ঢাকা, রবিবার,২২ অক্টোবর ২০১৭

ফ্যাশন

ঝলমলে চুল

ফাহমিদা জাবীন

১৭ এপ্রিল ২০১৭,সোমবার, ১৮:২০


প্রিন্ট

গরমের এই মওসুমে চুল প্রায়ই হয়ে পড়ে রুক্ষ। কারণ গরম, ঘাম, সূর্যের কিরণ আর ধুলোবালি। আমাদের দেশ যেহেতু গ্রীষ্মপ্রধান, তাই চুলের যথাযথ পরিচর্যা না হলে সহজেই চুলে নানা সমস্যা দেখা দেয়। বিশেষ করে যারা বাইরে বের হন। গরমের এই দিনগুলোতে বাইরে বের হওয়ার সময় কিছুটা প্রস্তুতি রাখা খুবই জরুরি।

• বাইরে যাওয়ার আগে চুল যতটা সম্ভব ঢেকে নিন। প্রয়োজনে ছাতা ব্যবহার করতে পারেন। তবে যারা স্কার্ফ ব্যবহার করেন তারা লক্ষ রাখবেন, স্কার্ফ এমনভাবে বাঁধবেন না যেন মাথায় শক্ত হয়ে বসে থাকে। এতে মস্তিষ্কে রক্ত চলাচল বাঁধা পাবে। যারা স্কার্ফ বা ছাতা ব্যবহার করবেন না তারা চুলে সানস্ক্রিনযুক্ত কন্ডিশনার ব্যবহার করুন। যদি এরও সুযোগ না থাকে তাহলে সাধারণ সানস্ক্রিন হাতে নিয়ে চুলে মেখে নিন। তবে এ ক্ষেত্রে বাসায় ফিরে অবশ্যই চুল ভালোভাবে শ্যাম্পু করতে হবে।

• যারা চুলে ঘন ঘন হেয়ারড্রায়ার ব্যবহার করেন বা চুল আয়রন করেন, তারা খুব বেশি এসব ব্যবহার করবেন না। কারণ এগুলোর গরম তাপ চুল ও ত্বকের জন্য ক্ষতিকর। একইভাবে গরম পানি ব্যবহার করাও চুলের জন্য উপকারী নয়। অতিরিক্ত কেমিক্যালযুক্ত শ্যাম্পু বা কন্ডিশনারের বদলে প্রাকৃতিক উপাদানসমৃদ্ধ সামগ্রী ব্যবহার করুন।

• চুল পরিষ্কার রাখা খুবই জরুরি। সপ্তাহে অন্তত দুই দিন চুলে শ্যাম্পু ও কন্ডিশনার ব্যবহার করুন। কারণ কন্ডিশনার চুলের ময়েশ্চার ধরে রাখতে সাহায্য করে। গরমের সময় চুলে ময়েশ্চারাইজারযুক্ত শ্যাম্পু ব্যবহার করুন। সুইমিংপুল বা সমুদ্রের পানিতে ভেজা চুল পরিষ্কার করার জন্য ক্লারিফাইং শ্যাম্পু ব্যবহার করুন। কারণ ঠিকমতো পরিষ্কার না করা হলে ক্লোরিন চুলকে শুষ্ক করে তোলে।

• দেড় থেকে দুই মাস অন্তর চুল ট্রিম করবেন। গরমের কারণে এ সময় চুলের ডগা ফাটার সমস্যা বেশি দেখা যায়। তাই এই সময়ে ট্রিম করা খুবই জরুরি। গরমের দিনে চুল খোলা না রেখে হালকাভাবে বেঁধে রাখাই ভালো। এতে চুল বাইরের রোদ, ধুলা, ঘাম থেকে অনেকাংশে রক্ষা পাবে।

• প্রতিদিন শ্যাম্পু করার ফলে যেহেতু চুলের ময়েশ্চার চলে যায়, তাই মাঝেমধ্যে শ্যাম্পু করার বদলে হাতে সামান্য বেবি পাউন্ডার নিয়ে চুলে আলতো করে মেখে নিন এবং চুল আঁচড়ে নিন।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫