিনিকেট ৯২০ থেকে ৯৫০ টাকা ও বিআর-৩৪ জাতের ধান ১৩৫০ থেকে ১৩৮০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে আর কয়েক দিনের মধ্যে পুরোদমে বিভিন্ন জাতের ধান কাটা শুরু হবে। ন্যায্য মূল্যে ধান বিক্রি করতে না পারলে লোকসান গুনতে হবে।

উপজেলা কৃষি অফিসার মুহাম্মদ মশিদুল হক জানান, এবারো বোরো ধান ভালো হয়েছে। ভালোভাবে কৃষক ধান ঘরে তুলতে পারলে তারা লাভবান হবেন। কারন সরকার এছর প্রতিকেজি ধান ২৪ টাকা ও চাউল ৩৪ টাকা ধরে সরকারি গুদামে কেনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫