ঢাকা, বুধবার,২৪ মে ২০১৭

প্যারেন্টিং

সিবলিং বন্ডিং

নিপা আহমেদ

১৭ এপ্রিল ২০১৭,সোমবার, ১৮:১৪


প্রিন্ট

পরিবারে পিঠাপিঠি ভাইবোন থাকলে তাদের মধ্যকার সম্পর্কটা হয় অম্ল মধুর। এক দিকে যেমন তাদের মধ্যে থাকে গভীর মমতার বন্ধন অন্য দিকে তেমনি ঝগড়াঝাঁটি, মান অভিমান হতেও সময় লাগে না। কিন্তু খেয়াল রাখতে হবে এই ঝগড়াঝাঁটি মান অভিমান যেন কোনো মারাত্মক আকার না নেয়। এ ব্যাপারে সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব বাবা-মাকে নিতে হবে।
• সন্তানদের মধ্যে ভেদাভেদ না করা, সমবয়সী ভাইবোনদের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক তৈরি করা, সন্তানদের আত্মবিশ্বাসী করে গড়ে তোলা এবং তাদের সঠিক গাইড করার দায়িত্ব মা-বাবা দু’জনেরই।
• সন্তানদের সামনে নিজেরা ঝগড়া করবেন না। পারিবারিক পরিবেশ থেকে সন্তানরা অনেক কিছু শেখে। তাই তারা যদি দেখে বাড়িতে সবসময় ঝগড়া হচ্ছে তাই তারাও তাই শিখবে। তাই চিৎকার বা ঝগড়া নিজেদের মধ্যে যতটা সম্ভব এড়িয়ে চলুন। সন্তানদের সামনে উপযুক্ত উদাহরণ রাখুন।
• সব শিশুই একই রকম মেধা ও গুণ নিয়ে জন্মায় না। কেউ পড়াশোনায় ভালো হয়, কেউ আবার খেলাধুলায়, ছবি আঁকায়, নাচ-গানে। কেউ খুব শান্ত কেউবা চঞ্চল। তাই দু’টি সন্তানের মধ্যে কখনো তুলনা করতে যাবেন না। এতে অজান্তেই ওদের মধ্যে দূরত্ব সৃষ্টি হয়ে যাবে এবং একে অপরকে নিজের প্রতিদ্বন্দ্বী মনে করবে। যা কখনো কাম্য নয়। তাই সন্তানদের মধ্যে কোনো ভেদাভেদ করবেন না। দু’জনকে একই রকম প্রাধান্য দেয়া উচিত।
• খুব স্বাভাবিকভাবেই মা-বাবারা ভাই-বোনদের সব জিনিস শেয়ার করতে বলেন। কিন্তু সব সময় এমনটা করা ঠিক নয়। কারণ বেশির ভাগ শিশুই তার জিনিস ভাইবোনদের সাথে ভাগাভাগি করতে চায় না। মা-বাবারও উচিত কোনো জিনিস এনে দু’জনের মধ্যে ভাগাভাগি করে না দেয়া। ওদের ওপর নিজেদের পছন্দের জিনিস বেছে নেয়ার কাজটা ছেড়ে দিন। দেখবেন ওদের মধ্যে একটা সুন্দর বোঝাপড়া তৈরি হয়ে গেছে।
• ভাইবোনদের ঝগড়াতে সবসময় অভিভাবকদের মধ্যস্থতার ভূমিকা না নেয়াই ভালো। ওদের নিজেদের সমস্যা নিজেদের মতো করে মেটাতে দিন। একান্তই নিজেদের সমস্যা সমাধান করতে না পারলে ওদের সাহায্য করুন।
• সব থেকে বেশি প্রয়োজন শিশুদের আত্মবিশ্বাস বাড়ানো এবং বাহ্যিক সৌন্দর্যের চেয়েও বেশি গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিত্বকে শাণিত করা। গল্প বলার ছলে সন্তানদের শেখান কখন কেমন ব্যবহার করা উচিত বা উচিত নয়।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন
চেয়ারম্যান, এমসি ও প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

ব্যবস্থাপনা পরিচালক : শিব্বির মাহমুদ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫