ঢাকা, শুক্রবার,২০ অক্টোবর ২০১৭

বরিশাল

রাঙ্গাবালীতে ধর্ষণের ঘটনায় পিতা-পুত্রের বিরুদ্ধে জুতা ও ঝাড়ু মিছিল

রাঙ্গাবালী (পটুয়াখালী) সংবাদদাতা

২০ এপ্রিল ২০১৭,বৃহস্পতিবার, ১৬:২৩ | আপডেট: ২০ এপ্রিল ২০১৭,বৃহস্পতিবার, ১৬:৪০


প্রিন্ট

পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলায় পৃথক দুইটি ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত পিতা সেরাজুল চৌকিদার ও তার ছেলে সুমন চৌকিদারের বিরুদ্ধে জুতা ও ঝাড়ু মিছিল করেছেন এলাকাবাসীরা। একই সাথে উক্ত ঘটনায় বিচারের দাবী জানিয়েছেন তারা।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার সামুদাফৎ এলাকায় এ প্রতিবাদ মিছিলে অংশ নেয় অন্তত শ’খানেক নারী।

জানা গেছে, গত বছরের ৩ অক্টোবর গভীর রাতে নিজ ঘরের পিছনের দরজা খুলে প্রকৃতির ডাকে বাইরে যান সামুদাফৎ এলাকার দুই সন্তানের জননী জনৈক মহিলা। এ সময় ওঁৎপেতে থাকা প্রতিবেশি সেরাজুল চৌকিদার তাকে জোরপূর্বক একটি ফসলি জমিতে নিয়ে বস্ত্রহীন করেন। এর পরে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা চালালে ওই মহিলার ডাক-চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসেন। এসময় সেরাজুল তার শরীরের পরিহীত বস্ত্র এবং ব্যবহৃত মোবাইলটি ফেলে পালিয়ে যান।

পরে এ ঘটনায় ওই মহিলা বাদি হয়ে পটুয়াখালী নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। যা বর্তমানে বিচারাধীন রয়েছে।

এদিকে গত ১৪ এপ্রিল পহেলা বৈশাখের রাতে সেরাজুল চৌকিদারের ছেলে সুমন চৌকিদার একই এলাকার এক মাদারাসার এক শিক্ষার্থীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেন। এ ঘটনায় সংশ্লিষ্ট থানায় ধর্ষিতা বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন। এছাড়াও পিতা-পুত্রের বিরুদ্ধে নারী কেলেঙ্কারীর একাধিক ঘটনা রয়েছে বলে মিছিলে অংশ নেয়া এলাকায় একাধিক নারী জানান। এ প্রেক্ষিতে আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে স্থানীয় নারীরা পিতা ও পুত্রের বিরুদ্ধে এবং বিচারের দাবীতে জুতা ও ঝাড়ু মিছিল প্রদর্শন করেছেন।

এ ব্যপারে সামুদাফৎ ইউপি সদস্য নবিনুর জানান, এ ঘটনা সম্পর্কে আমি জানি না। তবে ওদের চরিত্র ভালো না এটা সত্য। ওদের সমাজ থেকে বের করে দেয়া উচিত।

রাঙ্গাবালী থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শামসুল আরেফীন বলেন, আমরা মামলাটি আদালতে প্রেরণ করছি।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫