ঢাকা, মঙ্গলবার,২৭ জুন ২০১৭

জবস অ্যান্ড ক্যারিয়ার

সহকারী জজ নিয়োগ

নয়া দিগন্ত অনলাইন

২৪ মার্চ ২০১৭,শুক্রবার, ১৮:২২


প্রিন্ট

১১ শ’ বাংলাদেশ জুডিশিয়াল সার্ভিস পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে জুডিশিয়াল সার্ভিস কমিশন। প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষার মাধ্যমে সহকারী জজ পদে নিয়োগ দেয়া হবে ১৪৩ জন। ইতোমধ্যে অনলাইনে আবেদনপত্র (BJSC Form-1) পূরণ ও পরীক্ষার ফি জমা দেয়া শুরু হয়েছে। অনলাইনে আবেদনপত্র (BJSC Form-1) পূরণ ও পরীক্ষার ফি জমা দেয়ার শেষ তারিখ : আগামী ১৬ এপ্রিল ২০১৭, বিকেল ৫টা পর্যন্ত। 

পদের নাম : সহকারী জজ।
পদের সংখ্যা : ১৪৩টি। (বিধি অনুযায়ী পদ সংখ্যা হ্রাস বা বৃদ্ধি পেতে পারে।)
আবেদনের শিক্ষাগত যোগ্যতা : আইন বিষয়ে দ্বিতীয় শ্রেণীর স্নাতক বা দ্বিতীয় শ্রেণীর এলএলএম ডিগ্রি থাকলে আবেদন করা যাবে।
বয়সসীমা : ১ মার্চ ২০১৭ তারিখে বয়সসীমা ৩২ বছর।
বেতন স্কেল : ৩০,৯৩৫-৬৪,৪৩০/- ও অন্যান্য সুবিধাদি।

অনলাইনে আবেদনপত্র পূরণ ও পরীক্ষার ফি জমা দেয়ার শেষ তারিখ

অনলাইনে আবেদনপত্র পূরণ ও পরীক্ষার ফি জমা দেয়ার শেষ তারিখ আগামী ১৬ এপ্রিল ২০১৭, বিকেল ৫টা পর্যন্ত। দরকারি তথ্যের জন্য ভিজিট করতে পারেন www.bjsc.gov.bd

প্রিলিমিনারি পরীক্ষা

সহকারী জজ পদে অংশ নিতে সব প্রার্থীকে ১০০ নম্বরের প্রিলিমিনারি/প্রাথমিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে। এমসিকিউ পদ্ধতিতে ওই পরীক্ষায় মোট ১০০টি প্রশ্ন থাকবে। প্রতিটি এমসিকিউ প্রশ্নে নম্বর থাকবে ১। প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য ০.২৫ নম্বর কাটা হবে। কোটার সুবিধাভোগী প্রার্থীসহ সব প্রার্থীকেই লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণের প্রাক যোগ্যতা হিসেবে প্রিলিমিনারি/প্রাথমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে। প্রাথমিক পরীক্ষায় বাংলা, ইংরেজি, গণিত, দৈনন্দিন বিজ্ঞান, বুদ্ধিমত্তা, বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়াবলি এবং আইন বিষয় থেকে প্রশ্ন থাকবে। প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় পাস নম্বর ৫০। প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীরাই কেবল লিখিত পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবেন।

লিখিত পরীক্ষা

১১ শ’ বিজেএস পরীক্ষায় ১০০০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। যার মধ্যে বাংলা বিষয়ে ১০০ নম্বর, ইংরেজিতে ১০০, গণিতে ৫০, দৈনন্দিন বিজ্ঞানে ৫০, বাংলাদেশ বিষয়াবলিতে ৫০ ও আন্তর্জাতিক বিষয়ে ৫০ নম্বর ও আইনের আবশ্যিক বিষয়ে ৫০০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা দিতে হবে। এর মধ্যে দেওয়ানি-সংক্রান্ত আইন, ফৌজদারি-সংক্রান্ত আইন, সংবিধান-সংক্রান্ত বিষয়, মুসলিম ও পারিবারিক আইন-সংক্রান্ত বিষয়ে প্রশ্ন করা হয়। সব শেষে আইনের ঐচ্ছিক বিষয়ে ১০০ নম্বরের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। লিখিত পরীক্ষায় গড়ে ৫০ শতাংশ নম্বর পেতে হবে। তবে কোনো বিষয়ে ৩০ শতাংশের কম নম্বর পেলে ওই প্রার্থীকে লিখিত পরীক্ষায় অকৃতকার্য ধরা হবে।

প্রস্তুতি নিতে হবে এখন থেকে

লিখিত পরীক্ষায় ভালো করতে প্রার্থীকে অবশ্যই আইন-সংক্রান্ত বিষয়গুলো সম্পর্কে ভালো ধারণা রাখতে হবে। এ জন্য মনোযোগসহকারে অষ্টম, নবম-দশম থেকে একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণীর পাঠ্যবই পড়বেন। বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়ে ভালো করতে হলে পাঠ্য বইয়ের পাশাপাশি পড়তে হবে পত্রিকা। আইন অংশে ভালো করতে পড়তে হবে সম্মান শ্রেণীর আইন সম্পর্কিত বই। বাংলা ও ইংরেজি বিষয়ের লিখিত পরীক্ষার জন্য বাংলা ও ইংরেজি পত্রিকার সম্পাদকীয় ও তথ্যসমৃদ্ধ ফিচার, প্রতিবেদন পড়তে হবে। এ ছাড়া অনুশীলন করতে পারেন বিগত সহকারী জজ নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্ন। গণিত ও বিজ্ঞানের প্রশ্ন তুলনামূলক কঠিন হয়। এ জন্য নিয়মিত অষ্টম থেকে নবম- দশম শ্রেণীর গণিত বই থেকে অঙ্কের সমাধান চর্চা করবেন। পারিবারিক আইন বিষয়ে ফারায়েজের ওপর প্রশ্ন আসতে পারে।

মৌখিক পরীক্ষা

লিখিত পরীক্ষায় পাস করলে প্রার্থীদের ডাকা হবে মৌখিক পরীক্ষায়। এ জন্য প্রার্থীদের আত্মবিশ্বাসী হতে হবে। পরীক্ষায় ব্যক্তিগত ও আইনি বিষয়ে প্রশ্ন করা হবে। ভাইভা পরীক্ষার জন্য প্রতিটি প্রশ্ন ভালোভাবে শুনে প্রশ্নকর্তার চাহিদা অনুযায়ী উত্তর দেবেন। ভাইভায় নিজেকে উপস্থাপন করতে হবে শালীন ও রুচিশীলভাবে। ১০০ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষায় পাস নম্বর ৫০।
প্রাথমিক, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার তারিখ ও সময়সূচি : প্রাথমিক, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার তারিখ ও সময়সূচি কমিশনের ওয়েব সাইট ও দৈনিক পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তির মারফত জানানো হবে।

আবেদনপত্র পূরণ

১১ শ’ বিজেএস পরীক্ষার আবেদনপত্র (BJSC Form-1) অন লাইনে পূরণ করে আবেদন করতে হবে। প্রাথমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীরা পরে কমিশনের ওয়েব সাইট www.bjsc.gov.bd থেকে (BJSC Form-2) ডাউনলোড করে নির্দেশনায় উল্লেখিত কাগজপত্রসহ লিখিত পরীক্ষার আগে কমিশন কর্তৃক নির্ধারত সময়ে কমিশন সচিবালয়ে জমা দিতে হবে। ১১ শ’ বিজেএস পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি ও আবেদনপত্র পূরণের নিয়মাবলি সংবলিত User Guide কমিশনের ওয়েবসাইটে E-Application বাটনে ক্লিক করলে পাওয়া যাবে।

পরীক্ষার ফি প্রদান

সফলভাবে অন লাইনে আবেদনটি জমা হওয়ার পর টেলিটক মোবাইল ফোন ব্যবহার করে নিবন্ধন ফি ১২০০ টাকা জমা দিতে হবে।

আবেদনপত্রের সাথে যেসব কাগজপত্র জমা দিতে হবে

 ১. এসএসসি ও এইচএসসি/সমমান পরীক্ষার মূল সনদ ও নম্বরপত্রের সত্যায়িত ফটোকপি।
২. আইন বিষয়ে স্নাতক/সম্মান/এলএলএম পরীক্ষায় অবতীর্ণ প্রার্থীর ক্ষেত্রে অবতীর্ণ সনদের সত্যায়িত ফটোকপি।
৩. আইন বিষয়ে স্নাতক/সম্মান/এলএলএম পরীক্ষায় পাসের মূল/সাময়িক সনদ ও মূল নম্বরপত্রের সত্যায়িত ফটোকপি।
৪. স্নাতক ও তদূর্ধ্ব ডিগ্রি থাকলে এর মূল/সাময়িক সনদ ও মূল নম্বরপত্রের সত্যায়িত ফটোকপি।
৫. প্রথম শ্রেণীর গেজেটেড কর্মকর্তা কর্তৃক প্রদত্ত চারিত্রিক সনদপত্রের সত্যায়িত ফটোকপি।
৬. আবেদনপত্রে উল্লিখিত প্রার্থীর স্থায়ী ঠিকানা যে এলাকায় অবস্থিত ওই এলাকার ইউনিয়ন পরিষদ/পৌরসভার চেয়ারম্যান/ সিটি করপোরেশনের মেয়র/ ওয়ার্ড কমিশনার কর্তৃক প্রদত্ত নাগরিকত্বের সত্যায়িত ফটোকপি।
৭. জাতীয় পরিচয়পত্র/পাসপোর্টের সত্যায়িত ফটোকপি।
৮. উপজাতীয় সম্প্রদায়ভুক্ত হলে জেলা প্রশাসকের কাছ থেকে প্রাপ্ত সনদপত্রের সত্যায়িত ফটোকপি।
৯. মু্িক্তযোদ্ধা কোটার প্রার্থীদের মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কর্তৃক ইস্যুকৃত মুক্তিযোদ্ধা সনদের সত্যায়িত ফটোকপি।
১০. ৫ কপি পাসপোর্ট সাইজের সত্যায়িত রঙিন ছবি।
১১. প্রবেশপত্র, পরিচিতি প্রতিপাদনপত্র, প্রয়োজনীয় প্রত্যয়নপত্র ও পত্র যোগাযোগের ঠিকানাসংক্রান্ত পূরণকৃত ফরমসমূহ।

আবেদনপত্র পাঠানোর ঠিকানা

আবেদনপত্র বাংলাদেশ জুডিশিয়াল সার্ভিস কমিশন সচিবালয়, ১৫, কলেজ রোড, রমনা, ঢাকা-১০০০ বরাবরে পাঠাতে হবে।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫